কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

স্ত্রীর বক্তব্যে বিভ্রান্তি শিলং জেলা আদালতে সালাহউদ্দিনের জামিন নাকচ

প্রকাশিত : ৩০ মে ২০১৫, ০১:১৭ এ. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভারতের শিলংয়ে আইনী হেফাজতে থাকা বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিনের জামিন নাকচ করেছে মেঘালয়ের একটি আদালত। শুক্রবার আদালত এক আদেশে জানায়, তার বিরুদ্ধে ইন্টারপোলের রেড নোটিস থাকায় তাকে জামিন দেয়া হচ্ছে না।

শুক্রবার বিকেলে ইস্ট খাসি হিলসের জেলা ও দায়রা জজ আদালতে তার জামিন আবেদনের ওপর শুনানি হয়। শুনানিতে মেঘালয় পুলিশ ও রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবী জামিন আবেদনের বিরুদ্ধে আপত্তি না তুললেও বিচারক এল খারসিং সালাহউদ্দিনের বিরুদ্ধে ইন্টারপোলের রেড এ্যালার্ট অবহিত ছিলেন।

জামিন আবেদনের আগে শুনানিতে বেশ কিছু পরিভাষা নিয়ে আলোচনা হয়। এ বিষয়ে সালাহউদ্দিনের আইনজীবী এসপি মোহান্ত শুধু বলেন, তাদের জামিন নাকচ হয়েছে।

শুনানি শেষে সন্ধ্যায় আদালত জামিন বাতিল করে। এর আগে সালাহউদ্দিনের স্ত্রী হাসিনা আহমেদ সাংবাদিকদের ফোনে জানিয়েছিলেন, তার স্বামী জামিন পেয়েছেন।

বুধবার শিলং আদালত সালাহউদ্দিনকে ১৪ দিনের আইনী হেফাজতে পাঠায়। আইনী হেফাজতে নেয়ার পর অসুস্থ বোধ করায় বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় ভারতের শিলংয়ের নেগ্রিমস হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সালাহউদ্দিন আহমেদকে। ২২ মে উন্নত চিকিৎসার জন্য হাসিনা আহমেদ তার স্বামীর জামিনের জন্য আবেদন করেন স্থানীয় জেলা আদালতে।

জামিন পাওয়ার পর আইনী হেফাজতে মেঘালয়ের শিলংয়ের নেগ্রিমস হাসপাতালে রয়েছেন সালাহউদ্দিন আহমেদ। শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় নেগ্রিমসের চিকিৎসকরা তাকে হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে রাখার পক্ষে মত দিয়েছেন। সালাহউদ্দিন এখন বুকের ব্যথার পাশাপাশি ডায়রিয়ায় ভুগছেন বলে তার চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

বৈধ কাগজপত্র ছাড়া ভারতে প্রবেশ করায় ভারতের বিদেশ আইন অনুসারে সালাহউদ্দিন আহমেদকে গ্রেফতার দেখায় মেঘালয় পুলিশ। বর্তমানে ভারতে অবস্থানরত সালাহউদ্দিনের স্ত্রী হাসিনা আহমেদ স্বামীর জামিন চেয়ে মেঘালয় রাজ্যের শিলং আদালতে যে আবেদন করেছিলেন তার শুনানি হয় শুক্রবার। জামিন আবেদনে বলা হয়েছে, সালাহউদ্দিন আহমেদ গুরুতর অসুস্থ। সুস্থ হওয়ার জন্য তার বিদেশে উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন। সালাহউদ্দিনের পাসপোর্ট ও সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা নেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রও আবেদনের সঙ্গে আদালতে জমা দেয়া হয়।

বিএনপি জোটের দেশব্যাপী টানা অবরোধ কর্মসূচী চলাকালে ১০ মার্চ ঢাকার উত্তরার একটি বাসায় আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় নিখোঁজ হন সালাহউদ্দিন আহমেদ। এর ৬৩ দিন পর ১২ মে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ের মিমহ্যানস হাসপাতাল থেকে স্ত্রী হাসিনা আহমেদকে ফোন দিয়ে জানান তিনি বেঁচে আছেন। পরে শিলং পুলিশ সংবাদমাধ্যমকে জানায়, ১১ মে সকালে শিলংয়ের গলফ লিংক এলাকা থেকে সালাহউদ্দিন আহমেদকে আটক করা হয়।

প্রকাশিত : ৩০ মে ২০১৫, ০১:১৭ এ. এম.

৩০/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: