রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুঁজিবাজার নিয়ে কম কথা বলার পরামর্শ অর্থমন্ত্রীর

প্রকাশিত : ৩০ জানুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পুঁজিবাজারকে জটিল ও সংবেদনশীল বলে অভিহিত করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত কম কথা বলার পরামর্শ দিলেন। তিনি বলেন, এই বাজারকে নিয়ে বেশি কথা বলা ঠিক নয়; বললে জটিলতা আরও বেড়ে যায়।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর তোপখানা রোডে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (বিআইসিএম) আয়োজিত একটি কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এই মন্তব্য করেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজার অত্যন্ত জটিল একটি বাজার। এই বাজার ওঠানামা একটা স্বাভাবিক ব্যাপার। প্রতিটি পুঁজিবাজারে সেটা হয়ে থাকে। এই বাজার নিয়ে বেশি কথা বলা ঠিক না। বেশি কথা বললে এই বাজারের জটিলতা আরও বেড়ে যায়। বেশি কথা বলার অবকাশ নেই।

তিনি বলেন, আমাদের পুঁজিবাজার এই মাত্র সেদিন হয়েছে। এই বাজারটা বড়ই জটিল বাজার। এখানে কাজ করতে গেলে কিংবা যারা এখানে কাজ করেন তাদের অতিরিক্ত বুদ্ধিমান হওয়ার প্রয়োজন হয়। এই বুদ্ধি যাতে তারা পেতে পারেন সে জন্যই এই ইন্সটিটিউটের জন্ম হয়েছে। মুহিত আরও বলেন, আমাদের পুঁজিবাজার ৭০ বছরের বেশি বয়স হয়ে গেছে। তবে বাজারটি গড়ে ওঠেছে অধুরা। এই বাজারে দুই বার দুইটি বুদবুদের সঙ্গে আমাদের পরিচয় হয়েছে। পুঁজিবাজারে বুদবুদের সঙ্গে পরিচয় হওয়া আশ্চর্যের কিছু নয়। প্রথম বুদবুদ আসার পর বাজার প্রায় ৮ থেকে ১০ বছর নিস্তেজ হয়েছিল। আর দ্বিতীয় বুদবুদ থেকে উত্তরণে আমাদের ৪ থেকে ৫ বছর লেগে গেছে। তবে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) পুঁজিবাজারটাকে অত্যন্ত শক্ত অবস্থানে নিয়ে গেছে। এতে আমি গর্বিত।

তিনি আরও বলেন, আগের কমিশনগুলো বাজারের স্বার্থে তেমন কোন কাজ করেনি।

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, বিআইসিএম ইন্সটিটিউটই থাকুক। এখানে পিএইচডি প্রোগ্রামের কোনো প্রয়োজন নেই। পিএইচডি করার জন্য দেশে প্রায় ৫০টির বেশি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে বিএসইসি’র চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন বলেন, এই কোর্স শেষ করার শিক্ষার্থীদের মাঝে অন্তর্নিহিত প্রতিভা জাগ্রত হবে। পুঁজিবাজের বেসিক এনালেটিক্যাল নিয়ম-কানন সম্পর্কে জানতে পারবেন। এতে করে সিদ্ধান্ত নেয়ার সক্ষমতা বেড়ে যাবে। কর্পোরেট গর্ভনেন্স গাইডলাইন্স থেকে শুরু করে অন্যান্য যে রেগুলেটরি রয়েছে তার বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন। বর্তমান সরকারের সময়ে পুঁজিবাজারের অনেক উন্নয়ন হয়েছে বলে জানান ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ড. এম আসলাম আলম। তিনি বলেন, এরইমধ্যে ২০১০ সালে বাজারে দুর্ঘটনা ঘটেছে। পেশাদারিত্ব সৃষ্টিতে পিজিডিসিএম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

পুঁজিবাজারের উন্নয়নে অভিজ্ঞ ও দক্ষ জনবল সৃষ্টির লক্ষ্যে বিআইসিএম কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান জোয়ারদার। আর বিআইসিএম এরইমধ্যে দুই সপ্তাহ থেকে ছয় সপ্তাহ মেয়াদী ২৯টি সার্টিফিকেট কোর্সের অধীনে ৬০৪ জন এবং বিনা ফি-তে প্রতিমাসে চার দিনব্যাপী বিনিয়োগে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণে ৩২৫১ জন বিনিয়োগকারীকে প্রশিক্ষিত করেছে বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, পিজিডিসিএম পুঁজিবাজারের বিদ্যমান জ্ঞানের ঘাটতি পূরণে একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে।

প্রকাশিত : ৩০ জানুয়ারী ২০১৫

৩০/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: