আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এ্যানী-টুকুর পদত্যাগ দাবি ছাত্রদলের পদবঞ্চিতদের

প্রকাশিত : ১২ নভেম্বর ২০১৪
  • বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না করলে আন্দোলনের হুমকি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ছাত্রদলের পদবঞ্চিত ৫ নেতা কারণ দর্শাও নোটিসের জবাব দিয়েছেন। মঙ্গলবার বিকেলে তাঁরা বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর কাছে কারণ দর্শাও নোটিসের জবাব দেন। এ সময় তারা ছাত্রদলের ৩ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না করলে আবারও আন্দোলন কর্মসূচী পালনের হুমকি দেন। তারা নতুন কমিটি গঠনের সঙ্গে জড়িত বিএনপির ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী ও সহসম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর পদত্যাগ ও ছাত্রদলের নতুন কমিটি বাতিলের দাবি জানিয়ে রিজভীর কাছে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, তা না করা হলে উদ্ভূত পরিস্থিতির জন্য পদবঞ্চিতরা দায়ী থাকবে না।

কারণ দর্শাও নোটিসের জবাব দেয়ার পর বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ছাত্রদলের সাবেক সহসভাপতি জাবেদ হোসেন স্বাধীন। তিনি বলেন, অবিলম্বে আমাদের দাবি মেনে নিতে হবে। তা না হলে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে অবিলম্বে পরবর্তী কর্মসূচী দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, দলীয় শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকা- ও ছাত্রদলের নতুন কমিটির বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার অভিযোগ এনে সোমবার বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিএনপি ও ছাত্রদল থেকে তিন নেতাকে বহিষ্কার করা হয়। একই সঙ্গে ৫ নেতাকে কারণ দর্শাও নোটিস দিয়ে মঙ্গলবার বিকেল ৫টার মধ্যে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সশরীরে হাজির হয়ে এ নোটিসের জবাব দিতে বলা হয়। বহিষ্কৃতরা হলেন ছাত্রদলের টুকু-আলিম নেতৃত্বাধীন কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন ও গত কমিটির সহসভাপতি আবু সাইদ খোকন, বর্তমান কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী রেজওয়ানুল হক রিয়াজ। আর কারণ দর্শাও নোটিসপ্রাপ্তরা হলেন ছাত্রদলের সাবেক সহসভাপতি জাভেদ হোসেন স্বাধীন, তরুণ দে, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক তরিকুল ইসলাম টিটু, ফেরদৌস আহমেদ মুন্না এবং সাবেক সহসাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রয়েল। কারণ দর্শাও নোটিসের প্রেক্ষিতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই তারা বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে এর জবাব দেন।

এর আগে বিকেল ৪টার আগেই ছাত্রদলের পদবঞ্চিত ও বহিষ্কৃতরা নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিচতলায় গিয়ে অবস্থান করেন। এক পর্যায়ে তারা বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে পদবঞ্চিতদের বহিষ্কার বাতিল ও ছাত্রদলের কমিটি বাতিলের দাবিতে মিছিল করেন। তাদের সেøাগানের ভাষা ছিল ‘ছাত্রদলের নেতাদের বহিষ্কার মানি না, মানব না।’ ‘এ্যানি-টুকুকে পদত্যাগ করতে হবে করতে হবে।’ মিছিলে ২ শতাধিক নেতাকর্মী অংশ নেন।

এ সময় ছাত্রদলের সাবেক সহসভাপতি আবু সাঈদ খান খোকন সাংবাদিকদের কাছে বলেন, বিএনপির ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি ও সহ-ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু ছাত্রদলের বিদ্রোহীদের অসাংগঠনিক প্রক্রিয়ায় বহিষ্কার করেছেন। টুকু ও এ্যানি সরকারের এজে-া বাস্তবায়ন করছেন। এ কারণে তারা অসাংগঠনিক ক্রিয়ায় ছাত্রদলের নেতাদের বহিষ্কার করেছেন। এর প্রতিবাদে অবশ্যই কর্মসূচী দেয়া হবে। তবে বহিষ্কারের বিষয়ে কি সিদ্ধান্ত হয় তা দেখে এরপর কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে।

এদিকে ছাত্রদল নেতারা কারণ দর্শাও নোটিসের জবাব দিয়ে আসার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে রুহুল কবির রিজভী বলেন, সরকার যতই চক্রান্ত করুক না কেন বিএনপি তাদের কোন ষড়যন্ত্রের ফাঁদে পা দেবে না। তিনি বলেন, সরকার সুকৌশলে দুষ্কর্মের সঙ্গে লিপ্ত আর এটাই তাদের চরিত্র। তবে সরকারের সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে ঐক্যবদ্ধ বিএনপি। ছাত্রদলের বহিষ্কৃত নেতাকর্মীদের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ছাত্রদলের সাংগঠনিক গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে।

প্রকাশিত : ১২ নভেম্বর ২০১৪

১২/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: