মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

কান নিয়ে কানাকানি

প্রকাশিত : ২১ মে ২০১৫

ফ্রান্সের কান শহরে শুরু হয়েছে বিশ্ব চলচ্চিত্রের অন্যতম মর্যাদাপূর্ণ আসর ‘কান চলচ্চিত্র উৎসব’। চলবে ২৪ মে অব্দি। নিয়মিত প্রদর্শনী এবং প্রতিযোগিতার বাইরে রেড কার্পেটে চলচ্চিত্রের তারকাদের হাঁটা এবং ফটোসেশন কানের অন্যতম বড় আকর্ষণ। সেখানে ঘটছে নানা মজার ঘটনা। কান চলচ্চিত্র উৎসবের মজার সব

ঘটনা নিয়ে লিখেছেন শাহেদ পোলেন

উৎসর্গে ইনগ্রিড বার্গম্যান!

এবারের কান উৎসব উৎসর্গ করা হয়েছে হলিউডের সুইডিশ অভিনেত্রী ইনগ্রিড বার্গম্যানকে। ঢাউশ সাইজের পোস্টারে ছেঁয়ে দেয়া হয়েছে ইনগ্রিডের। ১৯৭৩ সালের কান চলচ্চিত্র উৎসবের জুরি বোর্ডের প্রধান ছিলেন ইনগ্রিড। এই উৎসবে ইনগ্রিড বার্গম্যানকে উৎসর্গ করে বানানো সুইডিশ তথ্যচিত্র ‘ইনগ্রিড বার্গম্যান : ইন হার অন ওয়ার্ডস’ প্রদর্শিত হবে।

বর্ণাঢ্য রেড কার্পেট!

কানের রেড কার্পেটে হাঁটার জন্য মুখিয়ে থাকেন অনেক তারকা। তবে, শুধু তারকাই নয় তাদের ঘিরে এক ঝাঁক ফটোগ্রাফার এবং টিভি ক্যামেরা ক্রুও চোখে পড়বে আপনার। হলিউড এবং ইউরোপের নামী-দামী সব তারকারা সেখানে বিচিত্র সব পোশাক পরে হাজির। বেশ কয়েকবছর ধরে বলিউড তারকারা কান উৎসবকে বেশ সরগরম করে রাখছেন। এবারে কানে ভারতীয় অভিনেত্রীদের মধ্যে দেখা গিয়েছে ঐশ্বরিয়া, সোনম কাপুর, ফ্রিডাসহ বেশ কয়েকজনকে। তবে, তারা সেখানে ভারতীয় পোশাকে নয় বরং হাজির হয়েছিলেন পুরোদস্তুর ইউরোপীয়ান পোশাক পরে। তবে অনেকের খোলামেলা পোশাক সমালোচনার ঝড় তুলেছে। মেক্সিকান বংশোদ্ভূত অভিনেত্রী সালমা হায়েক বেশ যৌন আবেদনময়ী পোশাকে হাজির হয়েছিলেন। অন্যদিকে, প্যারিস হিলটন, ইভা লঙ্গোরিয়াসহ একাধিক অভিনেত্রীর পোশাক বেশ বিব্রতকর অবস্থায় ফেলে দিয়েছে অনেককে।

সিনেমার খবরাখবর

উৎসব শুরু হয়েছে পরিচালক ইমানুয়েল বারকর্টের চলচ্চিত্র ‘স্টান্ডিং টল’ এর প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে। এটিই কান চলচ্চিত্র উৎসবের ইতিহাসে কোন নারী পরিচালকের চলচ্চিত্র দিয়ে উৎসব শুরুর দ্বিতীয় ঘটনা। এর আগের ঘটনাটি ছিল ১৯৮৭ সালের। সেসময় ‘এ ম্যান ইন লাভ’ সিনেমার পরিচালক ডায়ানা কারিসের সিনেমা দিয়ে উৎসব শুরু হয়। উৎসবের শেষদিন সমাপনী চলচ্চিত্র হিসেবে প্রদর্শিত হবে পরিচালক লুস জ্যাকুয়েটের সিনেমা ‘আইস এ্যান্ড দ্য স্কাই’। তবে, সব মানুষের মাঝেই তীব্র উত্তেজনা যে, কোন চলচ্চিত্রটি জিতে নেবে উৎসব সেরার পুরস্কার অর্থাৎ ‘পাম ডি অর’। সেটি জানার জন্য অবশ্য সবাইকে আরও কয়েকটি দিন ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করতেই হচ্ছে।

বিচারক হওয়ার মধুর যন্ত্রণা!

কান চলচ্চিত্র উৎসবের বিচারক হওয়ার জন্য বিশ্বের নামী-দামী সব অভিনেতা আর পরিচালকরা মুখিয়ে থাকে। তবে, সবার ভাগ্যে যে শিকে ছেড়ে না সে কথা বলাই বাহুল্য। ৬৮তম আসরের প্রধান বিচারক দুজন! আমেরিকান পরিচালক ইথান কোয়েন এবং জোয়েল কোয়েন। এই দুজন আপন ভাই এবং যৌথভাবে চলচ্চিত্র পরিচালনা করেন। তাদের সবাই আদর করে ‘কোয়েন ব্রাদার্স’ নামেই জানে। তারা রেকর্ডসংখ্যক বারোবার একাডেমি এ্যাওয়ার্ড এর জন্য নমিনেশন পেয়েছিলেন। ‘রাইজিং এ্যারিজোনা’, ‘নো কান্ট্রি ফর দ্য ওল্ড ম্যান’ ‘ফারগো’ তাদের বিখ্যাত সব চলচ্চিত্র। কানের উৎসবের সঙ্গে মিশে আছে এই দুই ভাতৃদ্বয়ের সাফল্য।

প্রকাশিত : ২১ মে ২০১৫

২১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: