ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

এই দলটাই ভালো করবে, বিশ্বাস নান্নুর

শাকিল আহমেদ মিরাজ

প্রকাশিত: ০০:৫৫, ১৫ মে ২০২৪

এই দলটাই ভালো করবে, বিশ্বাস নান্নুর

নান্নুর

অনেক নাটকীয়তার পর অবশেষে মঙ্গলবার  আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে গাজী আশরাফ হোসেন লিপুর নেতৃত্বাধীন নতুন নির্বাচক প্যানেল। ইনজুরি সত্ত্বেও জায়গা পেয়েছেন পেসার তাসকিন আহমেদ। জিম্বাবুয়ে সিরিজে প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন নেই স্কোয়াডে।

নাজমুল হোসেন শান্তর দলে ট্রাভেল রিজার্ভ হিসেবে আছেন পেসার হাসান মাহমুদ ও ব্যাটিং-অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন ধ্রুব। আর এই দলটাই ভালো করবে বলে মনে করেন লিপুর আগে প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব পালন করা মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।
‘এখন যারা বিশ্বকাপে যাচ্ছে এরাই কিন্তু দেড় বছর ধরে খেলছে, এদের আমরা নার্সিং করছিলাম। এরা খেলার মধ্যে ছিল। এদের অভিজ্ঞতা যথেষ্ট ভালো। আমি মনে করি এদের সামর্থ্য আছে ভালো খেলার। বিশ্বকাপে যে ১৫ জনকে নিয়েছে, আশা করছি এরা দেশের জন্য সম্মানজনক কিছু বয়ে আনবে।’ বলেন নান্নু।

তিনি আরও যোগ করেন, ‘টি২০ ফরম্যাটে আমরা অনেক পিছিয়ে ছিলাম। গত দেড় বছর যদি দেখেন, ওরা কিন্তু ভালো একটা জায়গায় চলে এসেছে। এই দলটাই নিয়মিত খেলছে।’ বিশ্ব ক্রিকেটে লেগস্পিনার এখন সময়ের দাবি। অনেকদিন ধরেই বাংলাদেশ এই জায়গাটায় ভুগছিল। জুবায়ের লিখন, তানভির হায়দার, আমিনুল বিপ্লব কেউই থিতু হতে পারেননি। রিশাদ সেখানে ব্যতিক্রম।

দারুণ নৈপুণ্যে এরই মধ্যে জায়গা পাকা করে ফেলেছেন এই লেগস্পিনিং-অলরাউন্ডার। ‘এই একটা খেলোয়াড়কে নিয়ে আমরা যথেষ্ট স্ট্রাগল করেছি। সেটা রিশাদ হোসেন। গত এক বছর কিন্তু ডমেস্টিক ক্রিকেট বলেন...লোকাল কোচদের সঙ্গে আমাদের ফাইট করতে হয়েছে।

এটা নিয়ে কিন্তু হাতরুসিংহেও আমাদের যথেষ্ট সমর্থন করেছে। একটা লেগ স্পিনার দলে রাখা। তো সে হিসেবে আমাদের সিলেকশান প্যানেল কিন্তু যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। চাচ্ছিলাম ওকে যেন সবসময় একটা প্রক্রিয়ার মধ্যে রাখে দলের সঙ্গে।’
বিশ্বকাপের দল ঘোষণায় এই বিলম্বকেও স্বাভাবিক বলে মনে করেন সাবেক প্রধান নির্বাচক, ‘আফগানিস্তানের মতো দলের প্রায় আট-নয়জন ফ্রন্টলাইনের খেলোয়াড় আইপিএলে খেলছে বা অন্যান্য লিগে। আমাদের দেশে টি২০ ফরম্যাটের কয়টা প্লেয়ার আছে? ওয়ার্ল্ড কাপ বা যে কোনো টুর্নামেন্ট  যখন ডেট দেয়, এর দুই থেকে তিন সপ্তাহ আগে থেকেই কিন্তু প্রস্তুতি নেওয়া শুরু হয়।

কারণ এখন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রচুর ক্রিকেট। এই জায়গায় কিন্তু প্রস্তুতি নিতে হয় যে, আগামীকাল কী হবে? আপনি এখন বসে কিন্তু তিন মাস পরে কী হবে, তা চিন্তা করতে পারবেন না।

×