কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

খালেদা জিয়াকে নাসিম

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫
  • এখনও সময় আছে অবিলম্বে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা বন্ধ করুন

সংসদ রিপোর্টার ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার প্রতি প্রশ্ন রেখে বলেছেন, একদিকে নির্বাচনের কথা বলবেন, অন্যদিকে কাপুরুষের মতো পেট্রোলবোমা মেরে মানুষ হত্যা করবেন- এ দুটো একসঙ্গে চলতে পারে না। জাতির কাছে আপনাকে স্পষ্ট করে বলতে হবে- আপনি কি চান? এখনও সময় আছে অবিলম্বে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা বন্ধ করুন।

রবিবার জাতীয় সংসদে মাগুরায় ট্রাকে পেট্রোলবোমা মেরে মানুষ হত্যায় ক্ষোভ প্রকাশ করে ৩০০ ধারায় প্রদত্ত এক বিবৃতিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সংসদে আসার আগে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে গিয়েছিলাম। কী বীভৎস সেখানকার দৃশ্য। দেশবাসী আশা করেছিল- খালেদা জিয়াদের শুভবুদ্ধির উদয় হবে। আর বোধ হয় এমন হরতাল-অবরোধ দেবে না। তথাকথিত খালেদা জিয়াদের হরতাল-অবরোধ দেশের কোন মানুষ মানে না। কিন্তু আবারও হরতাল ঘোষণার পরপরই মাগুরায় একটি খোলা ট্রাকে পেট্রোলবোমা মেরে ৯ জন নিরীহ মানুষকে দগ্ধ করা হলো। এ হামলায় অগ্নিদগ্ধদের মধ্যে ইতোমধ্যে ৩ জন মারা গেছে।

ক্ষুব্ধকণ্ঠে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এসব নিরীহ মানুষের কী অপরাধ? বিএনপি নেত্রী কি জবাব দেবেন? তিনি বলেন, মাগুরায় যাদের পেট্রোলবোমা মেরে দগ্ধ করা হয়েছে, তারা সবাই নিরীহ শ্রমিক। এরা মাটি কেটে বাড়ি আসছিল। তাদেরই পেট্রোল মেরে পুড়ানো হলো! তিনি বলেন, হরতালের অবরোধের নামে যা চলছে, তা হচ্ছে কাপুরুষের মতো নিরীহ মানুষকে হত্যা করা। তবে প্রধানমন্ত্রীর শক্ত অবস্থানের কারণে এসব জঘন্য ঘটনা কিছুটা স্থিমিত হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, গত আড়াই মাসে বিএনপি-জামায়াতের অবরোধ-হরতালের নামে নাশকতায় এ পর্যন্ত ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ১৮১ দগ্ধ মানুষকে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ১৩১ জনকে সুস্থ করে বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। ১৯ জনকে আমরা বাঁচাতে পারিনি। সুস্থ হয়ে যেসব দগ্ধ মানুষ বাড়িতে ফিরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নিজেই তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করছেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিএনপি-জামায়াতের হরতাল-অবরোধ কেউ মানছে না। অবরোধ-হরতাল কোথাও হচ্ছে না। এখন হরতাল-অবরোধের সামান্য কোন জনসমর্থন নেই। যার কোন কার্যকরিতা নেই। কিন্তু গত আড়াই মাস বোমাবাজদের দিয়ে তারা মানুষ হত্যা চালিয়েই যাচ্ছে। ফেনীতে ৬৫ বছরের এক বীর মুক্তিযোদ্ধাকেও পেট্রোলবোমা মেরে হত্যা করেছে বিএনপি-জামায়াত জোট। তিনি বলেন, আজ জনগণের প্রশ্ন- বেগম জিয়া আসলে কী চান? এই দানবদের রুখতে হলে এখনই কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এই দানবরা নির্বাচনে আসবে, নাকি হত্যাকা- চালিয়েই যাবে- তা জাতির সামনে স্পষ্ট করতে হবে।

মাগুরায় পেট্রোলবোমা হামলা প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, মাগুরায় যারা পেট্রোলবোমা মেরে ৯ জন নিরীহ মানুষকে দগ্ধ করেছে, এর পেছনে কারা অর্থায়ন করেছে- তাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী চিহ্নিত করেছে। এদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। হামলাকারীদের প্রত্যেকের কঠোর বিচারের মুখোমুখি হতে হবে, কেউ-ই রেহাই পাবে না।

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫

২৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: