মঙ্গলবার ১০ কার্তিক ১৪২৮, ২৬ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ডিসেম্বরে মহাস্থানগড়ে সম্প্রীতির ঐকতানের আন্তর্জাতিক উৎসব

  • অংশ নেবে ৫০টির বেশি দেশ

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ এ বছর শেষে ডিসেম্বরে দেশের সবচেয়ে প্রাচীন নগরী বগুড়ার মহাস্থানগড়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে সম্প্রীতির ঐকতানের আন্তর্জাতিক উৎসব (ইন্টারন্যাশনাল ফেস্টিভ্যাল অব হারমোনি)। আয়োজক- সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়। অংশগ্রহণ করবে বিশ্বের অন্তত ৫০ দেশের প্রতিনিধিদল। ইতোমধ্যে উৎসব সফল করে তুলতে ঢাকায় কয়েকদফা বৈঠক হয়েছে। সর্বশেষ ১১ সেপ্টেম্বর সোমবার ঢাকায় পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে সংস্কৃতি বিষয়ক সকল অধিদফতরের উর্ধতন কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠক হয়েছে। সূত্র জানায়, এই আয়োজন বিশ্ব সংস্কৃতির সঙ্গে বাংলা সংস্কৃতির এবং সম্প্রীতির মেলবন্ধন ঘটিয়ে একবিংশ শতকে নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা করবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। আগামী ২ ডিসেম্বর উদ্বোধনের প্রাথমিক তারিখ ঠিক করা হয়েছে।

বগুড়ার মহাস্থানগড়কে এক বছরের জন্য চলতি বছর (২০১৭) সার্কের সাংস্কৃতিক রাজধানীর ঘোষণা দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কায় অবস্থিত সার্ক (সাউথ এশিয়ান এ্যাসোসিয়েশন ফর রিজিওনাল কোঅপারেশন) কালচারাল সেন্টারের মহাপরিচালক ওয়াসান্থে কোতোয়ালী। সার্কভুক্ত দেশগুলোর নামের ইংরেজী বর্ণমালার ক্রমানুসারে বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক রাজধানীর স্বীকৃতি পায় ২০১৬ সালের ২৪ নবেম্বর। কথা ছিল চলতি বছর ২১ জানুয়ারি থেকে তা কার্যকর হবে। কিন্তু আফগানিস্তানের ঐতিহাসিক নগরী বামিহাল ২০১৫ সালে এক বছরের জন্য প্রথমবার সার্ক সাংস্কৃতিক রাজধানী হওয়ার পর তারা নির্ধারিত সময়ে শেষ করেনি। দ্বিতীয় বারের জন্য মনোনীত হয় বাংলাদেশ। আয়োজন যখন শেষ পর্যায়ে তখন সার্কভুক্ত একটি দেশ বিরোধিতা করে। তবে বাংলাদেশের মনোনয়ন ঠিক থাকে।

মহাস্থানগড়ে সাংস্কৃতিক রাজধানীর জন্য সবচেয়ে বড় যে সাংস্কৃতিক উৎসবের আয়োজন ছিল তাকেই বর্ধিত করে বিশ্বের দেশে দেশে সাংস্কৃতিক মেল বন্ধনের আয়োজন করা হয়েছে। যার ইংরেজী নামকরণ করা হয় “ইন্টারন্যাশনাল ফেস্টিভ্যাল অব হারমোনি”। সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য নিয়ে মতের আদান প্রদান এবং অনুষ্ঠান আয়োজন বেশি প্রাধান্য পাবে। প্রয়োজনে দেশে দেশে অনুষ্ঠান বিনিময় করা হবে। সূত্র জানায়, এ পর্যন্ত ৫০টির বেশি দেশকে অনুষ্ঠানে যোগদানের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তবে আশা করা হয়েছে, আমন্ত্রিত সকল দেশই আমন্ত্রণ গ্রহণ করে উৎসবে অংশগ্রহণ করবে।

এদিকে উৎসব সফল করতে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় লিয়াজোঁ কমিটি, নিরাপত্তা বিষয়ক উপ-কমিটিসহ কয়েকটি কমিটি গঠন করেছে। কমিটিগুলোতে আছেন প্রতœতত্ত্ব অধিদফতরের মহাপরিচালক, শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক, জাতীয় গণ-গ্রন্থাগার অধিদফতরের মহাপরিচালক, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দুইজন যুগ্ম সচিব, উপসচিব এবং দেশের ১৭ জেলার জেলা প্রশাসক ও কালচারাল অফিসারগণ। এ ছাড়াও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় এবং আয়োজনের সঙ্গে সম্পৃক্ত মন্ত্রণালয়ের উর্ধতনদের কমিটিগুলোতে রাখা হয়েছে।

বগুড়া জেলা কালচারাল অফিসার সাগর বসাক জানান, এই আয়োজন সফল করে তুলতে দিক নির্দেশনা দেয়া শুরু হয়েছে। উৎসবের জন্য হাতে বেশি সময়ও নেই। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সরকার ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের সহযোগিতায় মহাস্থানগড়কে দৃষ্টিনন্দন করে সাজানো হয়েছে। বর্তমানে দেশী বিদেশী পর্যটকের সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে। সূত্রগুলো জানাচ্ছে, উৎসব ঘিরে বিদেশী অতিথিগণ যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে চলাফেরা করতে পারে এবং আবাসনের কোন অসুবিধা না হয় সেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। মহাস্থানগড়ে অস্থায়ী সাংস্কৃতিক মঞ্চ নির্মাণ করা হবে। মহাস্থানগড়ের স্থাপনাগুলোকে আলোকসজ্জায় ঝলমলে করে তুলে বিশেষ ব্যবস্থায় প্রাচীন ইতিহাসের পটভূমি তুলে ধরা হবে। বিদেশীদের কাছে বাঙালীর সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যগুলো তুলে ধরা হবে। বিদেশীরা তাদের সাংস্কৃতিক কর্মকা- সফলতার সঙ্গে তুলে ধরে বাংলাদেশের মানুষের সঙ্গে সম্প্রীতির মেলবন্ধনে বড় ভূমিকা রাখতে পারবে, এমনটি আশা করা হয়েছে। এই উৎসবে বগুড়াসহ বাংলাদেশের সকল অঞ্চলের সাংস্কৃতিক কর্মকা- উপস্থাপিত হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
গার্মেন্টসে প্রচুর অর্ডার ॥ কর্মসংস্থানের বিরাট সুযোগ         দারিদ্র্য বিমোচনে দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর কাজ করা উচিত         শেয়ারবাজারে বড় দরপতন বিনিয়োগকারীরা রাস্তায়         সাম্প্রদায়িক হামলায় জড়িতদের কঠোর শাস্তি দাবি         প্রশাসনে পদোন্নতি পেতে তদবিরের ছড়াছড়ি         ছোট অপারেশন হয়েছে খালেদা জিয়ার         সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধের বিকল্প নেই         রূপপুর পরমাণু বিদ্যুত কেন্দ্রের সঞ্চালন লাইন নিয়ে শঙ্কা         ইলিশ ধরতে জেলেরা আবার নদীতে ॥ উঠে গেল নিষেধাজ্ঞা         সিডিউলবিহীন বিমানেই চোরাচালান         রবির অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ         সিনহাকে হত্যা করতে ওসি প্রদীপের নির্দেশে সড়কে ব্যারিকেড         তুচ্ছ ঘটনায় টেকনাফে বৌদ্ধ বিহারে হামলা, অগ্নিসংযোগ         বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে আগ্রহী পাকিস্তান         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় ৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৮৯         আবাসিক এলাকায় নতুন গ্যাস সংযোগ কেন নয়, হাইকোর্টের রুল         বিতর্কিতদের নয়, ত্যাগীদের নাম কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশনা         অনিবন্ধিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান বন্ধ হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী         তদন্তের সময় অনৈতিক সুবিধা দাবি ॥ দুদকের কর্মকর্তাকে হাইকোর্টে তলব         বাংলাদেশকে স্বর্ণ চোরাচালানের রুট বানিয়েছে পার্শ্ববর্তী দেশ