ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১

পশ্চিমাদের পুতিনের হুঁশিয়ারি

চুরির পরিণতি ভোগ করতে হবে

প্রকাশিত: ২২:১২, ১৪ জুন ২০২৪

চুরির পরিণতি ভোগ করতে হবে

.

রুশ সম্পদ দখল করায় পশ্চিমাদের সমালোচনা করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট øাদিমির পুতিন। এটিকে চুরি হিসেবে আখ্যায়িত করে এর পরিণতি ভোগ করতে হবে বলেও সতর্ক করেছেন তিনি। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠককালে শুক্রবার এসব কথা বলেন পুতিন। পুতিনের এই মন্তব্য এমন সময় এলো যখন জি- নেতারা জব্দকৃত রুশ সম্পদ ব্যবহার করে ইউক্রেনকে হাজার কোটি ডলারের ঋণ প্যাকেজ দিতে সম্মত হয়েছেন। খবর আরটির।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে পুতিন সতর্ক করে বলেন, পশ্চিমারা মস্কোর সঙ্গে যেমন আচরণ করেছে তাতে দেখা যাচ্ছে যে কেউ তাদের পরবর্তী শিকার হতে পারে এবং একইভাবে তাদের সম্পদ জব্দ করা হতে পারে। ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া ইউক্রেনে কয়েক হাজার সেনা পাঠানোর পর প্রায় ৩২৫ বিলিয়ন ডলারের রুশ সম্পদ জব্দ করে পশ্চিমারা। পরিকল্পনা অনুসারে, আন্তর্জাতিক বাজার থেকে একটি ঋণ গ্রহণ করে প্রতি বছর ইউক্রেনকে হাজার কোটি ডলার দেবে জি-৭। ঋণের কিস্তি হিসেবে রুশ সম্পদের সুদ থেকে প্রতি বছর বিলিয়ন করে পরিশোধ করা হবে। আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে, রাশিয়ার জব্দকৃত সম্পদ দেশগুলো ইউক্রেনকে দিতে পারে না। কিন্তু রুশ সম্পদ থেকে প্রতি বছর বিপুল পরিমাণ সুদ আয় হচ্ছে। প্রতি বছর সুদের পরিমাণ প্রায় বিলিয়ন ডলার। ফলে এই সুদকে সৃজনশীল উপায়ে কাজে লাগাতে চাইছে দেশগুলো।

বৃহস্পতিবার রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে সহায়তায় ইউক্রেনকে ৫০ বিলিয়ন ডলারের ঋণ দিতে রাজি হয়েছেন জি- নেতারা। চলতি বছরের শেষ দিকে এই অর্থ দেওয়া হবে। ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি বলেছেন- আমি আপনাদের নিশ্চিত করছি যে, আমরা চলতি বছরের শেষ দিকে ইউক্রেনকে আনুমানিক ৫০ বিলিয়ন ডলার অতিরিক্ত আর্থিক সহায়তা প্রদানের জন্য রাজনৈতিক চুক্তিতে পৌঁছেছি। জি- দেশগুলো জব্দ করা রুশ সম্পদ থেকে ইউক্রেনকে অর্থ সহায়তা দেবে। বৃহস্পতিবার জি- সম্মেলনের আয়োজক ছিল ইতালি। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমার জেলেনস্কি, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ফ্রান্স, জার্মানি, কানাডা, জাপান এবং যুক্তরাজ্যের নেতাদের সঙ্গে ইউক্রেন যুদ্ধ বিষয়ক একটি বিশেষ সম্মেলনে যোগদানের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, রাশিয়ার জব্দ করা সম্পত্তি থেকে ইউক্রেনকে এই অর্থের জোগান দেওয়া হবে। ঋণ দেওয়ার বিষয়ে জি- নেতারা ঐকমত্যে পৌঁছেছেন জানিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, এর মাধ্যমে প্রমাণ হলো আমরা ইউক্রেনের সঙ্গে আছি।

এদিকে ইউক্রেনের কিয়েভ অঞ্চলে শুক্রবার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। রাজধানীর বাইরের এলাকায় এই বিস্ফোরণ হয়েছে। দেশটির সামরিক বাহিনী অঞ্চলটিতে সম্ভাব্য রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার বিষয়ে সতর্ক করার পরেই এই শব্দ শোনা গেছে।

 

×