মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ঈদ পোশাকে নতুনত্ব

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫

গতানুগতিক ধারার বাইরে এবারের ঈদ পোশাকে থাকছে নতুনত্ব। শাড়ি, পাঞ্জাবি, সালোয়ার কামিজে থাকছে চোখে পড়ার মতো। দেশীয় পোশাকের চাহিদা এবং পরিমান দুটোই এবার বেশি। ডিজাইনে পরিবর্তন এসেছে পশ্চিমা ধাচের পোশাক শেরওয়ানি, পাঞ্জাবী এবং শর্ট পাঞ্জাবীর ডিজাইন এবারে অতুলনীয়। সালোয়ার কামিজ থাকছে আবহাওয়া উপযোগী কাপড়ের সঙ্গে ম্যাচ করে ভারি কাজ। শাড়িতেও তাই। অন্যান্য অনুষঙ্গ ও থাকছে ম্যাচ করে।

শাড়ি

দেশীয় শাড়ির মধ্যে সর্বাধিক চাহিদা হলো টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ি ও জামদানি শাড়ির। এর পাশাপাশি মিরপুরের বেনারসি, কাতানের রয়েছে বিপুল সমাদর। জর্জেট, অর্গেসুতা, কামিতভরমসহ অভিজাত নামের সব বাহারি শাড়ি ও বিভিন্ন ড্রেস হাউসে। তবে এক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ি। টাঙ্গাইলের শাড়িতে সাম্প্রতিক ডিজাইনের বৈচিত্র্য এবং সহনীয় দাম নারীদের এই শাড়ির প্রতি আকৃষ্ট হওয়ার অন্যতম মূল কারণ। সুতি, সিল্ক, হাফসিল্কসহ নানা নামের টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ি ঈদের সময় থাকে নারীর কালেকশন লিস্টের শীর্ষে। এর পরই থাকে জামদানি এবং মিরপুরের বেনারসি-কাতান। জামদানি কিছুটা বেশি দামের হলেও মিরপুরের বেনারসি-কাতানের দামটাও রয়েছে নাগালের মধ্যে।

সালোয়ার কামিজ

মেয়েদের নিত্য ব্যবহার্য পোশাক সালোয়ার কামিজ ঈদে আনে বৈচিত্র্যতা। পাজামা, ওড়না ও কামিজের ভিন্নধর্মী নকশা সালোয়ার কামিজকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলে যা সহজেই দৃষ্টি কাড়ে ক্রেতাদের । ভয়েল, পপলিন, প্রিন্ট, আদ্দি কটন, কটন জর্জেট, টিসি সিনথেটিক কালার ইত্যাদি কাপড়ের সমন্বয়ে এবার প্রস্তুত হয়েছে সালোয়ার কামিজ। (আবহাওয়াকে প্রাধান্য দিয়ে সালোয়ার কামিজের কাপড় সিলেকশন করা হয়েছে। সালোয়ার কামিজের পাশাপাশি ওড়নার বৈচিত্র্য এবার লক্ষণীয়, এর কাটিং ডিজাইন এবং লেআউটে রয়েছে ভিন্নতা। সুতার কাজ, ক্রিস্টাল, মেটাল আইটেম এবং কড়ি দিয়ে ডিজাইন করা হয়েছে সালোয়ার কামিজ এবং ওড়নায়)তাছাড়া শিপন জর্জেটের স্ট্রাইপ পাঠানের হেভি কাজের সালোয়ার কামিজ প্রচুর উঠেছে বাজারে। স্টোন এবং স্ট্রিং পাইপের ডিজাইনের সালোয়ার কামিজ এবার বাজারে বেশ। সুতি কাপড়ের চাহিদাও এবার বেশ রয়েছে।

শর্ট শার্ট,টি-শার্ট

এখন বিভিন্ন ব্র্যান্ডের শার্ট যেখানে প্রচুর পাওয়া যাচ্ছে ঠিক সেখানেই টি-শার্টও পাওয়া যাবেÑতরুণরা তো এখন নিজের পছন্দকেই বেশি প্রাধান্য দেয়। এখন দিন বদলেছে,সঙ্গে বদলেছে তরুণদের মন, রুচি। তাই তাদের কথা মাথায় রেখেই আমরা নতুন ডিজাইনের টি-শার্টের ওপর গুরুত্ব দিচ্ছি।

কোথায় যাওয়া যাবেÑশর্ট শার্ট এবং টি-শার্ট পাওয়া যাবে শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটের প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় তলায়। মালিবাগ, মগবাজার রোডের বিভিন্ন শো-রুমে। বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স, নিউমার্কেট, গ্লোব শপিং সেন্টার, মিরপুর-১০, এলিফ্যান্ট রোড এবং বিভিন্ন অভিজাত শপিং মলগুলোতে।

দাম- নিউমার্কেটে শর্ট শার্ট হাফ হাতা এবং ফুল হাতার দাম পড়বে যথাক্রমে ৩৫০-৭০০ টাকা। ইজি-৬৫০-৯০০ টাকা। ক্রে-ক্যাফ্ট ৬০০-১২০০ টাকা। প্লাস পয়েন্ট নির্ধারণ করেছে ৭০০-১০০০ টাকা। ক্যাটস আই-১২০০ টাকা। টি শার্টগুলো বিভিন্ন জায়গায় বা শো-রুমে কম বেশি ১৮০ টাকা থেকে ২৮০ টাকায় পাওয়া যাবে।

ফ্যাশন ডেস্ক

ছবি : রুদ্র ইউসুফ

প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৫

১২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: