কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

এবার সীমান্তে অজ্ঞাত যুবককে পিটিয়ে হত্যা করল বিএসএফ

প্রকাশিত : ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • তিন দফা পতাকা বৈঠক

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট, ১২ ফেব্রুয়ারি ॥ এবার এক বাংলাদেশী অজ্ঞাত যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে ভারতীয়রা। লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার ঝাঁলঙ্গী সীমান্তের ওপারে সামান্য দূরত্বে ভারতের গোপালেরহাট গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দারা এ ঘটনা ঘটায়। তবে নিহত বাংলাদেশী যুবকের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

বুধবার কয়েক দফা পতাকা বৈঠকে ভারতের কুচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ মহকুমার গোপালেরহাট চিতিয়াডাঙ্গা বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা বিজিবিকে জানিয়েছে, স্থানীয় গ্রামবাসী অজ্ঞাত এক যুবককে দুষ্কৃতকারী সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করে। নিহত যুবক ভারতীয় নয়। বিজিবি ও সীমান্ত গ্রামবাসী সূত্র জানায়, জেলার পাটগ্রাম উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের ঝাঁলঙ্গী সীমান্তের ৮৪৯ নম্বর মেইন পিলারের ২ নম্বর সাব-পিলার এলাকার ওপারে টিল ছ্ুেড় মারার মতো দূরত্বে অজ্ঞাত এক যুবকে স্থানীয় গ্রামবাসী পিটিয়ে হত্যা করে। তার মৃত্যু নিশ্চিত করে লাশ সীমান্তের কাছে ফেলে যায়। এ ঘটনা বিজিবি জানতে পেরে ভারতীয় ফালাকাটা ৩৫ বিএসএফের কাছে তথ্য চেয়ে পাঠায়। সেই সঙ্গে বিজিবি পতাকা বৈঠকের আহবান জানায়।

এ ঘটনায় বুধবার দিনব্যাপী বিজিবি-বিএসএফের মধ্যে তিন দফা পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে ভারতীয় বিএসএফ অজ্ঞাত ব্যক্তি নিহত হয়েছে বলে সত্যতা স্বীকার করে। তারা জানায়, নিহত যুবক ভারতীয় নয়। তার পরিচয় জানা যায়নি। লাশ বিএসএফের সহায়তায় ভারতীয় মেখলিগঞ্জ থানা পুলিশ উদ্ধার করেছে। পতাকা বৈঠকে ফালাকাটা ৩৫ বিএসএফের ডোরাডাবুরি কোম্পানি কমান্ডার (এসি) গৌরাঙ্গ শংকর নেতৃত্ব দেন। লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের বুড়িমারী স্থলবন্দর কোম্পানি কমান্ডার শামসুল হক জানান, বিএসএফের সঙ্গে তিন দফা পতাকা বৈঠক হয়েছে। নিহত যুবকের মুখে দাড়ি আছে। তাকে মৌলবাদী সংগঠনের নেতা ভেবে ভারতীয়রা হত্যা করেছে। নিহত ব্যক্তি বাংলাদেশী কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বিএসএফের কাছে নিহতের ছবি চাওয়া হয়েছে। তবে অপর এক সূত্র দাবি করছে, গরু ব্যবসার লেনদেন নিয়ে কথাকাটাকাটির জন্য তাকে হত্যা করা হতে পারে।

প্রকাশিত : ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৩/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: