ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯

জনসেবায় অরিজিৎ, খুলছেন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র 

প্রকাশিত: ১৩:০৮, ১৪ আগস্ট ২০২২; আপডেট: ১৫:১৭, ১৪ আগস্ট ২০২২

জনসেবায় অরিজিৎ, খুলছেন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র 

অরিজিৎ সিংহ

তার কণ্ঠের জাদুতে মজে থাকে সারা দেশ। তবে অরিজিৎ সিংহ আছেন অরিজিতেই। মায়ানগরী মুম্বাইয়ের চাকচিক্য তাকে ছুঁতে পারেনি। এখনও তিনি মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জবাসীর কাছে ‘ঘরের ছেলে’। যাকে মাঝে মাঝেই দেখা যায় আটপৌরে হাফ প্যান্ট ও টি-শার্টে হেঁটে যেতে। কখনও কমদামি স্কুটিতে এলাকা চষে বেড়ান। 

গত মঙ্গলবার এ হেন অরিজিৎ হঠাৎ হাজির ছোটবেলার বন্ধু শঙ্কর মণ্ডলের নার্সিং কলেজে। তারপর জানা গেল তাঁর নতুন উদ্যোগের কথা।

শুধু সঙ্গীতের মাঝে নিজেকে আবদ্ধ না রেখে বৃহত্তর মানবসেবায় অংশ নিতে চান তিনি। বোঝেন শিক্ষার গুরুত্ব। তাই জন্মভূমি জিয়াগঞ্জকে এগিয়ে নিয়ে যেতে অরিজিৎ খুলতে চান ইংরেজি শেখার জন্য কোচিং সেন্টার। যেখানে কোনো ফি লাগবে না। 


জিয়াগঞ্জে মোট আটটি বড় ঘরের প্রয়োজন গায়কের। এ জন্যই তার ভরসা ছোটবেলার বন্ধু শঙ্করের উপর। জিয়াগঞ্জ থানার কাছেই রয়েছে একটি নার্সিং কলেজ। সেখানেই প্রশিক্ষণ সেন্টার খুলছেন অরিজিৎ।

অরিজিতের ওই কলেজে আসা নিয়ে শঙ্কর বলেন, ভিডিও মনিটরের সুবিধাযুক্ত বড় মাপের ঘর পছন্দ হয়েছে অরিজিতের। তাই ওখানেই প্রশিক্ষণ সেন্টার খুলতে চায় ও। গায়কের আগমনের খবর মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। তারপর হোস্টেলে ভিড় জমতে শুরু করে।

অরিজিতের এই উদ্যোগ জানতে পেরে পরিচিত এবং এলাকাবাসীরা উচ্ছ্বসিত। তবে কেউ অবাক নন। তারা তো অরিজিৎকে চেনেন এভাবেই। মাস তিনেক আগে নিজের ছোটবেলার স্কুলের পরিচালন সমিতির সভাপতির দায়িত্ব নিয়েছেন অরিজিৎ। তার পর থেকে স্কুলের পরিকাঠামোর উন্নয়নে নিয়েছেন একাধিক উদ্যোগ। 

এই প্রসঙ্গে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দীপঙ্কর ভট্টাচার্য বলেন, অরিজিৎ স্কুলের পরিচালন সমিতির সভাপতির দায়িত্ব নেওয়ার পর স্কুল যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে। মাস খানেক আগে তো সবাইকে চমকে দিয়ে ইংরেজির দিদিমণির পায়ের কাছে বসে বাধ্য ছাত্রের মতো সময় কাটিয়েছেন অরিজিৎ। আসলে বলিউডের এত বড় একজন গায়ক হলেও অরিজিতের এই সাধারণত্ব তাকে ‍অসাধারণ‍‍ করে তুলেছে।

এসআর