কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বজ্রপাতে বিভিন্ন জেলায় ৯ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫, ১২:০৬ এ. এম.
  • সুনামগঞ্জে কালবৈশাখী

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ বজ্রপাতে বুধবার দেশের বিভিন্ন স্থানে নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের একজন কেরানীগঞ্জের, তিনজন রাজবাড়ীর, একজন গোপাল-গঞ্জের, তিনজন সুনামগঞ্জের ও একজন ফরিদপুরের বলে জানা গেছে। এছাড়া সুনামগঞ্জে হয়েছে কালবৈশাখী। খবর নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

কেরানীগঞ্জ ॥ দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের নতুন বক্তারচর এলাকায় বুধবার সকালে মোঃ জহির (৩০) নামের এক যুবক বজ্রপাতে মারা গেছেন। দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের ধলেশ্বরী নদীর মোল্লার হাট এলাকায় ইঞ্জিনচালিত ট্রলার থেকে নামার সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে। এ সময় মুষলধারে বৃষ্টি ও বজ্রপাত হচ্ছিল। ওই যুবক একটি ব্যাটারি বাড়ি নেয়ার সময় বজ্রপাতে তিনি গুরুতর আহত হন। চিকিৎসার জন্য তাকে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত জহিরের বাড়ি দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের নতুন বক্তারচর এলাকায়। তার পিতার নাম মোঃ জাবেদ আলী।

রাজবাড়ী ॥ রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন স্থানে বুধবার সকালে বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু হয়। নিহতরা হলেন, গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের হবি শেখের ছেলে জাকির হোসেন, বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের নতুনচর গ্রামের লিয়াকত শেখের ছেলে মুরাদ শেখ এবং কালুখালী উপজেলার রতনদিয়া ইউনিয়নের বহরকালুখালী গ্রামের আজগর আলী ম-লের ছেলে কুরমান ম-ল। জানা গেছে, বৃষ্টির মধ্যে এরা ক্ষেতে কাজ করছিলেন। হঠাৎ বজ্রপাত হলে তারা মারা যান। মৃতরা সকলেই কৃষক ও দিনমজুর।

গোপালগঞ্জ ॥ গোপালগঞ্জে বুধবার সকালে বজ্রপাতে নূরু মোল্লা (৬০) নামে একজন মোয়াজ্জিন মারা গেছেন। একই সঙ্গে তার একটি গরুও মারা গেছে। সদর উপজেলার বাসাবাটি গোপীনাথপুর গ্রামে ঘন কালো মেঘসহ গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মধ্যে মাঠে গরু নিয়ে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে। নুরু মোল্লা ওই গ্রামের মকবুল মোল্লার ছেলে।

সুনামগঞ্জ ॥ সুনামগঞ্জে বুধবার বজ্রপাতে তিনজন মারা গেছেন। তাহিরপুর ও জামালগঞ্জে বজ্রপাতে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার এসব ঘটনা ঘটেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বিকেল ৪টায় তাহিরপুর উপজেলার বড়দল গ্রামের এজাজ হোসেন (২৪) ও আবু বক্কর (৬৫) গ্রামের মাঠে গরু চরানোর সময় বজ্রপাতে মারা যায়। সে বড়দল গ্রামের শাহ আলমের পুত্র। এদিকে একই সময়ে জামালগঞ্জ উপজেলার ফেনারবাক ইউনিয়নের হটামারা গ্রামে আমবর আলী (৬০) নামের এক পথচারী পাগনার হাওরের পাড়ে বজ্রপাতে মারা যান। বিকেলে স্বজনরা রাস্তা থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছেন। জামালগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আতিকুর রহমান এবং তাহিরপুর থানার ওসি শহীদুল্লাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া এসব আহত হয়েছেন পাঁচজন।

ফরিদপুর ॥ ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা গাজীরটেক ইউনিয়নের বেপারী ডাঙ্গী গ্রামের মৃত আবু বেগের পুত্র কৃষক দেলোয়ার বেগ (৩৫) বুধবার সকালে ক্ষেতে কাজ করার সময় বজ্রপাতে মারা গেছেন।

তিনি এ সময়ে মাঠে পেঁয়াজের দানা তোলার কাজ করছিলেন। এ সময় বজ্রপাতে তিনি মারাত্মক আহত হলে হাসপাতালে নেবার পথে তার মৃত্যু ঘটে।

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫, ১২:০৬ এ. এম.

০২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: