মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ব্রাজিলকে হারিয়ে সেমিতে প্যারাগুয়ে

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫, ১১:২২ এ. এম.

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ চার বছর আগে কোপা আমেরিকার তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলকে টাইব্রেকারে হারিয়ে সেমিতে উঠেছিল প্যারাগুয়ে। চার বছর পর সেই একই আসরের চতুর্থ কোয়ার্টার ফাইনালে একইভাবে ব্রাজিলকে আবারও হারিয়ে শেষ চারে নাম লেখালো প্যারাগুয়ে। শনিবার ভোরে চিলির মিউনিসিপ্যাল ডি কনসেপশন স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত জমজমাট ম্যাচে কোপার দুই বারের চ্যাম্পিয়ন প্যারাগুয়ে টাইব্রেকারে ৪-৩ গোলে হারায় আটবারের শিরোপাধারী ব্রাজিলকে। নির্ধারিত ৯০ মিনিটে খেলার স্কোর ছিল ১-১ (এ আসরের নিয়ম হচ্ছে নকআউট পর্বে খেলা ড্র হলে অতিরিক্ত সময়ে খেলা না হয়ে সরাসরি টাইব্রেকার হবে)। এ জয়ে আগামী ৩০ জুন টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেমিতে প্যারাগুয়ে মোকাবেলা করবে ১৪ বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার। এবার গ্রুপ পর্বে আর্জেন্টিনার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছিল প্যারাগুয়ে। ২৯ জুন প্রথম সেমির প্রতিপক্ষ স্বাগতিক চিলি বনাম পেরু। শনিবার শেষ আটের দ্বৈরথে প্যারাগুয়ের জয়ের অর্থ হচ্ছে এবার ফুটবলপ্রেমীদের বহুল আকাঙ্খিত আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল লড়াই হচ্ছে না! ফলে হতাশ হতে পারেন অনেকেই।

তবে প্যারাগুয়ে কোয়ার্টারের ম্যাচে মোটেও হতাশ হবার মতো খেলেনি। যেভাবে তারা এক গোলে পিছিয়ে পড়েও সেই গোল শোধ দিয়ে শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারে জিতেছে, তা প্রশংসনীয়। তাদের নাছোড়বান্দা ও লড়াকু মনোভাবের খেলা মুগ্ধ করেছে সবাইকে। তবে ভাল খেলেছে ব্রাজিলও। উভয় দলই খেলেছে গতিশীল ও আক্রমণাতœক ফুটবল। ম্যাচের ১৫ মিনিটে প্রথম গোল করে ব্রাজিল। প্যারাগুয়ের ডি-বক্সের মধ্যে ডান প্রান্ত দিয়ে ডিফেন্ডার দানি আলভেজ ক্রস ফেললে সেটাকে কাজে লাগিয়ে দলকে এগিয়ে নেন সুযোগ সন্ধানী ফরোয়ার্ড রবিনহো (১-০)। প্রথমার্ধে এই স্কোরেই খেলা শেষ হয়। ৭২ মিনিটে গোল শোধ করে সমতায় ফেরে ‘হোয়াইট এ্যান্ড রেড’রা। বক্সের মধ্যে উঁচু বল পেলে হেড করার চেষ্টা করেন প্যারাগুয়েন ফরোয়ার্ড সান্তা ক্রুজ। বলটা একসঙ্গে লাফিয়ে হেড করে বিপদমুক্ত করতে যান দুই ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার দানি আলভেজ এবং থিয়াগো সিলভা। কিন্তু বিধি বাম! সিলভার হ্যান্ডবল হয়ে যায়। সেটা নজর এড়ায়নি উরুগুয়েন রেফারি আন্দ্রেজ কুনহার। পেনাল্টির নির্দেশ দেন তিনি। পেনাল্টি শট থেকে গোল করে সমতায় আনেন ফরোয়ার্ড দার্লিস গঞ্জালেস (১-১)। এছাড়া উভয় দলই একাধিক গোলের সুযোগ নষ্ট করে।

এরপর খেলা গড়ায় শ্বাসরুদ্ধকর টাইব্রেকারে। ব্রাজিলের পক্ষে প্রথম, তৃতীয় ও পঞ্চম শটে গোল করেন যথাক্রমে ফার্নানদিনহো, মিরান্দা ও ফিলিপ্পে কাউতিনহো। দ্বিতীয় ও চতুর্থ শটে মিস করেন এভারটন রিবেরিও এবং ডগলাস কোস্টা। দুজনের বা পায়ের গড়ানো শটই পোস্টের বাইরে দিয়ে চলে যায়। পক্ষান্তরে প্যারাগুয়ের পক্ষে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় শটে গোল করেন যথাক্রমে অসভোল্ডো মার্টিনেজ, ভিক্টর কারেরেস ও রাউল বোবাদিলিয়া। সান্তা ক্রুজ চতুর্থ শটে গোল করতে ব্যর্থ হলে জয়ের প্রথম সুযোগ হারায় প্যারাগুয়ে। ক্রুজের ডান পায়ে নেয়া শটটি আকাশে উঠে যায়! তবে পঞ্চম শটে গোল করে ঠিকই দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন দার্লিস গঞ্জালেস, যিনি ম্যাচের ৭২ মিনিটে গোল করে দলকে সমতায় ফিরিয়েছিলেন। ফলে সন্দেহতীতভাবেই জয়ের নায়কে পরিণত হন দার্লিস। সেই সঙ্গে ২০১১ কোপা আমেরিকার তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালের পুনরাবৃত্তি ঘটায় প্যারাগুয়ে। সেবার তারা ‘সেলেসাও’দের টাইব্রেকারে হারিয়েছিল ২-০ (০-০) গোলে।

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫, ১১:২২ এ. এম.

২৮/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: