ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

মঠবাড়িয়ার চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজকে ইসিতে তলব

অনলাইন রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২২:৪০, ২০ মে ২০২৪

মঠবাড়িয়ার চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজকে ইসিতে তলব

নির্বাচন কমিশন ভবন।

নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের বিষয়ে সন্তোষজনক জবাব দিতে না পারায় পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদকে তলব করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাকে দেওয়া লিখিত জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় কেন তার প্রার্থিতা বাতিল করা হবে না এবং তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা কেন নেওয়া হবে না, সে বিষয়ে আগামী বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ওই প্রার্থীকে সশরীরে ঢাকায় ইসি সচিবালয়ে উপস্থিত হয়ে ব্যাখ্যা দিতে হবে। ব্যাখ্যা সঠিক ও যৌক্তিক না হলে রিয়াজ উদ্দিনের প্রার্থিতা বাতিল হতে পারে।

সোমবার (২০ মে) নির্বাচন পরিচালনা-২ অধিশাখা থেকে কমিশনের উপসচিব মো. আতিয়ার রহমানের সই করা চিঠিতে এ আদেশ দেওয়া হয়েছে।

তৃতীয় ধাপে আগামী ২৯ মে মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক দেওয়া হয় গত ১৩ মে। ইসির পক্ষ থেকে ওইদিন প্রার্থীদের সব ধরনের সভা-সমাবেশ করতে নিষেধ করা হয়। কিন্তু বড় ভাই বর্তমান সংসদ সদস্য শামীম শাহনেওয়াজ ও ছোট ভাই সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুর রহমানের ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে কমিশনের আদেশ অমান্য করে মঠবাড়িয়া পৌরসভার সামনে বিশাল মিছিল ও সমাবেশ করেন রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ। এতে ওই এলাকায় ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। ভোগান্তিতে পড়েন সাধারণ মানুষ।

স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রতীক পেয়ে বড় বড় লাঠির মাথায় আনারস বেঁধে মিছিল নিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করেন রিয়াজ উদ্দিনের কর্মী-সমর্থকেরা। এতে জনসাধারণের মধ্যে ভীতির সঞ্চার হয়। এছাড়া সমাবেশে চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাই আশরাফুর রহমান হুমকি দিয়ে বলেন, আঘাত এলে পাল্টা আঘাত করা হবে। নেতাকর্মীদের বাঁশের লাঠি নিয়ে তৈরি থাকতে নির্দেশ দেন তিনি। নেতাকর্মীদের আশ্বস্ত করে তিনি বলেন, আমি আশরাফুর রহমান আপনাদের পাশে থেকে প্রতিরোধ গড়ে তুলবো। কেউ ঠেকাতে পারবে না।

এরপরই নির্বাচন কমিশন চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদের বিরুদ্ধে আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ এনে তাকে সহকারী রিটানিং অফিসারের কাছে লিখিতভাবে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেন। পর দিন ১৪ মে আচরণবিধি ভঙ্গের বিষয়ে ব্যাখ্যা দাখিল করেন রিয়াজ উদ্দিন। তাতে তিনি বলেন, কিছু অতি উৎসাহী কর্মী আচরণবিধি ভঙ্গমূলক কর্মকাণ্ড সংগঠিত করেছে। তার জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

এমন জবাব ইসির কাছে সন্তোষজক না হওয়ায় তার প্রার্থিতা বাতিল কেন করা হবে না এবং আইনানুগ ব্যবস্থা কেন নেওয়া হবে না, তা জানতে আগামী ২৩ মে বেলা ১১টায় সশরীরে ঢাকায় নির্বাচন কমিশনে উপস্থিত হয়ে কমিশনের সামনে ব্যাখ্যা দেয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যেখানে সঠিক ও যৌক্তিক ব্যাখ্যা না দিতে পারলে রিয়াজ উদ্দিনের প্রার্থিতা বাতিল হতে পারে।

মেহেদী

×