রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর বিএনপির ১৫০ নেতাকর্মীকে গুম করা হয়েছে

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০১৫
  • শাহ মোয়াজ্জেম

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর এ পর্যন্ত বিএনপির ১৫০ নেতাকর্মীকে গুম করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন। তিনি বলেন, রাজনীতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গুমের ইতিহাস তৈরি করেছেন, যা এর আগে আমরা দেখিনি। এ গুমের জন্য বর্তমান সরকার ও প্রধানমন্ত্রীকে নোবেল পুরস্কার দেয়া যায়। রবিবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মহিলা দল আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে শাহ মোয়াজ্জেম বলেন, আপনি বলেছেন, খালেদা জিয়া বস্তায় ভরে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদকে পাচার করে দিয়েছে। আপনি কি দেখেছেন? দেখে থাকলে আপনি কেন মামলা করেননি? এ দেখার সাক্ষী আপনাকে দিতেই হবে। আপনি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় বলেছেন, দেশের সকল মানুষ আপনার পক্ষে। কত মানুষ আপনার জনসভায় গিয়েছে? আপনি কী করে বুঝলেন, সকল মানুষ আপনার পক্ষে? আপনি কি খালেদা জিয়াকে সমাবেশ করতে দিয়েছিলেন? আপনার প্রতি চ্যালেঞ্জ রইল, পারলে খালেদা জিয়াকে একটা সমাবেশ করতে দিন, তারপর এ সব বলুন। তিনি বলেন, আমি প্রাক্তন আওয়ামী লীগার, আমি জানি কিভাবে জনসভায় মানুষকে একত্রিত করেন? পুরনো বাসে পেট্রোলবোমা কারা মারে তাও আমি জানি। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি আরও বলেন, আপনি ক্ষমতায় না থাকলে একটি রাষ্ট্রের ট্রানজিট, গ্যাস, তালপট্টিসহ কোন কার্যসিদ্ধি হবে না। খালেদা জিয়ার সঙ্গে সেই দেশের কোন আপোস চলবে না, তাই আপনি প্রধানমন্ত্রী।

সরকারের মন্ত্রীদের সমালোচনা করে শাহ মোয়াজ্জেম বলেন, কী এক রাবিশ ডিপার্টমেন্টের খবিশ মন্ত্রী আছেন, তিনি কথায় কথায় রাবিশ বলেন। সেই মুহিত সাহেবের কি হয়েছে জানি না। তিনি কি জমিদারের নাতি। তা না হলে কিভাবে বলেন, সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা কোন টাকা না। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, মানুষ মারা নাকি ভাল। আর রেলমন্ত্রী পায়ে ঠেকিয়ে গুলি করার পক্ষে বলেন। এ সব নামকাওয়াস্তে ভোটবিহীন মন্ত্রীদের কথার কোন ঠিক নেই। বিনা ভোটে নির্বাচিত চীনপন্থী কমিউনিস্ট, ভারতপন্থী কনভার্টেড আওয়ামী লীগারদের শেখ হাসিনা মন্ত্রী বানিয়েছেন। ‘ইনু- মেনন-মতিয়ারাই শেখ মুজিবকে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল’।

মহিলা দলের সভাপতি নূরে আরা সফার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক রুহুল আমিন গাজী, মহিলা দলের ভাইস চেয়ারম্যান রওশন আরা ফরিদ, মহিলা দল নেতা নুর জাহান মাহবুব, নেওয়াজ হালিমা আরলি, রাশেদা বেগম হিরা প্রমুখ।

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০১৫

৩০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: