আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

স্বপ্ন দেখতে খুব ভালবাসি : নির্ঝর

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

এখন সময় কেমন কাটছে জানতে চাইলে নির্ঝর বললেন, খুব ভাল আছি। আমি সব সময় ভাল থাকার চেষ্টা করি। এছাড়া আমি নিয়মিতভাবে মেডিটেশন করছি। নিয়মিতভাবে মেডিটেশন করার জন্য খুবই ভাল আছি। নির্ঝর তাঁর ছোট বেলার কথা বলতে গিয়ে বলেন, আমি ছোট বেলায় প্রথমে নাচ করতাম। তারপর আমি গানে আসি। আমি নজরুল একাডেমিতে দশ বছর গান শিখেছি। আমার দাদি , পাকিস্তান বেতারের শিল্পী ছিলেন। আমি দাদির কাছ খেকেই প্রথমে গান শেখা শুরু করি। আমার গানের হাতে খড়ি আমার দাদির কাছ থেকেই। পরে অবশ্য আমি অনেকের কাছে গান শিখেছি। নির্ঝর ছোট বেলায় ডাক্তার হবার স্বপ্ন দেখেছিলেন। মাও চাইতেন তেমনটা। আর বাবা চেয়েছিলেন বিজনেস বিষয়ে কিছু এবং পাশাপাশি গান। এখন দেখা যাচ্ছে তিনি বাবার চাওয়ার দেখিই হাঁটছেন। তার এখন ইচ্ছে আছে গান করার পাশাপাশি বিজনেস নিয়ে কিছু একটা করার। নির্ঝরের সলো এ্যালবামের নাম করন অন্য সবার থেকে আলাদা এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি প্রথম সলো এ্যালবাম করার সময় আমার সময়টা খুব ভাল যাচ্ছিল না। গান নিয়ে অনেক কষ্টের সময় পার করছিলাম। তাই এ্যালবামের নাম দিয়েছিলাম ‘পোড়ামুখী’। ২০০৫ সালের দিকে আমার গানের অবস্থান একটু ভাল হতে থাকে। আর তখন আমি মনে করি আমার জীবনে স্বপ্নের সূর্য ওকি দিচ্ছে তাই তখন এ্যালবামের নাম দিয়েছিলাম ‘সূর্যমুখী’। আমি স্বপ্ন দেখতে খুব ভালবাসি তাই ২০১২ এ্যালবামের নাম দিয়েছিলাম ‘স্বপ্নমুখী’। তার শ্রোতাপ্রিয় গানগুলো নিয়ে বলেন, আমি বলব যে গানটির মাধ্যমে আমি নির্ঝর সবাই আমাকে চেনে সেটি হলো ২০০৫ সালে হাবিবের সাথে করা ‘একটি দিয়াশলাই কাঠি জালাও’। হৃদয় খানের সঙ্গে ২০০৮ সালে যে গানটি জনপ্রিয় হয় তার টাইটেল ছিল ‘জানি একদিন’। ২০১২ সালে হৃদয় মিক্স ২ ছিল ‘আজকের এ নিশি’। আমার সলো স্বপ্নমুখীতে ছিল ‘স্বপ্নমুখী’ ও ‘আরাধনা’ এসব গানগুলো খুবই জনপ্রিয় হয়। বর্তমানে তিনি কিছু নতুন শিল্পীদের সঙ্গে গান করছেন। এবং তাদের মিউজিক ভিডিওগুলোতে স্টুডিও অংশে কাজ করছেন। আসছে ঈদের জন্য বেশকিছু মিশ্র এ্যালবামে কাজ করছেন। দেশের বাইরে নিয়মিতভাবে স্টেজ শো করছেন। এখন নিয়মিতভাবে সিনেমায় প্লেব্যাক করছেন। সিনেমায় গানের পাশাপাশি বিজ্ঞাপনে জিঙ্গেলের কাজ করছেন। এছাড়া বর্তমানে স্টেজ, টিভি লাইভ শো নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। সঙ্গীত জগতে তার প্রথম মৌলিক গানের শিরোনাম ছিল ‘পোড়ামুখী’। গানটির কথা ও সুর ছিল বাসুদার। কোন মাধ্যমে কাজ করতে বেশি পছন্দ করেন, এ বিষয়ে নির্ঝর বলেন, একজন সঙ্গীতশিল্পী হিসাবে সব মাধ্যমেই কাজ করতে ভাল লাগে। তবে আমি বলবো আমার এক মাধ্যমের চেয়ে অন্য মাধ্যমে একটু আলাদা লাগে। অডিও এ্যালবামে একটু নিজের মত করে সময় নিয়ে করা যায়। স্টেজে দর্শকদের অনুভূতি সরাসরি বুঝা যায়। সিনেমায় কাজ করতে আমার বেশি ভাল লাগে কারণ এখানে কাজটা করতে হয় অনুভূতির। নির্ঝর গান নিয়ে তার স্বপ্নের কথা বলতে গিয়ে বলেন, আমি ভাল মানের কিছু কাজ করতে চাই। শ্রোতারা যেন কাজগুলো শুনে বলে এটা আমি করেছি। আমি সুযোগ পেলে নিজেকে সমাজ সেবামূলক কাজে জড়াতে চাই। আমি নজরুলের গান নিয়ে একটা এ্যালবাম করতে চাই, তবে এটা এখনি নয় আরও দু’এক বছর পরে। নির্ঝর ভক্ত-শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা বাংলা গানের সঙ্গে থাকুন। বেশি বেশি বাংলা গান শুনুন। আমার জন্য সকলে দোয়া করবেন। আমাদের সিডি কিনবেন। পাইরেসি বা ডাউনলোড করে গান শুনবেন না। সবাই ভাল থাকুক এই কামনা করি। উল্লেখ্য, তার প্রথম সলো এ্যালবাম বাজারে আসে ‘পোড়ামুখী ’২০০৩ সালে, দ্বিতীয় সলো অ্যালবাম ছিল ‘সূর্যমুখী ’এটা বাজারে আসে ২০০৫ সালে তার তৃতীয় সলো এ্যালবাম বাজারে আসে ‘স্বপ্নমুখী ’২০১২ সালে। এছাড়া তার অনেক মিক্সড এ্যালবাম বাজারে আছে।

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

০৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: