মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তিন জেলায় সংঘর্ষ আহত ৩৩ ভাংচুর

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫
  • সাতক্ষীরা, চাঁদপুর, জামালপুর

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ শনিবার রাত ও রবিবার সকালে সাতক্ষীরা, চাঁদপুর ও জামালপুরে সংঘর্ষে আহত হয়েছে ৩৩ নারীপুরুষ। ৩১ বাড়িঘর ও ১৫ দোকান ভাংচুরের শিকার হয়। স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর :

সাতক্ষীরা ॥ সাতক্ষীরার আশাশুনিতে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর ও তিন জনকে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। শনিবার রাতে উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নের নাকতাড়া কালিবাড়ী গ্রামে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। হামলায় আহত পরিবারের সদস্যরা সন্ত্রাসীদের ভয়ে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে ।

বাড়ির মালিক অধীর ম-লের ছেলে সুরাজ ম-ল জানান, পারিবারিক জমি নিয়ে নাকতাড়া কালিবাড়ী গ্রামের দাউদ সরদারের পুত্র সাইদ সরদারের সাথে তাদের বিরোধ চলছে। তাদের পারিবারিক জমি দখলের জন্য হুমকিধমকি চলছে দীর্ঘদিন ধরে। শনিবার রাতে দাউদ সরদারের পুত্র সাঈদ সরদারের নেতৃত্বে সাবের সরদার, মালেক, খালেকসহ ১০/১২ অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসী দেশী অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তাদের বাড়িতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা পাকাঘর ভাংচুর করাসহ মাল লুট করে নেয়। তাদের বাধা দেয়ায় সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত হন সরস্বতী ম-ল এবং দুলাল ম-ল ও পরিতোষ ম-ল।

চাঁদপুর ॥ চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলায় চরভৈরবী এলাকায় মেঘনা নদীতে জাটকা শিকারীদের জাটকা নিধনে বাধা দেয়ায় সংঘর্ষে কমপক্ষে ১৫জন আহত হয়েছে। শনিবার রাত সাড়ে ৯টায় এই ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই এলাকার একদল জেলে জাটকা নিধন করার জন্য নদীতে নামে। এই সময় চরভৈরবী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আহম্মদ উল্যাহ মাস্টারসহ স্থানীয় লোকজন তাদের বাধা দিলে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে আহম্মদ উল্যাহসহ কমপক্ষে ১৫জন আহত হয়।

জামালপুর ॥ তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে জামালপুর শহরতলীর ছোটগড় গ্রামে হামলা, ভাংচুর,লুটপাট চালিয়েছে পার্শ্ববর্তী পলাশগড় গ্রামের লোকজন। এ ঘটনায় ৩০টি বাড়িঘর, ১৫টি দোকান ভাংচুর ছাড়াও আহত হয়েছে অন্তত ১৫ জন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, গত শুক্রবার জামালপুর শহরতলীর ছোটগড় গ্রামের একজনের গায়ে অটোরিক্সার ধাক্কা লাগলে ওই গ্রামের লোকজন পলাশগড় গ্রামের অটোচালক তামিমকে মারধর করে। এই ঘটনার জের ধরে দুদিন যাবত ছোটগড় ও পলাশগড় গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। উত্তেজনার জের ধরে রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মাইকে ঘোষণা দিয়ে পলাশগড় গ্রামের কয়েক শ’ লোক জড়ো হয়ে রামদা, লাঠিসোঠা ও দেশী অস্ত্র নিয়ে ছোটগড় গ্রামে হামলা চালায়।

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫

২৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: