ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯

পুরাতন কারখানা চালুর মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের

টাকা দ্রুত ফেরতের সুযোগ তৈরি হচ্ছে ॥ বিএসইসি চেয়ারম্যান

প্রকাশিত: ১৬:৪২, ১৩ আগস্ট ২০২২

টাকা দ্রুত ফেরতের সুযোগ তৈরি হচ্ছে ॥ বিএসইসি চেয়ারম্যান

সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলের অনুষ্ঠান

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, নতুন কারখানা গড়ার চেয়ে পুরাতন কারখানা কিনে তা চালু করলে বিনিয়োগকারীদের টাকা দ্রুত ফেরতের সুযোগ তৈরি হচ্ছে একইসঙ্গে দ্রত সময়ে পণ্য রফতানি করে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করা সম্ভব বলেও তিনি মনে করছেন বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, একটা নতুন কারখানা করতে গেলে - বছর লাগে আর সিঅ্যান্ডএর মতো কোম্পানির কারখানা পড়ে থেকে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে যেগুলোকে নতুন কারখানা গড়ার থেকে দ্রুত সহজে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব পুরাতন কারখানা চালুর মাধ্যমে ব্যাংকের দেনা পরিশোধ বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ ফেরতের সুযোগ হচ্ছে

শনিবার চট্টগ্রামে সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলের পরীক্ষামূলক উৎপাদন চালুর অনুষ্ঠানে তিনি কথা বলেন শেয়ারবাজারে আসার পরে বন্ধ হয়ে যাওয়ার পেছনে দোষীদের শাস্তি নিয়ে  শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলাম বলেন, আমাদের আগে তদন্ত (ইনকোয়ারি) বিভাগই ছিল না আমরা সম্প্রতি সেটা করেছি এবং অফিসার নিয়োগ দিয়েছি এছাড়া শেয়ারবাজার বিষয়ক যে ট্রাইবুন্যাল নিস্ক্রিয় ছিল, সেটাকে সক্রিয় করতে বিচারক মহোদয়ের সঙ্গে সাক্ষাত করেছি যেখানে ১ম ফৌজদারি মামলা করা হয়ে গেছে এছাড়া সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলের বিষয়ে সব তথ্য নিয়ে ফৌজদারি মামলা করব

তিনি বলেন, আগে একদিনে ৬৫টি কোম্পানি ওটিসিতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছিলো সেগুলোকে এখন আমরা দেখছি অ্যাসেট নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, সেগুলো একটা একটা করে আমরা করছি এবং ভালো ফলাফল পাচ্ছি খুব ইন্টারেস্টিং বিষয় দুই- চারটা কোম্পানি ইতিমধ্যে উৎপাদনে চলে গেছে আমার হিসেবে আমরা যদি ৫০-৬০টা কোম্পানি চালু করতে পারি ২০-৩০ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে

তিনি আরও বলেন, এর জন্য নতুন করে জমি কেনা, জায়গা কেনা, ফ্যাক্টরি করা এগুলোর কিছু করতে হবে না শুধু তারা যে কাজগুলো করছেন সেগুলো নতুন করে সার্ভিসিং করে ঠিকঠাক করা, কোথাও কোথাও হয় তো নতুন মেশিন স্থাপন করছেন

সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল পুনরুজ্জীবিত করতে কি পরিমান অর্থ বিনিয়োগ করা হচ্ছে এবং কবে নাগাদ পরিপূর্ণ উৎপাদন শুরু হবে? এমন প্রশ্নের উত্তরে আলিফ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. আজিমুল ইসলাম বলেন, আমরা ৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগের পরিকল্পনা করেছিলাম এখন মনে হচ্ছে আরও বেশি লাগবে আর আমরা চেষ্টা করছি যতদ্রুত সম্ভব পরিপূর্ণ উৎপাদন শুরু করার পরীক্ষামূলক উৎপাদন শেষে শিগগিরই পরিপূর্ণ উৎপাদন শুরু করতে পারবো বলে আমরা আশাবাদী

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলের উৎপাদন প্রায় বছর আগে বন্ধ হয়ে যায় যাতে করে এই দীর্ঘসময়ে কোম্পানিটির অবকাঠামো দাঁড়িয়ে থাকলেও ডাইং ইউনিটের প্রায় সব মেশিনারীজ অকেঁজো হয়ে যায় এছাড়া গার্মেন্টস সেকশনের মেশিন চালু করতে মেরামতের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয় আর জেনারেটরসহ অন্যান্য ইলেকট্রিক জিনিসপত্র নষ্ট হয়ে যায় যে কোম্পানিটির সুদসহ ব্যাংকের দেনা হয়ে গেছে ২৫০ কোটি টাকা

এই অবস্থায় কোম্পানিটিকে পুণরুজ্জীবিত করতে এগিয়ে আসে আলিফ গ্রুপ যারা এরই মধ্যে ওভার দ্য কাউন্টার মার্কেটের সজীব নিটওয়্যার দূর্বল ব্যবসার সিএমসি কামালকে (বর্তমানে আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ আলিফ ম্যানুফ্যাকচারিং) অধিগ্রহণ করে দক্ষতা দেখিয়েছে এতে করে রক্ষা পেয়েছে কোম্পানি দুটির হাজারো বিনিয়োগকারীসহ পুরো শেয়ারবাজারের স্বার্থ এবার হারিয়ে যাওয়ার পথে থাকা সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলকে উৎপাদনে আনতে যাচ্ছে তারা

অপূর্ব