মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

যুদ্ধাপরাধী বিচার ॥ সুবহানের মামলাও শেষের দিকে ॥ চলছে যুক্তিতর্ক

প্রকাশিত : ১৯ নভেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত জামায়াতের নায়েবে আমির আব্দুস সুবহানের মামলাটিও প্রায় শেষের দিকে। প্রসিকিউশন পক্ষের আইনী যুক্তিতর্ক শেষে এখন আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিনের মতো আসামিপক্ষ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেছেন। আজ আবারও যুক্তিতর্কের দিন ধার্য করা হয়েছে । উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষ হলেই নিয়ম অনুসারে ট্রাইব্যুনাল রায় ঘোষণার জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখবেন। এ ছাড়া আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে বর্তমানে তিনটি মামলা রায় ঘোষণার জন্য সিএভি রাখা হয়েছে। প্রসিকিউশন পক্ষ আশা করছেন, শীঘ্র এ গুলোর রায় ঘোষণা করা হবে।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আব্দুস সুবহানের প্েক্ষ যুক্তিতর্ক অব্যাহত রয়েছে।আজ আবার আসামির পক্ষে যুক্তিতর্ক করার জন্য দিন নির্ধারন করা হয়েছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীনের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এ আদেশ প্রদান করেছেন। ট্রাইব্যুনালে অন্য দু সদস্য ছিলেন বিচারপতি মোঃ মুজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মোঃ শাহিনুর ইসলাম। মঙ্গলবার জামায়াত নেতা আব্দুস সুবহানের পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন আইনজীবী মিজানুল ইসলাম। তিনি গত দুদিনে পাঁচটি অভিযোগের ওপর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেছেন। এর আগে ৫ নবেম্বর থেকে ১৭ নবেম্বর সোমবার পর্যন্ত সাত কার্যদিবসে আব্দুস সুবহানের বিরুদ্ধে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেছেন চীফ প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপু, প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম, প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন ও প্রসিকিউটর রেজিয়া সুলতানা চমন।

গত ৭ এপ্রিল থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জামায়াত নেতা আব্দুস সুবহানের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছেন দুই তদন্ত কর্মকর্তা মতিউর রহমান ও মোঃ নূর হোসাইনসহ রাষ্ট্রপক্ষের ৩১ সাক্ষী। গত ২৭ মার্চ ট্রাইব্যুনাল-১ স্বপ্রণোদিত হয়ে এ মামলাটি ট্রাইব্যুনাল-২ এ স্থানান্তর করে। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর গণহত্যা, হত্যা, অপহরণ, আটক, নির্যাতন, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও ষড়যন্ত্রসহ ৮ ধরনের ৯টি মানবতাবিরোধী অপরাধে সুবহানের বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করে ট্রাইব্যুনাল। গত বছরের ২৩ অক্টোবর ও ২৪ নবেম্বর অভিযোগ গঠনের বিপক্ষে ও অভিযোগ থেকে অব্যাহতি চেয়ে আসামিপক্ষে শুনানি করেন সুবহানের প্রধান আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক ও আইনজীবী এ্যাডভোকেট এস এম শাহজাহান।

অন্যদিকে ৯ অক্টোবর অভিযোগ গঠনের পক্ষে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন ও রেজিয়া সুলতানা চমন। গত বছরের ১৯ সেপ্টেম্বর সুবহানের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) আমলে নেয় ট্রাইব্যুনাল।২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর সকালে টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপ্রান্ত থেকে সুবহানকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

প্রকাশিত : ১৯ নভেম্বর ২০১৪

১৯/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: