কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কেরানীগঞ্জে জিন্স প্যান্ট তৈরির ধুম

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, কেরানীগঞ্জ ॥ ঈদ বাজারকে সামনে রেখে জিন্স প্যান্ট তৈরির ধুম পড়েছে। আড়াই সহস্রাধিক কারখানায় দিনরাত চলছে প্যান্ট তৈরির মেশিন। নাওয়া-খাওয়া ভুলে ২৪ ঘণ্টা কাজ করছে শ্রমিকরা। উপজেলার শুভাঢ্যা ও আগানগর ইউনিয়নের কারখানাগুলো থেকে তৈরি প্যান্ট ক’দিন পর দেখা যাবে দেশের ডিপার্টমেন্টাল স্টোর, সুপার মার্কেটসহ অভিজাত শপিংমল মার্কেটগুলোতে। প্রতিদিন পাইকাররা ভিড় করছেন সেখানে। মার্কেটের ব্যবসায়ীরা ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। জিন্স প্যান্টপট্টি এখন ক্রেতা-বিক্রেতাদের মিলন মেলায় মুখরিত হয়ে উঠেছে। কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস ব্যবসায়ী ও দোকান মালিক সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান খান বলেন, ২০ থেকে ২৫ রোজা পর্যন্ত কারখানাগুলোর উৎপাদন ও বেচাকেনা চলবে। ব্যবসায়ীরা জানান, এবার ঈদে ৭ কোটি জিন্স প্যান্ট লেনদেন করবে।

উপজেলার এই বিশাল মার্কেটে প্রায় সাড়ে ৬ হাজার কারখানা রয়েছে। এই কারখানাগুলোতে শুধু জিন্স প্যান্টই তৈরি হয় না, এখানে তৈরি হচ্ছে শার্ট, টিশার্ট, গেঞ্জি, পায়জামা, পাঞ্জাবি, ফতুয়াসহ মেয়েদের যাবতীয় ধরনের সেলোয়ার কামিজ, স্কাট, ফরাগ, জিন্স প্যান্ট, বোরখা ও শীতবস্ত্র। ৪ লক্ষাধিক শ্রমিক এখানে কাজ করছে। মার্কেট এলাকা ছাড়াও খেজুরবাগ, চর-খেজুরবাগ, কালীগঞ্জ, অলীনগর, কৈব্যর্তপাড়া, চর কুতুব, আমবাগিচাসহ আরও বিভিন্ন গ্রামে ছোট ছোট কারখানা গড়ে উঠেছে। সাড়ে ৩ হাজার জিন্স প্যান্ট কারখানায় আড়াই লাখের বেশি শ্রমিক কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছে। তারা উন্নত দেশের যে কোন ব্যান্ডের জিন্স প্যান্ট তৈরি করতে পারে। সেঞ্চুরি গার্মেন্টসের মালিক হারুন মিয়া জানান, এখানে বিশ্বের খ্যাতনামা টরেন, ডগাস, এলআরটি, মেটালো, মশিনো ড্রাগন, আর্মানী, ভার্সাস, গুসি, লিভাইজ, ব্লু কালেকশন, ডিজেল প্রভৃতি ব্যান্ডের জিন্স প্যান্ট। কেউ কোনদিন না বলা পর্যন্ত বলতে পারবে না এই প্যান্ট কেরানীগঞ্জে তৈরি হয়েছে।

এ ব্যাপারে নুর সুপার মার্কেটের ইউরো প্যান্ট পয়েন্টের মালিক হাজী আবুল কালাম আব্দুর রশীদ বলেন, সরকার এই এলাকার তৈরি পোশাক ব্যবসায়ীদের ভাল সুযোগ-সুবিধা দিলে বিশ্বের উন্নত দেশের থেকে ভাল পোশাক তৈরি সম্ভব হবে। তিনি আরও জানান, আমেরিকা, ব্রিটেন, জার্মান, ফ্রান্স, ইতালি, অরিজিন্যাল প্যান্ট তৈরি করে। হংকং, সিঙ্গাপুর ও থাইল্যান্ড ওইসবের কপি তৈরি করে। এর পর বাংলাদেশের কেরানীগঞ্জের জিন্স ব্যবসায়ীরা সেই ডিজাইন অনুকরণ করে। উন্নত বিশ্ব যে কাপড় মাল মেটেরিয়াল দিয়ে প্যান্ট তৈরি করে কেরানীগঞ্জের জিন্স, গেভার্ডিন ও পলিস্টার প্যান্ট একই উপাদানে তৈরি করে।

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫

২৮/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: