মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভোটারদের দ্বারে দ্বারে দুই মেয়র প্রার্থী

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫
  • চলছে নির্ঘুম গণসংযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে ভোটারদের মধ্যেও মেরুকরণ ততই স্পষ্ট হচ্ছে। ফলে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের গণসংযোগে কর্মীদের পাশাপাশি সমর্থকদের অংশগ্রহণও বাড়ছে। নগরীর অলিগলিতে চলছে প্রচার। প্রার্থীদের সমর্থনে অসংখ্য গ্রুপ বিভিন্ন এলাকায় নেমে পড়েছে। দোয়া ও আশীর্বাদ চাইছেন পছন্দের প্রার্থীর জন্য। বড় দু’দলের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের নেতাদের হাতে হাতে প্রচারপত্র। তারা নানা অঙ্গীকার সংবলিত লিফলেট দিচ্ছেন ভোটারদের হাতে হাতে। প্রচার ক্রমেই জমজমাট রূপ লাভ করছে। প্রচারের জন্য সময় আর মাত্র চার দিন। ফলে প্রার্থীদের সময় কাটছে নির্ঘুম। ভোট প্রার্থনায় তাঁরা সকলেই চষে বেড়াচ্ছেন সর্বত্র। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন মঙ্গলবার গণসংযোগ করেন নগরীর আন্দরকিল্লা ও সংলগ্ন এলাকায়। তাঁর পৈত্রিক বাড়িও সেখানে। ফলে গণসংযোগে কর্মী-সমর্থকদের অংশগ্রহণ ছিল অত্যাধিক। গণসংযোগের ফলে পুরো আন্দরকিল্লা এলাকায় অন্যরকম এক আবহের সৃষ্টি হয়। অলিগলিতে যোগ দেন তরুণ থেকে শুরু করে বৃদ্ধ পর্যন্ত বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ। সকাল ১০টায় তিনি গণসংযোগ শুরু করেন। মোমিন রোড, রাজাপুর লেন, সিরাজুদ্দৌলা রোড, চেরাগী পাহাড়, জামালখান রোডসহ বিভিন্ন এলাকায় যান তিনি। আ জ ম নাছিরের সঙ্গে এ সময় ছিলেন- চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাবেক এমপি নুরুল ইসলাম বিএসসি ও খোরশেদ আলম সুজন, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক নোমাল আল মাহমুদ, আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী এবং আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, অনেক প্রত্যাশায় অতীতেও মানুষ ভোট দিয়েছে। কিন্তু তাদের সে প্রত্যাশা পূরণ হয়নি। নাগরিকরা তাই পরিবর্তন চায়। তিনি বলেন, পুরো নগরীতে আমার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। নির্বাচনে আমি জয়লাভ করব। অতীতে নির্বাচনী ইশতেহারে অঙ্গীকার করেও মেয়র মনজুর আলম সে অঙ্গীকার বাস্তবায়ন করতে পারেননি। ফলে মেয়রের চেয়ারে সাধারণ মানুষ নতুন মুখ দেখতে চায়। তিনি মেয়র নির্বাচিত হলে সতের বছরের মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালনা করবেন বলে উল্লেখ করেন। চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের প্রার্থী সাবেক মেয়র এম মনজুর আলমের পক্ষ থেকে আনা বিভিন্ন অভিযোগ প্রসঙ্গে আ জ ম নাছির বলেন, জনগণকে বিভ্রান্ত করতেই তিনি আমার বিরুদ্ধে পেশীশক্তি আশঙ্কাসহ নানা অভিযোগ তুলছেন। আ জ ম নাছির উদ্দিন চেরাগী পাহাড় এলাকায় দৈনিক আজাদী পত্রিকা অফিসে যান। সেখানে তিনি আজাদী সম্পাদক এমএ মালেকের পা ছুঁয়ে সালাম করে দোয়া চান। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোহবান চৌধুরী ও বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল। আন্দরকিল্লা এলাকায় গণসংযোগ শেষে বিকেলে তিনি নগরীর শুলকবহর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেন।

এদিকে, বিএনপি সমর্থিত চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী এম মনজুর আলম মঙ্গলবার গণসংযোগ করেন নগরীর বাগমনিরাম ওয়ার্ড, কাজিরদেউড়ি, দামপাড়া, মেহেদীবাগ, গোলপাহাড়, জিইসি মোড়, নাসিরাবাদ ও প্রবর্তক মোড় এলাকায়। এ সময় তিনি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন নিয়ে তাঁর শঙ্কার কথা ব্যক্ত করেন। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গত সোমবার ঢাকায় বেগম জিয়ার পথসভায় ছাত্রলীগ ও আওয়ামী যুবলীগ যে হামলা ও তা-ব চালিয়েছে তাতে করে কর্মী-সমর্থক এমনকি সাধারণ ভোটাররাও আতঙ্কে রয়েছেন। মেয়র প্রার্থী এম মনজুর আলম মঙ্গলবার কাজিরদেউড়ি এলাকায় তাঁর গণসংযোগ শুরু করেন বেলা সোয়া ১১টার দিকে। এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন- বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, নগর বিএনপির সহসভাপতি শামসুল আলম, বিএনপি নেতা ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের নেত্রী ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম মনি এবং স্থানীয় নেতারা।

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫

২২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: