কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

আগামীকাল ১৪ দলের মানববন্ধন

প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ বিএনপি-জামায়াতের নাশকতা প্রতিরোধে আগামীকাল রবিবার দেশজুড়ে ডাকা ১৪ দলের মানববন্ধন কর্মসূচীতে অংশ নিতে দেশের শান্তিপ্রিয় সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। দলমত নির্বিশেষে এই জঘন্য বর্বরতার বিরুদ্ধে দেশবাসীকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বিএনপি নামক দানবের বিরুদ্ধে সারাদেশে প্রতিরোধের স্ফুলিঙ্গ জ্বলে উঠেছে। এই অশুভ জোটের সঙ্গে কোন সংলাপ নয়, জনপ্রতিরোধ গড়ে তুলেই তাদের ধ্বংসাত্মক রাজনীতি প্রতিহত করা হবে। জনগণের কাছেই তাদের পরাজয় হবে।

সোমবার ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দিনব্যাপী কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, ঢাকা মহানগরের সংসদ সদস্যবৃন্দ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো) ও নারী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ (আইনজীবী, চিকিৎসক, প্রকৌশলী), আলেম-ওলামা-মাশায়েখ এবং সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মতবিনিময় সভা শেষে প্রেস ব্রিফিং করে আহ্বান জানান মোহাম্মদ নাসিম।

তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদী কর্মকা-ে লিপ্ত থাকা বিএনপির সঙ্গে আলোচনার প্রশ্নই আসে না। আর বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসনির্ভর আন্দোলন নিয়ে সরকার উদ্বিগ্ন নয়। জনগণ ইতোমধ্যে তাদের প্রতিরোধ করা শুরু করেছে। কারণ বিশ্বের কোনো দেশে সন্ত্রাসীরা জয়লাভ করতে পারেনি। জনগণের ঐক্যবদ্ধ শক্তি কাজে লাগিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।

১৪ দলের পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচী তুলে ধরে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আগামীকাল রবিবার বিএনপি জোটের সহিংসতার বিরুদ্ধে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে ১৪ দলের উদ্যোগে দেশজুড়ে যে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হবে তার সময় একটু পরিবর্তন করা হয়েছে। ওই দিন বিকেল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত এ মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হবে। দেশবাসীকে এই মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করার আহ্বান জানান তিনি। সম্প্রতি বোমাবাজদের পক্ষে আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রত্যায়নের প্রসঙ্গে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, এটা একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। ঘটনা সত্য হলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।

সংলাপ প্রসঙ্গে মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, বিএনপি আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মারছে। এই দলটি বর্তমানে সন্ত্রাসী দলে পরিণত হয়েছে। বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া এখন আর রাজনৈতিক নেত্রী নন, তিনি জঙ্গী নেত্রীতে পরিণত হয়েছেন। রক্তের হোলি খেলায় নেমেছেন। তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে না। আমরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজনৈতিকভাবে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস নৈরাজ্য প্রতিহত করব।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা মাহবুবউল আলম হানিফ, ডাঃ দীপু মনি, আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, সুজিত রায় নন্দি, এস এম কামাল হোসেন, জাসদের মইনউদ্দিন খান বাদল, শরীফ নুরুল আম্বিয়া, সাম্যবাদী দলের দিলীপ বড়ুয়া, গণতন্ত্রী পার্টির ডাঃ শাহাদাৎ হোসেন, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, গোলাম কুদ্দুস, ফকির আলমগীর, পান্না কায়সার, শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, শমী কায়সার, যুব মহিলা লীগের নাজমা আক্তার, অপু উকিল, মহিলা আওয়ামী লীগের পিনু খান প্রমুখ।

ঢাকার ১৩টি স্পটে মানববন্ধন ॥ ১৪ দল আহূত আগামীকালের মানববন্ধন কর্মসূচীতে ঢাকা মহানগরীর ১৩টি স্পটে কর্মসূচী পালন করবে নগর চৌদ্দ দল। মহানগর আওয়ামী লীগের এক বর্ধিত সভায় স্পটগুলো চূড়ান্ত করা হয়। স্পটগুলো হচ্ছে- গাবতলী থেকে টেকনিক্যাল হয়ে শ্যামলী পর্যন্ত, শ্যামলী থেকে কলেজ গেইট হয়ে ২৭ নম্বর রোড, রাসেল স্কোয়ার, গ্রিন স্কোয়ার হয়ে বসুন্ধরা মার্কেট, সোনারগাঁও হোটেল থেকে বাংলামটর, রূপসী বাংলা হয়ে শাহবাগ, শাহবাগ থেকে মৎস্যভবন, মৎস্যভবন থেকে প্রেসক্লাব হয়ে পল্টন মোড়, পল্টন মোড় থেকে নুর হোসেন স্কয়ার হয়ে গুলিস্তান মোড়, বঙ্গবন্ধু স্কয়ার থেকে ইত্তেফাক মোড়, ইত্তেফাক মোড় থেকে রাজধানী মার্কেন, রাজধানী মার্কেট থেকে সায়েদাবাদ এবং সায়েদাবাদ থেকে যাত্রাবাড়ী পর্যন্ত। এই ১৩টি পয়েন্টেই চৌদ্দ দল কেন্দ্রীয় ও মহানগর নেতারা নেতৃত্ব দেবেন।

ফাঁসির দ- রেখে সহিংসতা বন্ধে নতুন আইন-সুরঞ্জিত ॥ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য এবং আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছেন, সহিংসতা বন্ধে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- ও যাবজ্জীবন সাজার বিধান রেখে নতুন কঠোর আইন প্রণয়নের কথা ভাবছে সরকার। শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু একাডেমি আয়োজিত চলমান রাজনীতি বিষয়ক এক আলোচনা সভায় তিনি আরও বলেন, আইনটি নিয়ে পর্যালোচনা চলছে। অচিরেই এর বাস্তবায়ন হবে। কারণ দেশে শান্তি-শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সরকার বদ্ধপরিকর।

আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি সাজ্জাদ হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন সাম্যবাদী দলের নেতা হারুন চৌধুরী, সংগঠনের উপদেষ্টা আবদুল হাই কানু প্রমুখ।

প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৭/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: