কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রাবিতে নতুন বছরে ক্লাস-পরীক্ষা হয়নি

প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারী ২০১৫
  • টানা হরতাল-অবরোধে সেশনজটের আশঙ্কা

রাবি সংবাদদাতা ॥ শীতের ছুটি শেষে ১৫ দিন পেরিয়ে গেলেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কোন বিভাগেই ক্লাস-পরীক্ষা শুরু করা যায়নি। টানা অবরোধে ভেঙ্গে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম। অবরোধের মধ্যে ক্লাস-পরীক্ষা শুরু করা যাবে কিনা, তা নিয়ে প্রশাসন ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনিশ্চয়তা বিরাজ করছে। আর রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে দীর্ঘ সেশনজটের আশঙ্কায় রয়েছেন শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, রাবিতে গত ১ থেকে ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত শীতকালীন অবকাশ শেষে ১২ জানুয়ারি থেকে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ডাকা অবরোধে নাশকতার কারণে শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে আসাই অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় অধিকাংশ বিভাগ ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত করতে বাধ্য হয়। নতুন বছরের এক মাস পেরিয়ে গেলেও কোন বিভাগেই ক্লাস-পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। বিভাগ সূত্র জানায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০টি বিভাগের মধ্যে কয়েকটি ছাড়া প্রায় সব বিভাগের পরীক্ষা জানুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু টানা অবরোধে নাশকতার কারণে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে বিভিন্ন বর্ষের চলমান পরীক্ষা স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগগুলো। এরমধ্যে রয়েছ- আইন, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা, সমাজবিজ্ঞান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ইংরেজী, দর্শন, আরবি, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, ভাষা, ব্যবস্থাপনা, ফিন্যান্স, পদার্থবিজ্ঞানসহ আরো কয়েকটি বিভাগ। এছাড়া কোন বিভাগেই ক্লাস অনুষ্ঠিত না হওয়ায় নির্ধারিত সময়ে কোর্স শেষ করা নিয়েও সংশয় দেখা দিয়েছে। এদিকে হরতাল-অবরোধের মধ্যেও যেসব শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে এসেছেন, ক্লাস-পরীক্ষা না হওয়ায় তাদের অনেকেই বাড়ি চলে গেছেন। আর অনেকে এখনও ক্যাম্পাসেই আসতে পারছেন না। অভিভাবকরাও এ অবস্থায় তাদের সন্তানকে ক্যাম্পাসে পাঠাতে সাহস করছেন না। রাবির মার্কেটিং বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী মাহফুজ মুন্না বলেন, রুটিন অনুযায়ী জানুয়ারি মাসের ১৪ তারিখ থেকে ৩১ তারিখ পর্যন্ত সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। এজন্য অবরোধের মধ্যেও ক্যাম্পাসে এসেছিলাম। কিন্তু পরীক্ষা অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হওয়ায় বাধ্য হয়ে বাড়ি ফিরে এসেছি। আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রাকিব শিশির টানা অবরোধের কারণে বগুড়া থেকে এখনও ক্যাম্পাসে ফিরতে পারেননি। তিনি বলেন, ২৯ জানুয়ারি তৃতীয় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও তা স্থগিত করা হয়েছে। পরবর্তী পরীক্ষা ২ ফেব্রুয়ারি হওয়ার কথা থাকলেও তা হবে কিনা সেটা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে। তাই ঝুঁকি নিয়ে ক্যাম্পাসে ফিরব কিনা তা নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে রয়েছি। এদিকে ২০১৪-১৫ সেশনে স্নাতক শ্রেণীতে প্রথম বর্ষের ক্লাস আগামী ২২ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে তা শুরু হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের প্রশাসক অধ্যাপক ইলিয়াছ হোসেন বলেন, আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৪-১৫ সেশনের প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু হবে। অর্থনীতি বিভাগসহ আরও কয়েকটি বিভাগ ওইদিন ক্লাস নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য চৌধুরী সারওয়ার জাহান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। কোন বিভাগে ক্লাস-পরীক্ষা নেয়া হবে কিনা তা ওই বিভাগের একান্ত নিজস্ব ব্যাপার।

প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারী ২০১৫

২৭/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: