আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সম্পাদক সমীপে

প্রকাশিত : ২২ জানুয়ারী ২০১৫
  • রাস্তাটির করুণ দশা

গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলার তরগাঁও ইউনিয়নের মরহুম নজর আলী মাস্টারবাড়ি থেকে চরখামের মোল্লাবাড়ি পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার রাস্তার উন্নয়ন করেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ ২০০৯ সালে। বর্তমানে রাস্তাটির কার্পেটিং খারাপ হয়ে গেছে।

কোন কোন স্থানে কালভার্ট না হওয়ায় তরগাঁও দক্ষিণ মধ্যপাড়া মিরবাড়ি ও জয়নালের বাড়ির পাশে দুটি কালভার্ট গত চার বছরের মধ্যে করা হয়নি। রাস্তাটি মেরামত করা একান্ত প্রয়োজন। এই রাস্তার আশপাশে ৩টি ইটখোলা আছে। জামানের ইটখোলা, জানু ইটখোলা ও কামালের ইটখোলা।

এই রাস্তা দিয়ে ট্রাক, ট্রলি ও অন্যান্য যানবাহন বেশি চলাচল করে। তাই রাস্তাটি বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অসমাপ্ত কালভার্ট, কার্পেটিং, খানাখন্দ, সাইট ভাঙ্গা ও পানির নিষ্কাশনের জন্য ড্রেন মেরামত একান্তভাবে জরুরী।

রেহানউদ্দিন

কাপাসিয়া, গাজীপুর

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি

২০০৯ থেকে ২০১২ সালের এসএসটি/সমমান এবং ২০১৩ ও ২০১৪ সালে এইচএসটি/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন শর্তসাপেক্ষে ২০১৪-২০১৫ শিক্ষাবর্ষের ১মবর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পেরেছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় বিশ্ববিদ্যালয় এবং দেশের প্রায় ৭০ শতাংশ শিক্ষার্থী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করে। তাই যারা ২০০৯ সালে এসএসসি পাস করে বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসিতে রেজিস্ট্রেশন করি এবং ৪ বছর রেজিস্ট্রেশন মেয়াদের মধ্যে এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে, তারা যেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন শর্তসাপেক্ষে ২০১৪-২০১৫ শিক্ষাবর্ষের ১মবর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারে তার ব্যবস্থা করা উচিত। এ ব্যাপারে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পদক্ষেপ নেয়া সঙ্গত।

মোহাম্মদ জরি রায়হান

পল্লবী, ঢাকা

ঝাঁজালো সরিষার তেল

ঢাকা থেকে বাসে রাজশাহী যাচ্ছিলাম। আমার পাশের সিটে বসা এক যাত্রীর সঙ্গে একটা ছোট আকারের কেমিক্যালের জার দেখতে পাই। এ ফাঁকে কৌতূহলবশত জারের লেবেলটা পড়লাম। লেখা- থাইওসাইনাইড। ইতোমধ্যে সেই যাত্রীভাইয়ের সঙ্গে আমার আলাপ-পরিচয় হয়েছে। তিনি রাজশাহীতে একটি সরিষার তেল কলের মালিক।

আমি তাঁকে জিজ্ঞাসা করলাম তাঁর সঙ্গেও সেই কেমিক্যালের জারের বিষয়ে। তিনি আমাকে জানালেন, এটা সরিষার তেলের ঝাঁজ। এক টিন তেলে সামান্য এই ওষুধ (কেমিক্যাল) দিলে তেলে খুব ভাল ঝাঁজ হয়। পাঠক এবার ভাবুন ঝাঁজ বিশিষ্ট খাঁটি সরিষার তেলের নামে আমরা কী খাচ্ছি?

বজলুর রহমান তালুকদার

এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা

প্রকাশিত : ২২ জানুয়ারী ২০১৫

২২/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: