কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যোগব্যায়ামের উপকারিতা

প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৫

স্বাস্থ্য সৌন্দর্য এবং মানসিক প্রশান্তি ধরে রাখতে যোগব্যায়াম অতুলনীয়। শুধু তাই নয়, নিয়মিত যোগাসন করে বেশ কিছু মেয়েলি রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব। জেনে নিন কোন আসনের কি উপকারিতা।

ভুজঙ্গাসন

* মেরুদ-ের নমনীয়তা বাড়ে।

* বুকের গঠন সুন্দর হয়।

* úন্ডিলেসিসের ঝুঁকি কমে।

* উটেরাস ভাল থাকে।

ভদ্রাসন

* প্রসবের কষ্ট দূর করে।

* রায়ু ভাল রাখে।

* পেটের পেশীর স্থিতিস্থাপকতা বাড়ায়।

* পা কিংবা গোড়ালীর ব্যথা সেরে যায়।

* মন শান্ত থাকে।

* সব ধরনের স্ত্রীরোগ প্রতিরোধ করে।

সর্বাঙ্গাসন

* দীর্ঘদিন যৌবন ধরে রাখা যায়।

* ত্বক উজ্জ্বল ও কমনীয় হয়।

* চুল, চোখ, দাঁত ভাল থাকে।

* থাইরয়েড ও টনসিলের অসুখ হয় না।

পবনমুক্তাসন

* মেদ কমায়

* ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

* কনস্টিপেশন এবং গ্যাস, বদহজম ইত্যাদি কমাতে সাহায্য করে।

* যকৃৎ ও পেটের পেশী ভাল রাখে।

মৎস্যাসন:

* মেয়েলি সমস্যা তাড়াতে সাহায্য করে।

* ফুস ফুস সতেজ রাখে।

* শ্বাসনালীর পথ পরিষ্কার হয়। হাঁপানী বা সর্দিকাশি প্রতিরোধ করে।

* হজম শক্তি বাড়ায়।

অর্ধচন্দ্রাসন

* শরীর মনের জড়তা কেটে যায়।

* ত্বক উজ্জ্বল হয়।

* ক্ষুধামন্দার হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

উত্থিত পদাসন

* পেটের মেদ কমায়। পেট, হাত ও কাঁধের পেশী দৃঢ় হয়।

অর্ধকুর্মাসন

* শরীরের ক্লান্তি ও মানসিক অবসান দূর করে।

* যকৃৎ ভাল রাখে।

* ক্রনিক ডিসেন্ট্রি সারিয়ে তোলে।

এএইচএ আলফা হাইড্রক্সি এ্যাসিড বার্ধক্য রোধে এই যৌগটির রয়েছে জাদুকরি ক্ষমতা। ত্বকের ওপর মরা কোষ জমে বিবর্ণ হয়ে যায় ত্বক। তাই বয়স্ক দেখায় আপনাকে। ত্বকের এই মরা কোষ সরিয়ে ত্বকের বার্ধক্যরোধ করে যে এ এইচ এ সেই মহাযোগ কোটি টাকার কারখানায় নেই ছড়িয়ে আছে আপনার বাড়িতেই। আপেল আর আখের রসই হলো এএইচ এর অফুরন্ত আকর।

সাধারণত ত্বক চার ধরনেরÑ স্বাভাবিক, তৈলাক্ত শুষ্ক ও মিশ্র। স্বাভাবিক ত্বকে তেল ও আর্দ্রতার ভারসাম্য থাকে। যদি কখনও মুখ খুব শুষ্ক বা তেল তেলে না হয় তাহলে বুঝবেন আপনার ত্বক স্বাভাবিক। যদি আপনার ত্বক সারাক্ষণ তেল তেলে থাকে তাহলে বুঝবেন রাতে মুখ পরিষ্কার করার পর সকালে উঠে একটি শুকনো টিস্যু মুখের ওপর চেপে ধরুণ। যদি দেখেন তাতে তেলের প্যাচ রয়েছে তাহলে বুঝবেন আপনার ত্বক তৈলাক্ত। যদি মুখ ধোয়ার পর পর ত্বকে ক্রমাগত টান ধরে তাহলে বুঝবেন আপনার ত্বক শুষ্ক।

যদি আপনার ত্বকের টিপ্যানেল অর্থাৎ কপাল, নাক ও থুতনি তৈলাক্ত হয় তাহলে আপনার ত্বক মিশ্র ধরনের।

আপনার ত্বক স্পর্শকাতর হতে পারে যদি কারণে অকারণে ত্বক চুলকায়। ত্বকে র‌্যাস বেরয় জানবেন আপনার ত্বক স্পর্শকাতর।

অন্ন বস্ত্র বাসস্থানের মতোই ত্বকের সুস্থতার জন্য প্রয়োজন ক্লিনজিং, টোনিং ও ময়শ্চারাইজিং অর্থাৎ ত্বক পরিষ্কার করা, মুখের খোলা রোমকূপ বন্ধ করা ও ক্রমাগত হারানো আর্দ্রতা ফিরিয়ে দেওয়া।

যাপিত ডেস্ক

প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৫

১১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: