মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতা দখলের দিন শেষ

প্রকাশিত : ৯ মার্চ ২০১৫, ০১:০৩ এ. এম.
  • সংসদে আলোচনা

সংসদ রিপোর্টার ॥ রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে সংসদ সদস্যরা বিএনপি-জামায়াত জোটের কঠোর সমালোচনা করে বলেছেন, পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতা দখলের দিন শেষ হয়ে গেছে। খালেদা জিয়ার পাশে এখন কেউ-ই নেই, তার একমাত্র সম্বল হচ্ছে পেট্রোলবোমা আর কিছু জঙ্গী-সন্ত্রাসী। তাদের দিয়ে খালেদা জিয়া কোনদিন ক্ষমতায় যেতে পারবেন না। আলোচনায় অংশ নিয়ে মাহজাবিন খালেদ তার পিতা সেক্টর কমান্ডার খালেদ মোশাররফ হত্যার বিচার দাবি করেন এবং এ হত্যাকা-ের জন্য জিয়াউর রহমানকে দায়ী করেন।

ডেপুটি স্পীকার এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বে রবিবার সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তারা এসব কথা বলেন। আলোচনায় আরও অংশ নেন সরকারী দলের এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, এ কে এম রহমতুল্লাহ, মহিবুর রহমান মানিক, ফিরোজা বেগম চিনু, মাহজাবিন খালেদ, ইফতিকার উদ্দিন তালুকদার পিন্টু, শরিফ আহমেদ, দিলারা বেগম, জাসদের লুৎফা তাহের।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা আর নিজেকে দুর্নীতির মামলা থেকে রক্ষায় বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া হুকুম দিয়ে পুড়িয়ে শত শত মানুষ হত্যা করেছেন। নারী-শিশু কেউ-ই রেহাই পাচ্ছেন না। খালেদা জিয়া আর কত মানুষের বুক খালি করতে চান। অবিলম্বে তাকে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে হবে, বাংলার মানুষ তার বিচার চায়। সরকার পরিবর্তনের একমাত্র পথ হচ্ছে নির্বাচন। পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতা দখলের দিন শেষ হয়ে গেছে।

এ কে এম রহমতুল্লাহ বলেন, দেশের গণশত্রু বিএনপি-জামায়াত দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির ধারাকে ব্যাহত করতে নতুন ষড়যন্ত্র করছে। রাজপথে না থেকে চোরাগোপ্তা পেট্রোলবোমা মেরে মানুষকে হত্যা করছে। জনগণকে সঙ্গে নিয়েই আমরা এসব গণশত্রুকে মোকাবেলা করব।

মুহিবুর রহমান মানিক বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার কঠোর সমালোচনা করে বলেন, জনবিচ্ছিন্ন হয়ে খালেদা জিয়া জঙ্গী ও বোমা নেত্রীতে পরিণত হয়েছেন। দেশের এত উন্নয়ন ও অগ্রগতিই যেন কাল হয়েছে। এ জন্যই বিএনপি নেত্রী সবকিছু ধ্বংস করে দিতে যেভাবে দেশের নিরীহ মানুষকে হত্যা করছেন, মানুষের জীবন নিয়ে খেলছেন- সেদিন বেশি দূরে নয় জনগণের ক্ষোভের আগুনে তিনিই নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবেন।

মাহজাবিন খালেদ তার পিতা সেক্টর কমান্ডার মেজর জেনারেল খালেদ মোশাররফ বীরউত্তমের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের অন্যতম ষড়যন্ত্রকারী ছিলেন জিয়াউর রহমান। এই জিয়াউর রহমানের নির্দেশেই ঠা-া মাথায় খালেদ মোশাররফ বীরউত্তম, মেজর হায়দার বীরউত্তমদের হত্যা করা হয়েছিল। বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের ষড়যন্ত্রকারী ছিলেন বলেই খুনী মোশতাক জিয়াকে সেনাবাহিনী প্রধান করেছিল। সেই জিয়ার স্ত্রী খালেদা জিয়া এখন জামায়াতকে সঙ্গে নিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করছেন। বাংলাদেশের সর্বনাশ ঘটানোর পণ করেছেন।

ইফতিকার উদ্দিন তালুকদার পিন্টু বলেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার জনগণের কোন প্রয়োজন নেই, উনার দরকার ক্ষমতা, রাজ সিংহাসন। এ কারণেই তিনি মানুষ হত্যা করে দেশকে অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিতে চাইছেন। বিক্ষুব্ধ জনগণ গুলশান কার্যালয় ঘেরাও করে তার বিচার করবে।

প্রকাশিত : ৯ মার্চ ২০১৫, ০১:০৩ এ. এম.

০৯/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: