আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিএনপি কখনও অগণতান্ত্রিক পন্থাকে স্বীকৃতি দেয়নি

প্রকাশিত : ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫, ০১:৪৩ এ. এম.
  • গায়েবি বিবৃতিতে দাবি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপি কখনও দেশে অগণতান্ত্রিক পন্থাকে স্বীকৃতি দেয়নি। সেনাবাহিনী নিয়েও কখনও কোন বিতর্কে জড়াতে চায় না। বরং আওয়ামী লীগের স্বৈরতান্ত্রিক, একনায়কতান্ত্রিক ও নৈরাজ্যকর মানসিকতা ও কর্মকা-ের কারণেই প্রতিবার অগণতান্ত্রিক শক্তির উদয় হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। সোমবার দলের যুগ্ম-মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদের নামে প্রেরিত অজ্ঞাত স্থান থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘উত্তরপাড়ার ক্ষমতা দখলে’র আশঙ্কা প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বরং রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানেরই সম্মানহানি করেছেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে দখলকৃত অবৈধ ক্ষমতা হারানোর শঙ্কা ও আসন্ন নির্মম পরিণতির ভাবনার কথাই প্রকাশিত হয়েছে।

সালাহউদ্দিনের ওই গায়েবি বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয়, আওয়ামী লীগ-জামায়াত-জাতীয় পার্টির দাবি মেনে নিয়ে ১৯৯৫-৯৬ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা করতে বিএনপি সংবিধান সংশোধন করেছিল। আওয়ামী লীগ ক্ষমতা দখলের সুবিধার্থে সেই ব্যবস্থা বাতিল করে পঞ্চদশ সংশোধনীর মাধ্যমে ভবিষ্যত সংসদের ক্ষমতা হরণ করেছে। সংবিধানের দোহাই দিয়ে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত থাকাও বেআইনী। কোন সংবিধানই অপরিবর্তনযোগ্য নয়।

বিএনপির এই মুখপাত্র বিবৃতিতে উল্লেখ করেন, প্রধানমন্ত্রী রবিবার উত্তরপাড়ার ক্ষমতা দখলের আশঙ্কা প্রকাশ করে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের সম্মানহানি করেছেন। জনগণ জানে আওয়ামী লীগের পক্ষে তিনি ১৯৮২ সালে সামরিক সরকারকে স্বাগত জানিয়েছিলেন। ১৯৮৬ সালে সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে সপ্তম সংশোধনীর মাধ্যমে এরশাদের স্বৈরশাসনকে বৈধতা দেন। ২০০৭ সালের মইন-ফখরুদ্দিনের মাধ্যমে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকে স্বাগত জানিয়েছেন। ১/১১’র সরকারের সকল কর্মকা-ের বৈধতা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েই আওয়ামী লীগ ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়।

বিবৃতিতে সালাহউদ্দিন আরও বলেন, রক্ষীবাহিনী স্টাইলে প্রধানমন্ত্রী র‌্যাব-পুলিশ-বিজিবিকে গণহত্যার হুকুম দিয়ে তার দায়ভার নিজের কাঁধে নিলেও কেউই গণহত্যার বিচার থেকে রেহাই পাবে না। প্রতিটি হত্যাকা-ের হিসাব রাখা হচ্ছে। সময়ের পরিবর্তন হলে প্রতিটি হত্যাকা-ের জন্য দায়ী ব্যক্তিদের উপযুক্ত আদালতে বিচারের আওতায় আনা হবে। আজ প্রত্যেক ঘরে গণতন্ত্রের মুক্তি আন্দোলন গড়ে উঠেছে। অবরুদ্ধ ও বিলুপ্তপ্রায় গণতন্ত্রের মুক্তির সংগ্রাম ভোটাধিকার, মৌলিক মানবাধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামের বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত জনগণের ন্যায্য আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

বিবৃতিতে সালাহউদ্দিন দাবি করেন, বিএনপি গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। বহুদলীয় গণতন্ত্রের পুনঃপ্রতিষ্ঠাকারী দেশের একটি নিয়মতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। অগণতান্ত্রিক কোন পন্থাকে বিএনপি কখনও স্বীকৃতি দেয়নি। আজ রাষ্ট্রীয় শ্বেতসন্ত্রাস ও গণহত্যার বিরুদ্ধে গণশক্তির বহুমাত্রিক উত্থান হয়েছে। সেই গণশক্তির প্রচ- সুনামিতে আওয়ামী লীগের অবৈধ ক্ষমতার মসনদ ভেসে যাবে অচিরেই। নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের দরজা বন্ধ করে, বাক ও ব্যক্তি স্বাধীনতা হরণ করে এবং নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার বাজেয়াপ্ত করে শুধু বন্দুকের নল ব্যবহার করে অবৈধ সরকার অগণতান্ত্রিক শক্তি ও উগ্রবাদকে উৎসাহিত করছে। যার পরিণামে গণতন্ত্রের যাত্রা ব্যাহত হলে তার দায় সরকারকেই নিতে হবে।

তিনি বলেন, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে হত্যার উদ্দেশ্যে রিমান্ডের নামে নির্যাতন চালানো হচ্ছে। গত ৩০ জানুয়ারি গ্রেফতারের পর এখন পর্যন্ত কারাগারে পাঠানো হয়নি। হত্যার উদ্দেশ্যে দীর্ঘ ২৩ দিন পর্যন্ত রিমান্ডের নামে দিনরাত অসহনীয় মানসিক ও বিভিন্ন কায়দায় সীমাহীন নির্যাতন করা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫, ০১:৪৩ এ. এম.

২৪/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: