মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শ্যালা নদী থেকে ৩৫ জেলেকে অপহরণ করেছে বনদস্যুরা

প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জের মধ্যবর্তী ধানসাগর স্টেশনের অদূরে শ্যালা নদীর আড়ুয়াবয়া থেকে অন্তত ৩৫ জেলেকে অপহরণ করেছে বনদস্যুরা। রবিবার ভোরে জনপ্রতি এক লাখ টাকা মুক্তিপণের দাবিতে ওই জেলেদের অপহরণ করা হয়। অপহরণকারী দস্যু বাহিনীর নাম ‘সাহেব নামের গোলাম’ বলে অপহৃত জেলেদের মহাজনরা জানিয়েছেন। এই বাহিনীর নাম তারা আগে কখনও শোনেননি।

গত ৫ এপ্রিল সুন্দরবনের ত্রাস দুর্ধর্ষ বনদস্যু বেল্লাল বাহিনীর প্রধান বেল্লাল ফরাজী যৌথ বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ার পরে তারই সহযোগীরা নতুন এই বাহিনীর নামকরণে দল গঠন করে দস্যুবৃত্তি শুরু করেছে বলে স্থানীয় জেলে, মহাজন ও মৎস্য ব্যবসায়ীরা ধারণা করছেন। অপহৃত জেলেদের মধ্যে রাজিব, মহিদুল, ইয়াকুব,শামীম, মান্নান, ইসমাইল, শাহিন গাজী, রাজ্জাক ফকির, ইলিয়াস, বাদশা, মুজাহার আলীসহ ১১ জোনের নাম জানা গেছে। এদের সবার বাড়ি বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে। শরণখোলা উপজেলার উত্তর রাজাপুর, পশ্চিম রাজাপুর, ধানসাগর, রতিয়া রাজাপুরসহ বিভিন্ন এলাকার ৩০-৩৫টি নৌকা নিয়ে জেলেরা শ্যালা নদের আড়ুয়া বয়া খালে মাছ ধরতে যান। প্রতিটি নৌকায় ৩-৪ জন করে সবমিলিয়ে শতাধিক জেলে ছিলেন। রবিবার ভোর ৫টার দিকে ‘সাহেব নামের গোলাম’ নামের ওই দস্যু বাহিনীর ১৫-১৬ জন সশস্ত্র দস্যু জেলেবহরে হানা দেয়। পরে এসব নৌকা থেকে আনুমানিক ৩৫-৪০ জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দস্যুরা মুক্তিপণ আদায়ের জন্য জেলেদের মাধ্যমে মহাজনদের কাছে তাদের মোবাইল নম্বর পাঠিয়ে দেয়।

প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল ২০১৫

২০/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: