আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিশ্বের প্রভাবশালী তারুণ্য

প্রকাশিত : ৫ মে ২০১৫

টাইম ম্যাগাজিন সম্প্রতি সম-সাময়িক বিশ্বের নানা অঙ্গনে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের নিয়ে একটি সংখ্যা প্রকাশ করে। প্রভাবশালী এমন এক শ’ ব্যক্তির মাঝে স্থান করে নিয়েছে বেশ ক’জন তরুণ-তরুণী। প্রযুক্তি, ব্যবসায়, মানবাধিকার, চিকিৎসাসহ ভিন্ন সব অঙ্গনের এমন তরুণদের গল্প নিয়ে তৈরি এ প্রতিবেদন। লিখেছেনÑ কামরুল হাসান

টিম কুক

এ্যাপেল প্রতিষ্ঠানের বর্তমান নির্বাহী টিম কুকের জন্য শুরুতে পথচলা এত সহজ ছিল না। কারণ স্টিভ জবস’র মতো এমন উদ্ভাবনী ব্যক্তির ছায়া থেকে বেরিয়ে আসা এতটা সহজ নয়। কিন্তু টিম কুক বরাবরের মতোই সাহসী ও উদ্যমী। এ্যাপেলে স্টিভের শূন্যতা টিম বেশ পরিপক্কতার সঙ্গেই পূরণ করে। অল্প সময়ের ব্যবধানেই বেশ লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপ নেয় এ্যাপল। পাশাপাশি ভোক্তাদের গোপনীয়তা ও নবায়নযোগ্য জ্বালানিতে তার অবদানও অবিস্মরণীয়। টিম বর্তমান বিশ্বে ব্যবসার নতুন সংজ্ঞা দাঁড় করিয়েছেন। কেবল মুনাফার দিকে নজর না দিয়ে শুদ্ধ ও সম্পূর্ণতার দিকেও নজর দিয়েছেন। নবায়নযোগ্য জ্বালানির মাধ্যমে কুক আগামী প্রজন্মের জন্য সবুজ বিশ্ব গড়ার প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেন।

এলিজাবেথ হোলম্স

এলিজাবেথ হোলম্সের গল্প কেবল যুক্তরাষ্ট্রেই সম্ভব। কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের পর এই তরুণীর ধ্যান-জ্ঞান ছিল কিভাবে জনগণের মাঝে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়া যায়। জনগণের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় নিজেকে ব্রত রেখেছিলেন এই তরুণী। এলিজাবেথের এমন স্বপ্ন শুনে অনেকেই তা কেবল স্বপ্নচারিণী আখ্যা দিয়েছিল। কিন্তু এলিজাবেথ দমে যাওয়ার পাত্র ছিল না। এলিজাবেথ জানত তার স্বপ্নের কোন মাঝামাঝি ফলাফল নেই। হয় বিশাল, সাফল্য নয়তো চরম ব্যর্থতা।

এলিজাবেথ একটি পার্থক্য তৈরি করতে চেয়েছিলেন। নিজের স্বপ্ন পূরণের জন্য যতটুকু দৃঢ়তা, সবটাই উজার করে ছিলেন এ তরুণী। খুব অল্প খরচে ব্লাড টেস্ট ও চিকিৎসার অন্যান্য আনুষঙ্গিক খরচ কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছিলেন। সমাজের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝেও নিজের এ উদ্ভাবনী কৌশল ছড়িয়ে দিতে সক্ষম হন এ নারী। বর্তমানে থেরন প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী পরিচালক এলিজাবেথ। স্নাতক পর্যায়ের একটি স্বপ্নকে বিশ্বময় ছড়িয়ে দেয়ার মাধ্যমে স্থান করে নিয়েছেন প্রভাবশালীদের তালিকায়।

সাটয়া নাভেলা

সাটয়া নাভেলা বিখ্যাত সফটওয়ার কোম্পানি মাইক্রোসফটের নির্বাহী পরিচালক। তাঁর হাত ধরেই মাইক্রোসফট পুনরায় নিজ অবস্থানে ফিরে আসে। বিগত দশকগুলোতে সফটওয়ার ইন্ডাস্ট্রির একচ্ছত্র নিয়ন্ত্রক ছিল মাইক্রোসফট। কিন্তু মোবাইল ও অন্যান্য প্রযুক্তির বিকাশে সে অবস্থান হতে কিছু পিছিয়ে পড়ে প্রতিষ্ঠানটি। দীর্ঘদিন মাইক্রোসফটে কর্তব্যরত সাটয়া নির্বাহী নির্বাচিত হওয়ার পর নতুন উদ্যোমে ঢেলে সাজান প্রতিষ্ঠানটি। অতীতের সব নিয়মনীতি ভেঙ্গে বৈপ্লবিক পরিবর্তনের মাধ্যমে নতুন দর্শনে পরিচালিত করেন। অত্যন্ত অল্প সময়ের মধ্যেই মাইক্রোসফটের বাজারকে সম্প্রসারিত করেন ও অতীতের সকল প্রতিবন্ধকতা দূর করেন। সাটয়া সম্ভবত তরুণদের জনপ্রিয় চলচ্চিত্রের মতোই এমন এক কিশোর চরিত্র, যে পরিবারের বয়োজ্যেষ্ঠদের অনুপস্থিতিতে ঘরের নিয়ন্ত্রণ নেয়। যা ভাবতেই অসাধারণ লাগে।

এ্যামা ওয়াটসন

হ্যারি পটার সিরিজের অভিনেত্রী এ্যামা ওয়াটসন বিশ্বব্যাপী বেশ পরিচিত এক মুখ। সম্প্রতি এ অভিনেত্রী নারী অধিকার নিয়ে বেশ আলোচিত হয়েছেন। জাতিসংঘের সদর দফতরে নারীর অধিকার নিয়ে এক বক্তব্যে এ তরুণী বেশ জোরালো বক্তব্য রাখেন। আয়োজিত সে অনুষ্ঠানে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় পুরুষদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এ্যামা ওয়াটসন রাজনৈতিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক প্রতিটি ক্ষেত্রে লিঙ্গ সমস্যার আহ্বান জানান। এছাড়া হলিউডে নারী পরিচালকের অনুপস্থিতিও তাঁকে বেশ কষ্ট দেয়। মাত্র নয় বছর বয়সে এ্যামা হ্যারি পটার সিরিজের হারমেইন চরিত্রের জন্য মনোনীত হয়েছিলেন। ব্রাউন ইউনিভার্সিটির ইংরেজী সাহিত্য স্নাতক পাস করা এ্যামা অভিনয় জীবনের বাহিরে বিশ্বব্যাপী নারী অধিকার ও আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেন।

চায় জিং

চায় জিং পেশায় একজন সাংবাদিক। সম্প্রতি তাঁর পরিবেশ নিয়ে তৈরি করা ডকুমেন্টারি বেশ আলোড়ন তোলে চীনে। পরিবেশ বিপর্যয় নিয়ে তৈরি করা এই ডকুমেন্টারি ব্যাপক প্রশংসিত হয়। এই ফিল্ম রিলিজ হওয়ার একদিন পর প্রায় ২০০ মিলিয়ন দর্শক ছবিটি প্রত্যক্ষ করে। অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার মাধ্যমে চায় প্রথমবারের মতো সাধারণত চীনাদের যে কোন বিষয়ের বিতর্কে অংশগ্রহণ করতে উদ্বুদ্ধ করেছে। পরিবেশ দূষণ নিয়ে তাঁর তৈরি করা ডকুমেন্টারি বর্তমানে সাধারণ চীনাদের মনে ব্যাপক পরিবেশ সচেতনতা তৈরি করেছে।

প্রকাশিত : ৫ মে ২০১৫

০৫/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: