মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ছড়িয়ে পড়ছে বিক্ষোভ

প্রকাশিত : ২৭ নভেম্বর ২০১৪
  • যুক্তরাষ্ট্রের ফার্গুসনে গার্ড বাহিনী মোতায়েন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এক নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরকে হত্যার দায়ে এক শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসারকে অভিযুক্ত না করার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিভিন্ন শহরে মঙ্গলবার প্রচ- বিক্ষোভ দেখানো হয়। মিসৌরি অঙ্গরাজ্যের সেন্ট লুই শহরের উপশহর ফার্গুসনে ঐ হত্যাকা- সংঘটিত হয়।

নিউইয়র্ক থেকে সিয়াটল পর্যন্ত বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ মোটামুটি শান্তিপূর্ণই ছিল। প্রতিবাদীরা সেøাগান দেয় এবং প্ল্যাকার্ড বহন করে। কৃষ্ণাঙ্গঅধ্যুষিত ফার্গুসনে দ্বিতীয় রাতের মতো সহিংস বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে আরও সহিংসতা প্রতিরোধ করতে ন্যাশনাল গার্ডের ২ হাজার ২শ’ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। খবর এএফপি, বিবিসি ও ইয়াহু নিউজের।

মিসৌরি গবর্নর জে নিক্সন বলেন, ফার্গুসন এলাকায় স্থানীয় পুলিশ বাহিনীকে সহায়তা করতে ন্যাশনাল গার্ড বাহিনীর সংখ্যা তিন গুণ বাড়িয়ে ২ হাজারেরও বেশি করা হয়েছে। প্রতিবাদীরা সেন্ট লুই পুলিশের একটি পেট্রোলকার আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। ন্যাশনাল গার্ডরা বিক্ষোভ দেখানোকে ‘অবৈধ সমাবেশ’ বলে ঘোষণা করে। তারা মিছিলকারী ও সাংবাদিক উভয়কেই গ্রেফতার করা হতে পারে বলে সতর্ক করে দেয়। নিহত কিশোর মাইকেল ব্রাউনের (১৮) আইনজীবীরা ঐ অফিসার ড্যারেন উইলসনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি অভিযোগ না আনতে গ্র্যান্ড জুরির সোমবার নেয়া সিদ্ধান্তকে পক্ষপাতদুষ্ট বলে নিন্দা জানান। গত আগস্টে উইলসন ব্রাউনকে গুলি করে হত্যা করেন। ফার্গুসনের আফ্রিকান আমেরিকান সম্প্রদায়ের অনেকেই ঐ অফিসারের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ আনার আহ্বান জানিয়েছিলেন। কিন্তু গ্র্যান্ড জুরির ঐ সিদ্ধান্তের ফলে গুলিবর্ষণের ঘটনায় পুলিশ অফিসারকে আর ফৌজদারি অভিযোগের সম্মুখীন হতে হবে না। এদিকে, মিসৌরি ন্যাশনাল গার্ড বাহিনীর সশস্ত্র সদস্যরা ফার্গুসনের ওয়েস্ট ফ্লোরিস্যান্ট রোডটি বন্ধ করে দিয়েছে। গ্র্যান্ড জুরির রায় ঘোষিত হওয়ার পর সোমবার রাতে শহরটিতে ব্যাপক লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

ফার্গুসন পুলিশ স্টেশনে দাঙ্গা পুলিশ সেøাগানরত ও প্ল্যাকার্ডধারী প্রায় ১০০ প্রতিবাদীকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। একটি প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল : ‘আমাদের স্তব্ধ করা যাবে না।’ জনতা ফার্গুসন সিটি হলের দিকে পিছু হটে যায়। সেখানে একটি পেট্রোলকারে আগুন দেয়া হয়। দাঙ্গা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে এবং সাঁজোয়া যান মোতায়েন করে। মুখোশধারী বিক্ষোভকারীরা পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। চার ব্লক দূরে একটি ফার্মেসি লুট হওয়ার খবর পাওয়া যায়। দেশজুড়ে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ার মধ্যে গবর্নর নিক্সন বলেন, জীবন ও সম্পত্তি অবশ্যই রক্ষা করতে হবে। এ কমিউনিটিকে শান্তি দিতে হবে। নিউইয়র্ক সিটিতে হাজার হাজার মিছিলকারী রাস্তা দিয়ে এগিয়ে গেলে ব্রিজ ও টার্নেল পথে যান চলাচল ব্যাহত হয়। এ ঘটনায় কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়। ওয়াশিংটনের হোয়াইট হাউসের বাইরে একদল লোক শান্তিপূর্ণভাবে রাস্তায় নেমে আসে।

প্রকাশিত : ২৭ নভেম্বর ২০১৪

২৭/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: