কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

শাণিত করুন স্মৃতিশক্তি

প্রকাশিত : ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
শাণিত করুন স্মৃতিশক্তি

মিসেস সুমনা ভুলা মনের নারী। সব সময় একটু আনমনা থাকেন। কোথায় কোন জিনিসটা রেখেছেন তা প্রায়ই ভুলে যান। কখন কোন কাজটা করতে হবে কিংবা স্বামী কী কী করতে বলেছেন, এসব হরহামেশাই ভুলে যান। এ জন্য প্রায়ই বকা খাচ্ছেন। ঘরের অতি দরকারী কোন জিনিস কোথায় রেখেছেন প্রয়োজনের সময় তা চট-জলদি মনে করতে পারছেন না। কয়েকদিন আগের কোন কোন ঘটনা বা নির্দেশও তিনি মনে করতে পারে না। এ জন্য পরিবারে তার ব্যক্তিত্ব নাজুক অবস্থা।

তাই সমৃদ্ধ ব্যক্তিত্ব গড়তে, পরিবারের সবার মনযোগ আকর্ষণ করতে, শাশুড়িসহ সকলের সুনজরে আসতে অন্যান্য যোগ্যতার পাশাপাশি স্মৃতিশক্তিকে শাণিত করুন। স্বামীর প্রিয়ভাজন হতে চাইলে তার খুঁটিনাটি ভুলে যাওয়াগুলো মনে করিয়ে দিন। স্বামী কখন কি চায় সময়মতো কাজটি করে দিন। তবেই আপনি হয়ে উঠবেন পরিবারের গুরুত্বপূর্ণ একজন।

স্মরণ শক্তি, স্মৃতিশক্তি বা গবসড়ৎু চড়বিৎ সকলের এক রকম হয় না। অনেক মানুষ আছে যারা সহজে অনেক অনেক তথ্য মনে রাখতে পারেন। আবার অনেক সময় আমরা হরহামেশাই অনেক কিছু ভুলে যাই। শতকরা প্রায় ৮০ ভাগ মানুষ মনে করে তাদের সমস্যা আছে নাম মনে রাখার ব্যাপারে। আবার ৬০ ভাগ মানুষের হয়তো এমন সমস্যা হয় যা তারা কোন নাম্বার এবং স্থানের নাম দিব্যি ভুলে যায়। এটা সত্য যে ৩০ বছরের পর তা একেবারেই বিলুপ্ত হতে পারে।

গড়ে প্রতিটি মানুষ সপ্তাহে একাধারে কোন নির্দিষ্ট কাজের কথা ভুলে যায়। আপনি যদি আপনার স্মৃতিশক্তি নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকেন, তবে তা ভাল লক্ষণ। আপনার যদি স্মরণশক্তির কোন সমস্যা থেকে থাকে তবে তা হলো আপনার মনে আসে না বলেই মনে থাকে না। নিচে কয়েকটি টিপস দেয়া হলো যা আপনার স্মরণশক্তি বাড়াতে সাহায্য করবে।

১. উদ্বিগ্নতা এবং দুশ্চিন্তা সাময়িকভাবে আপনার স্মৃতিশক্তি দুর্বল করে ফেলতে পারে। এতে করে স্মৃতিশক্তি কমে যেতে পারে। চেষ্টা করুন শান্ত এবং স্থির থাকতে।

২. জীবন-যাপনের পদ্ধতি পরিবর্তন এবং উন্নত করুন। কম ফ্যাটযুক্ত খাদ্য, ভাল অভ্যাস এবং ব্যায়াম আপনার স্মৃতিশক্তিকে অটুট রাখতে পারে।

৩. যা আপনি ভাবছেন বা ভাবেন তা রোমন্থন করার চেষ্টা করুন। চোখের সমস্যা থাকলে ডাক্তার দেখান।

৪. একটি নিয়ম মেনে চলুন। জীবনের নিয়ম থাকা উচিত। প্রতিদিন সবকিছু নির্দিষ্ট স্থানে রাখুন এবং মনে রাখুন কোথায় কি রাখছেন। কখনোই অস্থির হবেন না। জিনিসপত্র এলোমেলো করে রাখবেন না বা জিনিসগুলো ঘন ঘন স্থান পরিবর্তন করবেন না।

৫. যখনই আপনি কোন কিছুর নাম মনে করতে পারছেন না বা আপনার স্মৃতিতে কোন কিছু ভেসে ওঠছে না তখন পারস্পরিক যোগাযোগের মাধ্যমে মনে করার চেষ্টা করুন।

৬. রাতে ঘুমাবার আগে এক গ্লাস গমর দুধ খাওয়ার অভ্যাস করুন, এতে শরীর ও মন সতেজ থাকে।

৭. নিয়মিত সতেজ সবুজ শাক-সবজি ও সালাদ খাবেন। বেশি করে পানি পান করবেন। শরীরে কোন ভিটামিনের অভাব থাকলে তা পূরণ করতে ভিটামিন গ্রহণ করুন। পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাবেন, দুশ্চিন্তা এড়িয়ে চলবেন। পেটের অসুখ যেন না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন। নিয়মিত হালকা ব্যায়াম করুন। নিজের প্রতি আস্থা রাখুন, সব সময় পজেটিভ ধারণা পোষণ করুন।

আপনার সকল চাওয়া পাওয়ার জন্য স্রষ্টার সাহায্য প্রার্থনা করুন। জীবনের সব ক্ষেত্রে নিয়ম-নীতি মেনে চললে আপনার মেধা-মনন, স্মৃতিশক্তি, সুখ, সৌন্দর্য ও ঐশ্বর্য আপনার নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

আলম শামস

প্রকাশিত : ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৬/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: