আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মুস্তাফিজের বিশ্ব রেকর্ড

প্রকাশিত : ২২ জুন ২০১৫

শাকিল আহমেদ মিরাজ ॥ বিশ্ব ক্রিকেটকেই যেন ঘোরের মধ্যে ফেলে দিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান নামের এক বাংলাদেশী পিচ্চি! অভিষেকে ৫ উইকেট নিয়ে ভারতকে একাই ধসিয়ে দিয়েছিলেন, হয়েছিলেন ম্যাচসেরা। মহেন্দ্র সিং ধোনি বলেছিলেন, ‘ছেলেটার বোলিংয়ে ভেরিয়েশন আছে, ওকে নিয়ে গবেষণা করতে হবে।’ মাঝের দু’দিন নিশ্চই ঘুম হয়নি সফরকারী ভিডিও এ্যানালিস্টের, যে করে হোক ১৯ বছরের বাঁহাতির বোলিংয়ের মর্ম উদ্ধার করতে হবে! লাভ কী কিছু হয়েছে? টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ৫ বা ততধিক (৬) উইকেট নিয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসটাই বদলে দিলেন সাতক্ষীরার তরুণ। জিম্বাবুইয়ের ব্রায়ান ভিটোরির সঙ্গে যৌথভাবে নাম লেখালেন অভিষেকে টানা দুই ম্যাচে পাঁচ শিকারের বিরল রেকর্ডে। কেবল তাই নয়, অভিষেকে টানা দুই ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়ে নতুন বিশ্বরেকর্ডই গড়লেন মুস্তাফিজুর!

ওয়াসিম আকরাম, কপিল দেব, ম্যালকম মার্শালরা যা পারেননি তাই করে দেখালেন মুস্তাফিজুর নামের অপার বিস্ময়। ১০ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে তুলে নিলেন ৬ উইকেট। সুইং ও কাটারের মরণ ফাঁদে একে একে সাজঘরে ফেরালেন রহিত শর্মা, মহেন্দ্র সিং ধোনি, সুরেশ রায়না, রবীন্দ্র জাদেজা, অক্ষর প্যাটেল ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে। বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে স্বপ্ন চুরির প্রতিশোধে প্রথম ম্যাচেই ম্যাচসেরা হয়ে ক্রিকেট বিশ্বে আচমকা-ঝড় মুস্তাফিজুর। মাত্র ৪৮ ঘণ্টার ব্যবধানে নিজেকেই ছাড়িয়ে গেলন তিনি। গড়লেন নব ইতিহাস।

ওয়ানডেতে টানা তিন ম্যাচে ৫ বা ততধিক উইকেট শিকারের নজিরও রয়েছে। সাবেক পাকিস্তানী স্পিডস্টার ওয়াকার ইউনুস গড়েছিলেন সেই কীর্তি, তবে সেটি তার অভিষেকে ছিল না। জীবনের প্রথম দুই ম্যাচে ৫টি করে উইকেট নেয়ার একমাত্র রেকর্ডটি ছিল ব্রায়ান ভিটোরির। ২০১১ সালে বাংলাদেশের জিম্বাবুইয়ে সফরে নিজের অভিষেকে পর পর দুই ম্যাচে ৫টি করে মোট উইকেট নিয়েছিলেন বাঁহাতি পেসার। মজার বিষয়, মুস্তাফিজুরও বাঁহাতি এবং লজ্জার রেকর্ড থেকে বাংলাদেশকে দুইয়ে নামিয়ে সেখানে ভারতকে বসিয়ে দিলেন তিনি! অভিষেকে দুই ম্যাচে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের রেকর্ডের সঙ্গে যতবার মুস্তাফিজুরের নাম আসবে, ততবরই প্রতিপক্ষ হিসেবে উচ্চারিত হবে হতভম্ব ‘মোড়ল’ ভারতের নাম!’

এই মিরপুরেই পাকিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টি২০ দিয়ে জাতীয় দলে অভিষেক গত ২৪ এপ্রিল। জীবনের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে তার প্রথম শিকার ছিলেন টি২০র রাজা শহীদ আফ্রিদি, আর ওয়ানডেতে শুরু ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডধারী রোহিত শর্মাকে দিয়ে! প্রতিশোধের প্রথম ম্যাচে সাজঘরে ফিরিয়েছিলেন অজিঙ্কা রাহানে, সুরেশ রায়না, রবিন্দ্র জাদেজা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে ফিরিয়ে প্রতিশোধের ম্যাচে দলকে জয়ের বন্দরে ভিড়িয়ে হয়েছিল অবধারিত ‘নায়ক’। বিপরীতে ছোট্ট মানুষটিকে ইচ্ছে করে ধাক্কা মেরে ‘খলনায়ক’ মহেন্দ্র সিং ধোনি!

প্রকাশিত : ২২ জুন ২০১৫

২২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: