ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

বিছানায় স্ত্রীর লাশ, ফ্যানে ঝুলছিলেন স্বামী

প্রকাশিত: ২১:২০, ২০ মে ২০২৪

বিছানায় স্ত্রীর লাশ, ফ্যানে ঝুলছিলেন স্বামী

আশুলিয়ায় ভাড়াবাসা থেকে এক দম্পতির মরদেহ উদ্ধার

সাভারের আশুলিয়ায় ভাড়াবাসা থেকে এক দম্পতির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ সোমবার বিকেলে আশুলিয়ার নরসিংহপুরের ইউসুফ মার্কেট এলাকায় একটি টিনশেড বাড়ি থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় স্ত্রীর লাশ বিছানায় ও স্বামীকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। 

নিহতরা হলেন পটুয়াখালী সদর থানার লোহালিয়া ইউনিয়নের হাকিম আলী হাওলাদারের ছেলে রুহুল আমিন হাওলাদার এবং বরিশালের আমতলী থানার সোবহান মৃধার মেয়ে মনি। রুহুল আমিন পেশায় কাপড় ব্যবসায়ী। তাঁর একটি ছোট কাপড়ের দোকান আছে এবং মনি গৃহিণী। প্রায় দুই মাস ধরে তাঁরা ওই বাড়ির একটি কক্ষ ভাড়া নিয়ে বাস করে আসছিলেন। 

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ঘরের দরজার সামনে গ্রিলের আরেকটি গেট ছিল। ঘরের দরজা খোলা থাকলেও গ্রিলে তালা লাগানো ছিল। বাইরে থেকে ডেকেও কোনো সাড়া না পেয়ে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে পুলিশ গিয়ে গ্রিলের তালা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে। পরে সেই ঘর থেকে দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। 

বাড়ির মালিক রেহানা আক্তার গণমাধ্যমকে জানান, ‘সকাল থেকে তাদের কোনো সাড়া না পেয়ে সন্দেহ হলে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পরে দেখি বিছানায় মনির লাশ পড়ে আছে এবং সিলিং ফ্যানের এর সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলে আছে রুহুল আমিন।’ 

নিহত মনির ভাগনে মো. রিফাত জানান, ‘ছয় মাস আগে তাঁদের বিয়ে হয়। ঈদের পর থেকে তাঁদের মাঝে ঝগড়া হচ্ছিল। তখন আমার খালা (মনি) সংসার করবে না বলে জানান। তাঁদের মধ্যে পারিবারিক দ্বন্দ্ব ছিল। এরই জেরে এই ঘটনা ঘটতে পারে।’ 

আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাসুদ আল মামুন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে স্ত্রীকে হত্যা করেই আত্মহত্যা করেছেন স্বামী। তবে এখনই একেবারে নিশ্চিত করে বলার সুযোগ নেই। কী কারণে এই ঘটনা ঘটেছে তা তদন্ত করে জানা যাবে। এ বিষয়ে আইনি কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

 

এবি

×