কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

এ সময়ের তিনটি ছোট কাগজ নিয়ে আলোচনা করেছেন সিরাজুল এহসান

প্রকাশিত : ৩ এপ্রিল ২০১৫

উতঙ্ক

আন্তরিকতা, ভালবাসা আর দায়বদ্ধতা থকলে যে ‘স্থানকালপাত্র’ কোন প্রতিবন্ধকতাই নয়- এর প্রমাণ তিনটি ছোট কাগজ। এমনিতেই ছোট কাগজ তারুণ্যের স্পর্ধা, মেধা আর দ্রোহের ফসল। ‘স্থানকালপাত্র’ শব্দের ওপর জোর দেয়া এ জন্য যে, রাজধানীর অনেকেই আছেন ঢাকার বাইরের প্রকাশনাকে ভেবে বসেন অচ্ছ্যুৎ। ‘মফস্বল’ বলে আছে এক রকমের উন্নাসিকতা। এই উন্নাসিকদের উঁচু নাক স্বাভাবিক করতে এ তিনটি প্রকাশনাই যথেস্ট। মনে রাখা দরকার বিশ্বায়নের এই সময়ে মফস্বল বলে কিছু নেই। প্রকাশনার আনুষঙ্গিক উন্নত মানের অবকাঠামো আর্থ সামাজিক বাস্তবতার কারণে ঢাকার বাইরে গড়ে উঠেনি। সে জন্য আছে অনেক অবানিজ্যিক সেহেতু পৃষ্ঠপোষণের রয়েছে বারোমাসি আকাল। এখন বাস্তবতা মাথায় নিয়ে বেরিয়েছে এবং বের হচ্ছে অনেক ছোট কাগজ। তেমনি তিনটি ছেঅট কাগজ হলো- উতঙ্ক, দাগ ও সবুজ স্বর্গ।

উতঙ্ক বেরিয়েছে টাঙ্গাইল থেকে। ১১তম সংখ্যাটির বিষয়বস্তু অবক্ষয়। বিষয় দেখেই বোঝা যায় সমাজ নীরিক্ষণ করা হয়েছে বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে। আর এ নীরিক্ষণ তারুণ্যের চোখে। চলমান সমাজ ক্রমান্বয়ে ক্ষয়ের দিকে ধাবিতÑ এর প্রভাব শিক্ষা, সাহিত্য সংস্কৃতির ওপর পড়ছে তা স্পষ্ট করে উচ্চারণ করেছেন লেখকেরা। এ সংখ্যায় লিখেছেনÑ অগ্নি তালুকদার, অরূপ রতন, আনিফ রুবেদ, আমিনুল ইসলাম, কামরুল বাহার আরিফ, গোপীনাথ দত্ত, তুহিন দাস, দেবযানী বসু, ধ্রুবজ্যোতি ঘোষ মুকুল, নির্ঝর নৈঃশব্দ্য, নৃসিংহ মুরারি দে, পরাগ রিছিল, বঙ্গ রাখাল, মঈন শেখ, মনসুর আজিজ, মনিরুল মনির, মাদল হাসান, মানবনর্দ্ধন পাল, মানস সান্যাল, মাসুদার রহমান, মাহমুদ কামাল, মোহাম্মদ আবদুল মাননান, মোহাম্মদ নুরুল হক, মু. আবদুল হাকিম, যুবক আনার্য, শওকত হোসেন, শামসুল আরেফীন, শামিম সাঈদ, শাহানা সিরাজী, শিকদার উয়ালিউজ্জামান, শিল্পী শাহনাজ, শিশির আজম, শ্যামল চন্দ্র নাথ, সম আজাদ, সাবরিনা আনাম, সুজন হাজারী, সুবীর সরকার, স্বপন সৌমিত্র প্রমুখ। প্রায় নির্ভুল পরিপাটি এ ছোট কাগজটির যুগ্ম সম্পাদক স্বপন সৌমিত্র।

দাগ

ছোট কাগজ ‘দাগ’ এবারের সংখ্যা সাজিয়েছে কবি সোহরাব পাশাকে নিয়ে। কবিতার পাঠকমাত্রই সোহরাব পাশা নামের সঙ্গে পরিচিত।

পাথর রাত্রি কবিতার বইয়ের মাধ্যমে কাব্যজগতে অভিষেক ঘটলেও আলোচিত হন ‘আনন্দ বাড়ি নেই’ প্রকাশের পর। তাঁর কবিতা নান্দনিকতাময় আলাদা রেখা সৃষ্টিক রতে পেরেছে আমাদের সাহিত্যাঙ্গনে।

তাঁকে নিয়ে বিশেষ এ সংখ্যাটি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচিত হতে পারে।

কবিকে মূল্যায়ন করেছেনÑ রফিকুর রশীদ, তপন বাগচী, শিকদার ওয়ালিউজ্জামান, তোজাম্মেল হক, অনিন্দ্য তুহিন, জাফরূল আহসান, শিবলী মোকতাদির, রিমন মোরশেদ, গাউসুর রহমান, মোহাম্মদ নুরুল হক, ফকির ইলিয়াস, স্বপন সৌমিত্র, আশিক সালাম, জামাল আহমেদ, জাফরুল বাহার, আরিফ, বীরেন মুখার্জী, রাশেদ রহমান, মাসুদ মুস্তাফিজ প্রমুখ।

কবিতা নিবেদন করেছেন মাকিদ হায়দার, মুজিবুল হক কবীর, মোহাম্মদ আবদুল মাননান, চন্দন কৃষ্ণ পাল, রহমান হেনরী, এম এ জব্বার, মিজানুর রহমান বেলাল, মঈন শেখ, প্রত্যয় হামিদ, সোহেল মাহবুব, খালেদ রাহী, অনু ইসলাম, রফিকুজ্জামান রনি, আলমগীর মাসুদ।

বিশেষ সংযোজন হিসেবে রয়েছে কবির গুচ্ছ কবিতা, নিজস্ব কাব্যভাবনা, এবং কবির সংক্ষিপ্ত পরিচিতি, কবিকে লেখা বিভিন্ন বিগগ্ধজনের লেখা চিঠি ও আলোকচিত্র এ্যালবাম।

সমৃদ্ধ এ সংখ্যাটি সংগ্রহে রাখার মতো। রাজধানী থেকে অনেক দূরে নওগাঁর আত্রাইয়ে ‘দাগ’-এর সূতিকাগার। চমৎকার একটি প্রকাশনা উপহার দেয়ার জন্য সম্পাদককে ধন্যবাদ।

প্রকাশিত : ৩ এপ্রিল ২০১৫

০৩/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: