রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অর্থবছরের চার মাস সাত ব্যাংক কৃষি ঋণ বিতরণ করেনি

প্রকাশিত : ২৬ নভেম্বর ২০১৪

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ চলতি ২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রথম ৪ মাসে (জুলাই-অক্টোবর) ব্যাংকগুলো কৃষি খাতে মোট ঋণ বিতরণ করেছে ৩ হাজার ৮৮২ কোটি ৭০ লাখ টাকা। বিতরণকৃত এ ঋণ লক্ষ্যমাত্রার প্রায় ২৫ শতাংশ। বিতরণকৃত এ ঋণ গত অর্থবছরের (২০১৩-১৪) একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ৮১ শতাংশ কম। গত অর্থবছরের প্রথম ৪ মাসে ব্যাংকগুলো এ খাতে ঋণ দিয়েছিল ৪ হাজার ১২২ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। এদিকে চলতি অর্থবছরের এ চার মাসে ৭টি ব্যাংক কৃষি খাতে কোন ঋণ বিতরণ করেনি। এর মধ্যে ৫টি ব্যাংক বিদেশী মালিকানার ও দুটি নতুন অনুমোদন পাওয়া। সব মিলিয়ে লক্ষ্যমাত্রার ১০ শতাংশ ঋণ বিতরণ করেনি ১৩টি ব্যাংক। আর কৃষি ঋণ লক্ষ্যমাত্রার ২০ শতাংশের নিচে থাকা ব্যাংকের সংখ্যা ২২টি। বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষি ঋণ ও আর্থিক সেবাভুক্তি বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্রে জানা যায়, চলতি ২০১৪-১৫ অর্থবছরে বাংলাদেশ ব্যাংক কৃষি খাতে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ১৫ হাজার ৫৫০ কোটি টাকা। এর মধ্যে রাষ্ট্র খাতের ৪ ব্যাংক (সোনালী, জনতা, অগ্রণী ও রূপালী) ও বিশেষায়িত দুই ব্যাংক (বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক)-এর মোট ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৯ হাজার ১৪০ কোটি টাকা। প্রথম চার মাসে তারা বিতরণ করেছে ২ হজার ১৫০ কোটি টাকা। বিতরণকৃত এ ঋণ তাদের লক্ষ্যমাত্রার ২৩ দশমিক ৫২ শতাংশ। অর্থবছরের প্রথম চার মাসে লক্ষ্যমাত্রার ১০ শতাংশেরও কম ঋণ বিতরণ করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত ৪টি ব্যাংকের মধ্যে ১টি এবং বেসরকারী ৩৯টি ব্যাংকের মধ্যে ৫টি। ব্যাংকগুলো হলো- রূপালী ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, মিডল্যান্ড ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক, দি সিটি ব্যাংক ও প্রিমিয়ার ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষি ঋণ বিতরণের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, চলতি অর্থবছরের এ চার মাসে ৭টি ব্যাংক কোন ঋণ বিতরণ করেনি। এর মধ্যে ৫টি ব্যাংক বিদেশী মালিকানার ও দুটি নতুন অনুমোদন পাওয়া। সব মিলিয়ে লক্ষ্যমাত্রার ১০ শতাংশও ঋণ বিতরণ করেনি ১৩টি ব্যাংক। আর লক্ষ্যমাত্রার ২০ শতাংশের নিচে থাকা ব্যাংকের সংখ্যা ২২টি। চার মাসে ঋণ বিতরণ না করা ব্যাংকগুলো হলো- বিদেশী মালিকানার ব্যাংক আল-ফালাহ, কমার্সিয়াল ব্যাংক অব সিলন, হাবিব ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান এবং স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া। আর নতুন অনুমোদন পাওয়া ব্যাংক দুটি হলো ফারমার্স ব্যাংক ও এনআরবি ব্যাংক। বিদেশী ও বেসরকারী বাণিজ্যিক ব্যাংকের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা আছে ৬ হাজার ৪১০ কোটি টাকা। অর্থবছরের প্রথম চার মাসে ব্যাংকগুলো বিতরণ করেছে এক হাজার ৭৩২ কোটি টাকা; যা তাদের বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রার ২৭ শতাংশ। বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়মানুযায়ী তফসিলভুক্ত সব ব্যাংককে তাদের মোট ঋণ বিতরণের ২ দশমিক ৫ শতাংশ কৃষি খাতে বিতরণ করতে হবে। কোন ব্যাংক লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ঋণ বিতরণে ব্যর্থ হলে তার প্রভিশন (সাধারণ সঞ্চিতি) থেকে ওই পরিমাণ টাকা কেটে রাখা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষি ও আর্থিক অন্তর্ভুক্তি বিভাগের মহাব্যবস্থাপক প্রভাস চন্দ্র মল্লিক বলেন, কৃষি ঋণ বিতরণের ধারাবাহিক অগ্রগতি ধরে রাখতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে চাপ অব্যাহত রাখা হয়েছে। তবে অর্থবছরের বাকি সময়ে কৃষি ঋণ লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে বলে তিনি আশাপ্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের জুলাই-সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময়কালে ব্যাংকগুলো মোট ২ হাজার ৭৫০ কোটি ৪১ লাখ টাকার কৃষি ঋণ বিতরণ করেছে। যা চলতি অর্থবছরের বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রার মাত্র ১৭.৬৯ শতাংশ। গত অর্থবছরের একই সময়ে কৃষি ঋণ বিতরণ হয়েছিল ২ হাজার ৮৬১ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। যা লক্ষ্যমাত্রার ১৯.৬০ শতাংশ।

প্রকাশিত : ২৬ নভেম্বর ২০১৪

২৬/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: