কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

খুলনায় বন্দুকযুদ্ধে তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী নিহত

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ ফুলতলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী সোহেল রানা (২৬) নিহত হয়েছে। শুক্রবার রাত তিনটার দিকে ফুলতলা উপজেলার যুগ্নীপাশা গ্রামের তেলি পুকুরপাড় এলাকায় এই ক্রসফায়ারের ঘটনা ঘটে। নিহত সোহেল যশোর জেলার অভয়নগর থানার রানাগাতী গ্রামের আব্দুল ওহাবের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ফুলতলা ও অভয়নগর থানায় হত্যা, চাঁদাবাজি, বোমা হামলা ও গাড়ি পোড়ানোসহ ৭টি মামলা রয়েছে। এই বন্দুকযুদ্ধের সময় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ৬টি বোমা, একটি সিক্স শুটারগান ও ১৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে।

ফুলতলা থানা সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাত ৯টার দিকে সন্ত্রাসী সোহেল রানাকে ১টি শার্টারগানসহ ফুলতলা উপজেলার পয়গ্রাম কসবা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাকে ফুলতলা থানায় রেখে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গভীর রাতে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য ফুলতলা উপজেলার যুগ্নীপাশা তেলীপুকুর এলাকায় গেলে সোহেলের সহযোগীরা পুলিশের ওপর গুলিবর্ষণ করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সোহেল রানাকে উদ্ধার করে ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি সিক্স শুটারগান, ১৪ রাউন্ড গুলি ও ৫টি হাতবোমা উদ্ধার করা হয়।

নেত্রকোনায় বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে বোরো ফসল

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা, ২৫ এপ্রিল ॥ কয়েকদিনের ভারি বৃষ্টিপাতের পানিতে জেলার খালিয়াজুরি উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের দুটি হাওড়ের প্রায় দেড় হাজার হেক্টর উঠতি বোরো ফসল তলিয়ে গেছে। হাওড় দুটি হচ্ছে ছায়ার হাওড় ও বালিয়ার হাওড়। এদিকে বৃষ্টিপাতের কারণে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় উপজেলার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ফসলরক্ষা বাঁধ হুমকির মুখে পড়েছে।

কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির জানান, কয়েকদিনের ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে ছায়ার হাওড় ও বালিয়ার হাওড়ের বহু জমি পানিতে তলিয়ে গেছে। এসব হাওড়ের প্রায় অর্ধেক জমির ধান এখনও কাটা হয়নি। স্থানীয় কৃষকরা কোমর ও গলা পানিতে নেমে ধান কাটার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। তিনি জানান, সব জমির ধান এভাবে কাটা সম্ভব নয়। এ ছাড়া এলাকায় পর্যাপ্ত শ্রমিকেরও সঙ্কট রয়েছে।

কন্ট্রোল রুম ঘিরে বিজিবি মোতায়েন ॥ নির্বাচনী সরঞ্জাম পৌঁছেছে

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনের আর মাত্র একদিন বাকি। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী মঙ্গলবার ভোট গ্রহণের জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। নির্বাচন কমিশন অফিস। শনিবারই চলে আসে নির্বাচনের ব্যালট পেপার ও প্রয়োজনীয় সকল সরঞ্জাম। রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় এগুলো গ্রহণ করে। কাল সোমবার এগুলো পৌঁছে দেয়া হবে প্রিসাইডিং অফিসারদের কাছে। এদিকে, ভোটগ্রহণের সময় যতই ঘনিয়ে আসছে ততই কঠোর করা হচ্ছে নিরাপত্তা বলয়।

চসিক রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকাল ৭টার দিকে ব্যালট পেপারসহ সরঞ্জামাদি চট্টগ্রামে এসে পৌঁছে। ঢাকা থেকে কাভার্ডভ্যান করে কড়া নিরাপত্তায় এগুলো চট্টগ্রামে আনা হয়। এরপর ১৪ জন সহকারী রিটার্নিং অফিসার এগুলো গ্রহণ করেন। নির্বাচনী সরঞ্জামগুলো রাখা হয় চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেসিয়ামে। এগুলোর নিরাপত্তায় ঐ এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে পর্যাপ্তসংখ্যক বিজিবি সদস্য। ইতোমধ্যেই জিমনেসিয়াম ও স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। চসিক নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার শফিকুর রহমান জানান, কর্পোরেশনের মোট ১৮ লাখ ১৩ হাজার ৪৪৯ জন ভোটারের জন্য ব্যালট পেপার ছাড়াও সকল সরঞ্জামই এসে পৌঁছেছে। চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা এ পর্যন্ত প্রতিবারই হয়েছে জিমনেসিয়াম থেকে। এবার নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণার জন্য স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে এমএ আজিজ স্টেডিয়াম। নির্বাচনের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনায় পুরো এলাকাকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেলে ফেলার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। নির্বাচনের আগের দিন অর্থাৎ ২৭ এপ্রিল থেকেই ওই এলাকায় সিজেকেএস অফিসসহ বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী কার্যালয় ও সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হবে।

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৫

২৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: