মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পত্র দ্বারা নিমন্ত্রণে ত্রুটি মার্জনীয়

প্রকাশিত : ৪ জুলাই ২০১৫

বিয়ে কিংবা অন্য কোন সামাজিক অনুষ্ঠানে আত্মীয়স্বজনদের নিমন্ত্রণের প্রথা দীর্ঘদিন ধরে প্রচলিত। অতীতে স্বশরীরে অতিথিদের বাড়িতে গিয়ে নিমন্ত্রণ করা হতো। কোন কারণে যিনি এটা করতে পারতেন না তিনি বাহকের মাধ্যমে চিঠি পাঠিয়ে নিমন্ত্রণ করতেন। চিঠিতে নিজে গিয়ে নিমন্ত্রণ করতে না পারার জন্য দুঃখ প্রকাশ করতেন। কালের বিবর্তনে হাতে লেখা চিঠির উন্নত সংস্করণ হয়েছে নিমন্ত্রণপত্র। সুদৃশ্য ডিজাইনের কার্ডে ছাপানো হয় এই নিমন্ত্রণপত্র। ক্রমে ক্রমে নিমন্ত্রণের এই পন্থাটি ব্যাপকতা লাভ করে। বর্তমানে মোবাইল ফোনের বদৌলতে ওই দুই পন্থা পিছিয়ে পড়েছে। মোবাইলের ফোন কলে এবং এসএমএসের মাধ্যমে দ্রুততার সঙ্গে নিমন্ত্রণ পৌঁছে যাচ্ছে নিমন্ত্রিতদের কাছে। এই পন্থাটি এখন সর্বস্তরে গ্রহণযোগ্য বলে বিবেচিত হচ্ছে।

একদা ব্যক্তি কিংবা পারিবারিকভাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আত্মীয়স্বজনদের নিমন্ত্রণ করা হতো তাদের বাড়িতে গিয়ে। যিনি সময় স্বল্পতা কিংবা অন্য কোন কারণে যেতে পারতেন না তিনি বাহকের মাধ্যমে চিঠি দিয়ে নিমন্ত্রণ করতেন। সাদা কাগজে হাতে লেখা ওই চিঠির একটি বাক্যে লেখা হতো ‘পত্র দ্বারা নিমন্ত্রণ করায় ত্রুটি মার্জনা করিবেন।’ কালের বিবর্তনে নিমন্ত্রণের পদ্ধতির পরিবর্তন ঘটে। ছাপানো হয় বাহারি ডিজাইনের কার্ডে নিমন্ত্রণপত্র। ‘শুভ বিবাহ’ ‘বৌ-ভাত’ ‘জন্মদিন’ প্রভৃতি অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণপত্র ছাপা হয়। বিয়ের কার্ডে বর-কনের পরিচয়, বিয়ের অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতার সময়সূচী এবং এক অংশে চিঠি ছাপানো হয়।

Ñঅমল সাহা, খুলনা অফিস

প্রকাশিত : ৪ জুলাই ২০১৫

০৪/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: