আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মেধাবী ছাত্রীকে সহায়তা করায় জামায়াত শিবিরের রোষানলে ব্যাংক কর্মকর্তা

প্রকাশিত : ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দরিদ্র এক মেধাবী ছাত্রীকে মানবিক কারণে সহায়তা করার সূত্র ধরে জামায়াত-শিবিরের রোষানলে পড়েছেন বলে থানায় অভিযোগ করেছেন এক সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা।

রবিবার রমনা মডেল থানায় শেখ মোঃ লুৎফর রহমান নামের ওই ব্যাংক কর্মকর্তা অভিযোগটি করেন। তাঁর পিতার নাম মৃত শেখ মোঃ মফিজ উদ্দিন। বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি থানাধীন টেরকী গ্রামে। তিনি সোনালী ব্যাংকের কাওরানবাজার শাখায় হিসাব বিভাগের কর্মকর্তা। বসবাস করছেন রমনা মডেল থানাধীন মগবাজারের ডেভেলপার কোম্পানী ট্রপিক্যাল হোমস লিমিটেডের তৈরি ৩৩৭ নম্বর রাহাত টাওয়ারে। রমনা থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে বলা হয়, অভাবের কারণে ২০০৮ সালে তাঁর গ্রামের দরিদ্র আব্দুর রাজ্জাকের মেধাবী ছাত্রী রেজিয়ার পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যায়। তিনি গ্রামবাসীর অনুরোধে ও আর্থিক সহায়তায় মানবিক কারণে মেয়েটিকে শেষ পর্যন্ত ঢাকার শ্যামলী আশা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফার্মেসী বিভাগে ভর্তি করতে সক্ষম হন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও দরিদ্র মেধাবী ছাত্রী হিসেবে রেজিয়াকে নানাভাবে সহায়তা করতে থাকে। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন মেধাবী ছাত্রী হিসেবে রেজিয়া জামায়াত-শিবিরের নজরে পড়ে। শেষ পর্যন্ত রেজিয়া জড়িয়ে পড়ে জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে। রেজিয়া জামায়াত-শিবিরের হয়ে বিভিন্ন কাজে অংশ নিতে থাকে। বিষয়টি প্রকাশ হয়ে পড়লে তিনি মেয়েটির পরিবার ও গ্রামবাসীর কাছে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েন।

প্রকাশিত : ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১০/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: