আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সাইফুজ্জামানের চোখে মহাদেব সাহা

প্রকাশিত : ৫ জুন ২০১৫
  • সাগর জামান

মহাদেব সাহা ষাটের দশকের খ্যাতিমান কবি। প্রেম, বিরহ, স্বদেশ ভাবনা, নিসর্গসহ জাগতিক জীবনের নানা অনুষঙ্গকে উপজীব্য করে মহাদেব সাহা তাঁর কাব্যচর্চাকে চলমান রেখেছেন। তিনি বিরল কাব্য প্রতিভা নিয়ে আপন মহিমায় নির্মাণ করেছেন রোদেলা আলো ঝলমলে তার নিজস্ব কাব্য জগত। তাঁর প্রতিটি কবিতায় পাঠকের কাছে হৃদয়গ্রাহী হয়ে ওঠে মহাদেব সাহা বাংলাদেশের কবিতা জগতের একটি উজ্জ্বল মুখ। তার সাবলীল ভাষা বিন্যাস, সহজ যুৎসই শব্দচয়ন এবং ব্যতিক্রমী রচনাশৈলী ও বিষয় নির্বাচন তাঁর কবিতার পূর্ণাঙ্গ রূপদান করে। মহাদেব সাহার কবিতার কথা পাঠকদের আলোনার বিষয় হয়ে ওঠে তাঁকে নিয়ে পাঠকের আগ্রহ বিস্তর। সে কারণে সাইফুজ্জামানের এই উদ্যোগ প্রশংসার দাবি রাখে। ‘মহাদেব সাহা আনন্দে অশ্রুতে শিরোনামের গ্রন্থ রচনার মধ্য দিয়ে সাইফুজ্জামান এই কীর্তিমান কবির কবি জীবনের আখ্যান লিপিবদ্ধ করার প্রয়াস চালিয়েছেন। বইটি উৎসর্গ করা হয়েছে আরও একজন কৃতী মানুষ কাব্যরসবেত্তা সমাজ ভাবুক যতীন সরকারকে। দৃষ্টিনন্দন প্রচ্ছদ এঁকেছেন অনিরুদ্ধ পলক। বিভাস প্রকাশনীর কর্ণধার রামসংকর দেবনাথ খুব যতœ ও নিষ্ঠার সঙ্গে বইটি প্রকাশ করেছেন ‘মহাদেব সাহা আনন্দে অশ্রুতে’ শীর্ষক গ্রন্থটিতে মোট পনেরোটি প্রবন্ধ অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। পাশাপাশি মহাদেব সাহার সংক্ষিপ্ত জীবনী সুন্দরভাবে সন্নিবেশিত হয়েছে। এখানেও সাইফুজ্জামান দক্ষতার সঙ্গে তাঁর ভাষাভঙ্গি প্রয়োগ করেছেন। এ গ্রন্থে আরও একটি উল্লেখযোগ্য অধ্যায় সংযোজিত হয়েছে। ব্যক্তিত্ব শিরোনামের এ অধ্যায়টিতে বাংলা সাহিত্য সংস্কৃতি রাজনীতিসহ নানা ক্ষেত্রে যাঁরা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন তাঁদের কর্ম ব্যক্তিগত স্মৃতি তাঁদের অনুপ্রেরণার কথা স্মরণ করে পূর্বে রচিত মহাদেব সাহার কবিতার উদ্বৃতি এখানে প্রযুক্ত হয়েছে। এ গ্রন্থের উল্লেখযোগ্য প্রবন্ধসমূহ হলো প্রেম ও অশ্রু, সমাজ রাজনীতি স্বদেশ, অনন্তের সন্ধানে বিভোর, স্বজন, সান্নিধ্য ও বিচ্ছিন্নতা, সম্মোহন ও স্বাতন্ত্র। মুজিব স্মৃতি শোক ও প্রতিবাদ অন্তর্গত বোধ, জীবন ও কর্মে, অপরূপ অশ্রু, শিল্প চেতনা, গিতিময় কবিতা, প্রেম ও প্রকৃতি চিত্রে এবং লাবণ্যে সৌন্দর্যে, ইতিহাস পরম্পরা সমকালিনতা, দুর্ভাগ্যপীড়িত জীবন। এছাড়া গ্রন্থপঞ্জি নামের একটি অধ্যায় এ গ্রন্থে স্থান পেয়েছে। এখানে মহাদেব সাহার উল্লেখযোগ্য বইয়ের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি দেয়া হয়েছে।

সাইফুজ্জামান গ্রন্থ ভূমিকার শেষভাগে তাঁর উপলব্ধির কথা ব্যক্ত করে বলেছেনÑ কবিতার বিচার বিশ্লেষণ ব্যক্তিগত বিষয়, পরিপার্শ উঠে এসেছে। এ গ্রন্থে কবিকে নিয়ে রচিত গ্রন্থ প্রবন্ধ চিঠির সূত্র ধরে মহাদেব সাহাকে আবিষ্কার আমার জন্য এক অসমান্য স্মৃতি। সাইফুজ্জামানের এমনতর কথার মধ্যদিয়ে এটাই উঠে এসেছে যে, একজন মহৎ কবির বৃহৎ কাজের সামান্য অংশ গ্রন্থাবদ্ধ করতে পেরে তিনি আনন্দ অর্জন করেছেন। মহাদেব সাহার কাব্যদর্শন, বিষয় বৈচিত্র, জীবন ও মানুষকে ঘিরে তাঁর বিস্তৃত ভাবনাকে নিয়ে সাইফুজ্জামান এ গ্রন্থটি রচনা করেছেন। মহাদেব সাহার পরিসর সুবিস্তৃত। একটি গ্রন্থের মধ্যে তাঁর যাপিত জীবনের কথকতা তাঁর সাহিত্যের সাতকাহন তুলে ধরা সম্ভব নয়। সে কারণে এই গ্রন্থে কিছুটা অসম্পন্নতা থেকে যাওয়া স্বাভাবিক বিষয়। মহাদেব সাহার বহুমাত্রিক সাহিত্যকর্ম তাঁর কবিতার নান্দনিকতা তাঁকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে। তাঁর কবিতা এখন গবেষণার বিষয় হয়ে উঠেছে। সাইফুজ্জামান এই গ্রন্থ রচনায় মাধ্যমে সেটাই প্রমাণ করতে সফল হয়েছেন। তিনি তাঁর নানা প্রবন্ধে মহাদেব সাহার কবিতায় মানুষের সুখ, দুঃখ যাতনা, প্রেম, হতাশার প্রাপ্তি, অপ্রাপ্তির যেসব কথা অনুরিত হয় তাঁর বর্ণনা ও ব্যাখ্যা সুন্দরভাবে দিয়েছেন। সাইফুজ্জামান ‘মহাদেব সাহা আনন্দে অশ্রুতে গ্রন্থটির মধ্যদিয়ে মহাদেব সাহাকে চমৎকারভাবে মূল্যায়ন করেছেন।

প্রকাশিত : ৫ জুন ২০১৫

০৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: