আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এবার ১ লাখ ১ হাজার ৭৫৮ বাংলাদেশী হজে যাবেন

প্রকাশিত : ২৯ এপ্রিল ২০১৫

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ নিবন্ধনের বাইরে থাকায় এবার ৩০ হাজার লোক হজে যেতে পারবে না। এর মধ্যে প্রায় ১০ হাজার লোক টাকাও জমা দিয়েছেন। বাংলাদেশের কোটা অনুযায়ী ১ লাখ ১ হাজার ৭৫৮ জনকে এবার হজ পালনে সৌদি আরব পাঠানো হবে। তবে টাকা জমা দেয়া মুসল্লিদের আগামী বছর অগ্রাধিকার ভিত্তিতে হজে পাঠানো হবে বলে ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে। অপরদিকে এতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের গাফিলতি রয়েছে বলে জানিয়েছে একাধিক হজ এজেন্সি। ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, আগামী আগস্টে হজ ফ্লাইট শুরুর সিদ্ধান্ত হয়েছে। এতে হজের নিয়ত করা এই ৩০ হাজার মুসল্লিদের মধ্যে যারা টাকা জমা দিয়েছেন তাদের আগামী বছর অগ্রাধিকার ভিত্তিতে হজে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে। নিবন্ধনের বাইরে থাকা এই ৩০ হাজার জনের মধ্যে প্রায় ১০ হাজার জন টাকা জমা দিয়েছেন। কিন্তু কোটার কারণে তাদের পাঠানো যাচ্ছে না। বাকি ২০ হাজার মুসল্লির আবেদন বেসরকারী এজেন্সিগুলো নিয়ে রেখেছিল।

কিন্তু মন্ত্রণালয়ের এই বক্তেব্যের বিরোধিতা করেছেন হাজী হাফেজ ট্রাভেলস এ্যান্ড টুরসের প্রপাইটার আব্দুল বারী। তিনি বলেন, আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় এই এজেন্সির অধীনে এক শ’ মুসল্লির হজে যাওয়া আটকে গেছে। তিনি বলেন, হাইকোর্ট আমাদের এজেন্সির অধীনের হজ যাত্রীদের ডাটা এন্ট্রি ও মোয়াল্লেম ফি জমাদানের অনুমতি দিলেও ধর্ম মন্ত্রণালয় তা পাত্তা দেয়নি। সূত্র জানায়, এবার ১ লাখ ১১ হাজার ১২ জন হজে যেতে ব্যাংকে টাকা জমা দিয়েছেন। বাংলাদেশের হজযাত্রীর কোটা ১ লাখ ১ হাজার ৭৫৮ জন। অতিরিক্ত ৯ হাজার ২৫৪ জন হজে যেতে পারবেন না। হজের কোটার চেয়ে আবেদনের সংখ্যা বেশি হওয়ার ঘটনা এটাই প্রথম বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, হাবের (হজ এজেন্সিস এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) নির্বাচন সামনে রেখে এজেন্সি মালিকদের দুটি পক্ষ জটিলতা সৃষ্টি করেছে। শুরুর দিকে এজেন্সিগুলো নিবন্ধন করেনি। সর্বনিম্ন হজযাত্রীর কোটা ৫০ জন হলেও ১৩৯টি এজেন্সি এ কোটা পূরণ করতে পারেনি। ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৯১ হাজার ৯০৮ জন হজযাত্রী নিবন্ধন করেছেন।

প্রকাশিত : ২৯ এপ্রিল ২০১৫

২৯/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: