রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘অনেক উন্নত দেশ অর্থ পাচারকে উৎসাহিত করছে’

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫, ০৬:২৩ পি. এম.

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ অনেক উন্নত দেশ অর্থের বিনিময়ে নাগরিকত্ব দেওয়ার নামে অর্থ পাচারকে উৎসাহিত করছে বলে অভিযোগ করলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনসহ বিভিন্ন বিষয়ে আমরা অর্থায়নের চেষ্টা করছি, উন্নত দেশগুলোর প্রতিশ্রুতির এক চতুর্থাংশও আমরা পাচ্ছি না। এই বিষয়গুলো আমরা আদ্দিস আবাবা সম্মেলনে তুলে ধরবো।

বুধবার বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত ‘জাতিসংঘ আদ্দিস আবাবা সম্মেলন ২০১৫: উন্নয়নের জন্য অর্থায়ন ও অবৈধ অর্থ পাচার রোধ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব অভিযোগ করেন। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইক্যুইটিবিডি’র সৈয়দ আমিনুল হক।

ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের অধ্যাপক আবু আহমেদ বলেন, দেশে ৬% হারে জিডিপি বাড়লেও এর সুফল বেশির ভাগ মানুষই পাচ্ছে না। আয় বৈষম্য প্রকট। ক্ষমতা এবং দুর্নীতির সম্পর্ক শক্তিশালী, সুশাসন নেই ফলে অর্থ পাচার হচ্ছে। এর অবসানে আন্তর্জাতিক উদ্যোগের দাবি করতে হবে, পাশাপাশি দেশের অভ্যন্তরেও সুশাসন নিশ্চিত করতে হবে।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশে উন্নত দেশ থেকে যে পরিমাণ অর্থ আসে, তার থেকে যেন কম পরিমাণ অর্থ বাইরে যায় সেটা নিশ্চিত করতে হবে।

মূল প্রবন্ধে সৈয়দ আমিনুল হক বলেন, এমডিজি অর্জনের ক্ষেত্রে অর্থায়নের ব্যাপারে উন্নত দেশগুলো যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল সেটা তারা পূরণ করেনি। কয়েকটি দেশ ছাড়া কেউই প্রতিশ্রুত মোট জাতীয় আয়ের ০.৭ % এমডিজি অর্জনে গরিব দেশগুলোকে সহায়তা করেনি।

এছাড়া কার্যকর কর ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার জন্য জাতিসংঘের নেতত্বে বৈশ্বিক উদ্যোগ, আর্থিক লেনদেনে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার জন্যে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর, বহুজাতিক কোম্পানির অডিট রিপোর্ট জনসমক্ষে প্রকাশ করা ও বৈষম্যমূলক বাণিজ্য ব্যবস্থার অবসানের দাবি করা হয় সেমিনারে।

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫, ০৬:২৩ পি. এম.

২৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: