মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

গ্রেপ্তারে অনুমতির প্রয়োজন নেই- নির্বাচন কমিশনার

প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০১৫, ০৪:৪৬ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ বলেছেন, পুলিশ বাহিনী নির্বাচনী কাজের জন্য নির্বাচন কমিশনের অধীনে এসেছে। তবে পুলিশ যদি কাউকে গ্রেপ্তার করতে চায়, সে ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের কোনো অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন নেই।

মঙ্গলবার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনে তাঁর কার্যালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের উত্তরে মো. শাহনেওয়াজ এসব কথা বলেন।

নির্বাচনে সম্ভাব্য যেসব প্রার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে, তাঁরা কীভাবে নির্বাচন করবেন জানতে চাইলে শাহনেওয়াজ বলেন, আইনেই বলা আছে কে প্রার্থী হবেন। কীভাবে নির্বাচন করবেন। সে ক্ষেত্রে আইনে যা আছে, সেভাবেই কাজ হবে।

সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সবার জন্য সমান সুযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে শাহনেওয়াজ বলেন, ‘এই কমিশন ছয়টি সিটি করপোরেশন নির্বাচন সম্পন্ন করেছে। সব কয়টি সুষ্ঠু হয়েছে। এবারও নির্বাচন স্বচ্ছ হবে বলে আমরা আশা করছি।’ কেউ যদি আচরণবিধি লঙ্ঘন করেন এবং বিষয়টি যদি কমিশনের নজরে আসে, সে ক্ষেত্রে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

সময়মতো গিয়েও মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেননি বলে প্রার্থী হতে ইচ্ছুক যেসব ব্যক্তি অভিযোগ করেছেন, তাঁদের ব্যাপারে জানতে চাইলে শাহনেওয়াজ বলেন, এবার রিটার্নিং অফিসে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার জন্য ১১ দিন সময় দেওয়া হয়েছে। বিকেল পাঁচটার পরে মনোনয়নপত্র জমা নেওয়ার কোনো বিধান নেই। রিটার্নিং কর্মকর্তারা কোনো ভুল করেননি। এ ক্ষেত্রে বিশেষ বিবেচনারও কোনো সুযোগ নেই।

মেয়র পদপ্রার্থীদের মধ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস উদ্দিন আহমেদের নামে ৩৭টি ফৌজদারি মামলা রয়েছে। বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক আবদুস সালামের বিরুদ্ধে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে রাজধানীতে তিনটি মামলা হয়। সবগুলোই নাশকতার মামলা। এর মধ্যে দুটি মামলা হয়েছে বিস্ফোরক আইনে, অন্যটি সন্ত্রাসবিরোধী আইনে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল আউয়াল মিন্টুর বিরুদ্ধে ১৩টি মামলা রয়েছে, যার মধ্যে তিনি পাঁচটিতে জামিনে রয়েছেন। বাকিগুলো ‘পেন্ডিং’ রয়েছে।

বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক আবদুস সালামসহ বেশ কয়েকজন প্রার্থীর বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। কারাগারে আটক বিএনপির নেতা নাসির উদ্দীন আহম্মেদ পিন্টুর নামে বর্তমানে ফৌজদারি মামলার সংখ্যা চারটি।

এছাড়া বেশ কয়েকজন প্রার্থীর বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। তাঁদের মধ্যে কেউ কেউ পলাতক। কেউ আবার কারাগারে আটক রয়েছেন।

প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০১৫, ০৪:৪৬ পি. এম.

৩১/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: