১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

দিল মনোয়ারা মনুর মৃত্যুতে আর্টিকেল নাইনটিন’ শোক

প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:৪২ পি. এম.
দিল মনোয়ারা মনুর মৃত্যুতে আর্টিকেল নাইনটিন’ শোক

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ বিশিষ্ট সাংবাদিক, কলামিস্ট, ‘পাক্ষিক অনন্যা’র সাবেক নির্বাহী সম্পাদক ও সাংবাদিক নেতা দিল মনোয়ারা মনুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন আর্টিকেল নাইনটিনের বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ফারুখ ফয়সল। তিনি মনে করেন দিল মনোয়ারা মনুর চার দশকের বর্ণাঢ্য সাংবাদিকতা জীবন বাংলাদেশের নারী সাংবাদিকদের চলার পথের পাথেয় হিসেবে কাজ করবে।

স্কুল জীবন থেকেই দিল মনোয়ারা মনুর লেখালেখির শুরু। দৈনিক বাংলার বাণী প্রকাশিত হবার পর থেকে সেখানে নিয়মিত ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করতেন। লেখালেখির এই সূত্র ধরে ১৯৭৪ সালে ‘বেগম’ পত্রিকার সহসম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।নারী সাংবাদিকতার পথিকৃৎ নূরজাহান বেগম ও কবি সুফিয়া কামালের ঘনিষ্ঠ সহচর ছিলেন তিনি। ।১৯৮৮ সালে নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে তিনি যোগ দেন ‘পাক্ষিক অনন্যা’য়। ২৫ বছর সেখানে কর্মরত ছিলেন।মৃত্যুর আগ পর্যন্ত দেশের অধিকাংশ প্রিন্ট মিডিয়ায় তিনি ফ্রিল্যান্সার হিসেবে লেখালেখি করেছেন।

দিল মনোয়ারা মনু নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সহসভাপতি ও বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির গণমাধ্যমবিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। এ ছাড়া ব্রেকিং দ্যা সাইলেন্স, কেন্দ্রীয় কচিকাঁচার মেলাসহ বেশকিছু সংগঠণের সাথে যুক্ত ছিলেন। নারী আন্দোলনসহ বিভিন্ন প্রতিবাদ-আন্দোলনে তাঁর সরব উপস্থিতি ছিল। শারীরিক অসুস্থতা নিয়েও তিনি নারী ও মানবাধিকার ইস্যুর আন্দোলনে শামিল হতেন।

সাংবাদিকতায় অবদান রাখায় দিল মনোয়ারা মনু, বুলবুল ললিতকলা একাডেমী, ফেডারেশন অব ইউমেন, ইনার হুইল ক্লাব, পাক্ষিক অনন্যা, নন্দীনি সাহিত্য সংসদ, কেন্দ্রীয় কচি-কাঁচার মেলা প্রভৃতি সংগঠণ থেকে বিভিন্ন সময়ে পুরস্কৃত হয়েছেন।

নারী সাংবাদিকদের সুরক্ষায় আর্টিকেল নাইনটিনের বিভিন্ন কর্মকান্ডে স্বক্রিয় ভূমিকা রেখেছেন দিলমনোয়ারা মনু। আর্টিকেল নাইনটিন মনে করে, বাংলাদেশে নারী সাংবাদিকতার প্রসার ও পেশাদারিত্বের ভীত শক্ত করতে দিল মনোয়ারা মনুর অবদান অনুসরণ করবে আগামীর সাংবাদিকরা।

প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:৪২ পি. এম.

১৪/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: