শুক্রবার ৩ আশ্বিন ১৪২৭, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নাড়ির টানে ঘরে ফেরা

  • দেওয়ান সামছুর রহমান

যান্ত্রিকতার এ যুগে জীবন ও জীবিকার তাগিদে মানুষকে নানা রকম কর্ম সম্পাদন করতে হয়। এ কারণে মানুষের ঘরে বসে থাকার সুযোগ নেই, প্রতিনিয়তই ছুটতে হচ্ছে। কখনও কেউ কেউ একমুঠো ভাতের সন্ধানে কেউ বা অধিকতর ভাল জীবনযাপনের জন্য নিজের ভিটেমাটি ছেড়ে শত শত মাইল দূরে পড়ে থাকে। যখনই কোন উপলক্ষ পাওয়া যায়, মন ছুটে যেতে যায় তার আজন্ম লালিত শৈশবের স্মৃতি বিজড়িত নাড়ির সঙ্গে সম্পৃক্ত গ্রামের বাড়িতে। এমনই উপলক্ষ মুসলমানদের পবিত্র ঈদের সময়। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ এ দেশে আবেগপ্রবণ এ দেশবাসী পরিবার পরিজন, আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে শত সমস্যা, নানা বিপদ আপদ, ভোগান্তি আর ভয় শঙ্কা নিয়েও ছুটে চলে নাড়ির টানে। পৃথিবীর অন্যতম ছোট অথচ জনবহুল একটি দেশ আমাদের এই বাংলাদেশ। এদেশের সকল শ্রমজীবী, কর্মজীবী, পেশাজীবী, শিক্ষার্থী সকলের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু রাজধানী শহর ঢাকা। ফলে রাজধানী শহরে যানজট নিত্যদিনের সঙ্গী। আর ঈদ উপলক্ষে এ মাত্রা আরও কয়েকগুণ বেড়ে যায়। দূরপাল্লার যাত্রীদের বড় সঙ্কটে পড়তে হয় সময়মতো গাড়ি পাওয়া, টিকেট সঙ্কট, কালোবাজারি, পথে পথে নানা দুর্ভোগের। দীর্ঘ যানজটের কারণে পথেই সময় কাটাতে হয় ঘণ্টার পর ঘণ্টা। কখনও কখনও শিশু, নারী কিংবা বয়োবৃদ্ধরা হয়ে পড়ে অসুস্থ। গাদাগাদি করে বাসে কিংবা নড়েচড়ে অথবা ট্রেনের ছাদে জীবনের ঝুঁকি নিয়েও মানুষ ছুটে তার গন্তব্যে। শত কষ্ট সহ্য করেও উদ্দেশ্য একটা, ঈদের আনন্দ সকলের সঙ্গে ভাগ করে নেয়া। বাঙালী আবেগপ্রবণ জাতি হিসাবে সব সময়ই পরিচিত। আবেগের কাছে কষ্ট যেন তুচ্ছ।

যে ছেলেটি পড়াশোনার উদ্দেশ্যে সারা বছর মা-বাবাকে ছেড়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ঢাকা শহরে পড়ে আছে, তার কাছে তো হাজার কষ্টও গৌণ মা-বাবার সঙ্গে ঈদ আনন্দ করার সঙ্গে। যে ছোট ছেলেমেয়েরা বাবা-মার সঙ্গে শহরে বাস করে তারা চার দেয়ালের বন্দীদশা কাটিয়ে দাদা-দাদি বা নানা-নানির সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে মুখিয়ে থাকে। চাকরিজীবী লোকটি ছোট ভাইবোন, মা-বাবাকে নিয়ে ঈদ করবে এ আনন্দে ছুটে চলে গ্রামে। কিংবা কারও স্ত্রী-সন্তানরা অপেক্ষায় আছে সে জন্য দুরন্ত এ ছুটে চলা। অথবা কারও গ্রামের বাড়িতে হয়ত কেউই নেই, নিজেরাই ঘরের তালা খুলে ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করে দুই-তিন দিনের জন্য বসবাসের উপযোগী করে তুলছে। তারপরও যেতে হবে গ্রামে।

সোনারগাঁও, নারায়ণগঞ্জ থেকে

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
৩০৩৭৯০৩১
আক্রান্ত
৩৪৫৮০৫
সুস্থ
২২০৬২০৯৫
সুস্থ
২৫২৩৩৫
শীর্ষ সংবাদ:
আল্লামা আহমদ শফী আর নেই         পেঁয়াজ ভর্তি ট্রলার ভিড়েছে টেকনাফে         অর্থনৈতিক উন্নয়ন বেগবানে ৩৪ হাজার কোটি টাকার ফান্ড ঘোষণা এডিবির         করোনা ভাইরাসে আরও ২২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪১         করোনা ভাইরাস ॥ বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ছাড়াল সাড়ে ৯ লাখ, আক্রান্ত ৩ কোটির বেশি         অ্যাটর্নি জেনারেলের অবস্থার অবনতি, আইসিউতে স্থানান্তর         করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় কারিগরি কমিটির ৭ পরামর্শ         বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশের নয় তিনি সারা বিশ্বের সম্পদ ॥ খাদ্যমন্ত্রী         ভিডিও কলে কথা বলে কিশোরীর ইচ্ছা পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী         ২০২১ হবে আরও বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে ॥ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী         আইনের বাইরে এ শহরে কিছু করতে পারবেন না ॥ মেয়র আতিক         এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে ২৪ সেপ্টেম্বর         ফিফা র্যাংকিংয়ে আগের অবস্থানেই আছে বাংলাদেশ, একধাপ পেছালো ভারত         মোদীর মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিলেন অকালি দলের নেত্রী হরসিমরত কউর         ভারতের এক শতাব্দী পুরনো সংসদ ভবন ভেঙ্গে নির্মাণ হবে নতুন ভবন         বাজারে করোনার ভ্যাকসিন আসার আগে অর্ধেক ‘বুকিং’ শেষ         গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য দুর্নীতি আড়ালের ব্যর্থ চেষ্টা ॥ ন্যাপ         স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়ালেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী         এবার নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছেন নেতানিয়াহু         শিক্ষায় বিভক্তির ফল সামাজিক বিভক্তি ॥ রাশেদ খান মেনন