ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

রাজনীতির স্বার্থে কাদের মির্জা-একরামুল করিমকে ক্ষমা করেছি

নিজস্ব সংবাদদাতা, নোয়াখালী

প্রকাশিত: ১৮:৩৫, ৫ ডিসেম্বর ২০২২

রাজনীতির স্বার্থে কাদের মির্জা-একরামুল করিমকে ক্ষমা করেছি

নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্য দেন ওবায়দুল কাদের । ছবি: জনকণ্ঠ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ঐক্যের কোন বিকল্প নেই, আমাদের অস্থিত্বের জন্য। আমি কারো অন্ধ সমর্থক নই। কাজ করে যারা আমি তাদের পক্ষে বলি। আমি নোয়াখালীর স্বার্থে, রাজনীতির স্বার্থে আমার ভাই আব্দুল কাদের মির্জা ও একরামুল করিম চৌধুরী এমপিকে ক্ষমা করে দিয়েছি। 

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে শহরের শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে লক্ষাধিক নেতাকর্মী ও উপস্থিত জননেতার উদ্দেশ্যে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, নোয়াখালীতে আমি কোন কলহ রাখতে চাই না। আমি কলহ মুক্ত আওয়ামী লীগ চাই। বিএনপিকে আমরা ছাড় দিয়েছি। কিন্তু তারা যদি বিশৃঙ্খলা করে, আমরা ছেড়ে দিব না। আগুন সন্ত্রাসীরা দেশে অস্থিরতা তৈরি করতে চায়। 

এর আগে অগ্রহায়ণেরর মিষ্টি রোদে সকাল থেকে জেলার নয়টি উপজেলা থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মী  নানা রঙ বেরঙের ফেস্টুন, ফ্ল্যাগ উড়িয়ে বিভিন্ন যানবাহনে করে সমাবেশস্থলে হাজির হন। দুপুরের আগেই শহীদ ভুলু স্টেডিয়াম কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। 

তিনি আরও বলেন, ১০ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী পাহারায় থাকবে। হাওয়া ভবনের বিরুদ্ধে খেলা হবে। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে খেলা হবে।  যারা সন্ত্রাস করে আওয়ামী লীগের ২১ হাজার নেতাকর্মীকে হত্যা করেছে, হাজার হাজার মায়ের কোল খালি করেছে, অগণিত স্ত্রীকে স্বামীহারা করেছে, তাদের ক্ষমা নেই। 

সেতুমন্ত্রী সম্মেলনে উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, খেলা হবে, হবে খেলা, এই ডিসেম্বরে খেলা হবে, আগামী নির্বাচনে খেলা হবে, আন্দোলনে খেলা হবে, অর্থ পাচারের বিরুদ্ধে খেলা হবে। টাকা চুরির বিরুদ্ধে, হাওয়া ভবনের বিরুদ্ধে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে খেলা হবে। দুঃশাসনের বিরুদ্ধে খেলা হবে।  

ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে কাদের আরও বলেন, আগামী ১০ ডিসেম্বর বিএনপি নাকি রাজপথ ও ঢাকা দখল করবে। ফখরুল সাহেব আমি বলতে চাই, আমাদের নেতাকর্মীরা মহানগর জেলা,উপজেলা, ওয়ার্ড, পাড়া মহল্লায় পাহারায় থাকবে। বিএনপি বিআরটিসির বাস পুড়িয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা-সিলেট সড়কে শেখ হাসিনার ভিত্তি প্রস্তর রাতের অন্ধকারে পুড়িয়েছে। তারা আগুন, লাঠি নিয়ে আসবে এজন্য তারা পার্টি অফিসে সমাবেশ করতে চায়। বিশাল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে ফখরুল বলে খাঁচা।      

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ এএইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম। এতে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।  

সম্মেলনে বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বাায়ক অধ্যক্ষ এএইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম কে সভাপতি হিসেবে নাম ঘোষণা করেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সাধারণ সম্পাদক পদে একাধিক প্রার্থী থাকায় আগামী ১৬ ডিসেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।     


 

 

এসআর

সম্পর্কিত বিষয়:

monarchmart
monarchmart