আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কঠোর সমালোচনাও হাসিমুখে গ্রহণ করবেন নাছির

প্রকাশিত : ১২ মে ২০১৫
কঠোর সমালোচনাও হাসিমুখে গ্রহণ করবেন নাছির
  • চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সমালোচনা যতই কঠোরই হোক হাসিমুখে গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নবনির্বাচিত মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। তিনি বলেন, আমাকে পরামর্শ ও সহযোগিতা দিন। কঠোর সমালোচনা করুন। হাসিমুখে মেনে নেব। কিন্তু অন্যের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সমালোচনা করবেন না। আমি নগরবাসীর সেবায় কাজ করতে চাই। কারণ আমার সফল হওয়ার বিকল্প নেই। আমার সফলতা-ব্যর্থতার সঙ্গে আওয়ামী লীগ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মর্যাদা জড়িত। আমি ত্যাগের মানসিকতা নিয়ে এসেছি। আমার আর পাওয়ার কিছু নেই। মেয়র হিসেবে আমি সফল হবই।

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত সংবর্ধনা সভায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন সিটি কর্পোরেশনের নতুন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। এ সময় তিনি নিজের দায়িত্ব ও কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরতে গিয়ে বলেন, জিরো টলারেন্স নিয়ে অপারেশন পরিচালনা করব। আমার কাছে কেউ আপন, কেউ পর নন। যারা নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করবেন তারাই আমার আপন। আর যারা পেতে চান তারা এখান থেকে সরে যান। কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেন, বেতনের বাইরে আর কোন অর্জনের দিকে আপনাদের দৃষ্টি দেয়ার সুযোগ নেই। কেউ যদি বেতন ভাতায় সন্তুষ্ট না থাকেন তাহলে কর্পোরেশন ছেড়ে চলে যেতে পারেন।

সংবর্ধনা সভার শুরুতে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরী ফুল দিয়ে বরণ করে নেন নতুন মেয়রকে। তবে তিনি চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন বিধায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রেখে সভাস্থল ত্যাগ করেন। এরপর সভাপতিত্ব করেন মহানগর আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী।

সভায় বক্তব্য রাখেন নাগরিক কমিটির সভাপতি ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টাম-লীর সদস্য ইছহাক মিয়া, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল আলম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড.ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, নগর মহিলা লীগের সভানেত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন, নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আফতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, ন্যাপ নেতা আলী আহমেদ নজির, বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি মুজিবুল হক খান, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট চট্টগ্রাম কেন্দ্রের সাবেক সভাপতি মোঃ হারুন এবং কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী।

আ জ ম নাছির উদ্দিন সিটি কর্পোরেশন থেকে কোন ধরনের বেতন ভাতা গ্রহণ না করার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, আমি একজন সফল ব্যবসায়ী। উত্তরাধিকার সূত্রে যে সম্পদ আমি পেয়েছি তেমন অনেকেরই নেই। কর্পোরেশন থেকে কিছু পাওয়ার আশা করি না। নির্বাচনে যে প্রতিশ্রুতি আমি নগরবাসীর প্রতি রেখেছি সেগুলো অক্ষরে অক্ষরে পূরণ করার চেষ্টা করব। বক্তব্যে তিনি শতভাগ আন্তরিকতা, সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের ঘোষণা দিয়ে বলেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর থেকে আমি সবাইকে নিয়ে চলেছি। ভবিষ্যতেও সকলের পরামর্শ নিয়ে চলব। কারও কোন অভিযোগ থাকলে বা আমি কোন ভুল করলে তা নিঃসঙ্কোচে আমাকে জানাবেন, পরামর্শ দেবেন। বক্তব্যে তিনি চট্টগ্রাম নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করবেন বলে উল্লেখ করে বলেন, আমি যখন দায়িত্ব গ্রহণ করব তখন বর্ষাকাল থাকবে। ফলে প্রথম বছরেই কিছু করা সম্ভব নয়। তবে নালা নর্দমাগুলো যাতে পরিষ্কার থাকে সে নির্দেশনা ইতোমধ্যেই দিয়েছি। পরিকল্পিতভাবে একের পর এক সকল কাজ ও সমস্যার সমাধান করা হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন ও মনজুর উপদেষ্টা ॥ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নবনির্বাচিত মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন জানান, সাবেক মেয়রকে উপদেশ ও পরামর্শ নিয়ে তিনি কর্পোরেশন পরিচালনা করবেন। তিনি বলেন, সবার পরামর্শ গ্রহণ করব। সাবেক মেয়র এবং বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি উপদেষ্টা কমিটি গঠন করা হবে। ইতোমধ্যে কমিটি গঠনের লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছি। কমিটির আকার কেমন হবে বা কত সদস্যের কমিটি হবে তা পরিষ্কার না করলেও তিনি জানান, একটি কার্যকর উপদেষ্টা কমিটিই গঠন করা হবে। উপদেষ্টাদের পরামর্শ নিয়ে দায়িত্ব পালন করব।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সংবর্ধনা ॥ সোমবার পৃথক এক আয়োজনে নতুন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনকে সংবর্ধনা প্রদান করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলা শাখা। চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি মিলনায়তনে আয়োজিত সংবর্ধনা সভায় আ জ ম নাছির বলেন, কিশোর কাল থেকে আমি সাংস্কৃতিক পরিম-লে বিচরণ করে আসছি। এক সময় নাট্যদলের সক্রিয় কর্মী ছিলাম। তাই সংস্কৃতি কর্মীদের চাওয়া-পাওয়ার ভাষা বুঝি। মেয়র হিসেবে এই নগরীকে সংস্কৃতিবান্ধব করার জন্য শতভাগ প্রচেষ্টা চালাব। চট্টগ্রামের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে এই নগরীতে একটি সাংস্কৃতিক বলয় গড়ে তোলার আকাক্সক্ষাকে অগ্রাধিকার দেব। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অনুপ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও জোটের সাধারণ সম্পাদক সংস্কৃতিক কর্মী খোরশেদ আলমের সঞ্চালনায় প্রদত্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বন্দর পতেঙ্গা আসনের সংসদ সদস্য এমএ লতিফ, চট্টগ্রাম চেম্বারের সহ সভাপতি জামাল আহমেদ, নবনির্বাচিত কাউন্সিলর আওয়ামী লীগ নেতা এইচএম সোহেল, শাহেদ ইকবাল বাবু, আওয়ামী লীগ নেতা রায়হান ইউসুফ, শেখ মুজিব আহমেদ, সংস্কৃতিক কর্মী মোহাম্মদ আলী তালুকদার, মাসুদউদ্দিন হামেদ নওয়াজ, পেয়ারুল ইসলাম পেয়ারু প্রমুখ।

প্রকাশিত : ১২ মে ২০১৫

১২/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: