বুধবার ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

টঙ্গীর জোড়াখুনের পেছনে মাদক বাণিজ্যের ভাগবাটোয়ারার বিরোধ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ টঙ্গীর এরশাদনগরে চাঞ্চল্যকর জোড়া খুনের মূলে ছিল এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও মাদক বাণিজ্যের ভাগবাটোয়ারা নিয়ে বিরোধ। মঙ্গলবার এ হত্যাকা-ের মূল পরিকল্পনাকারী কামরুজ্জামান কামুসহ পাঁচজনকে আটক করার পর র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে আসে এ তথ্য।

এ খুনের ঘটনায় আটককৃত অপর চারজন হলো কামরুজ্জামান কামুর সহযোগী মোঃ আলী (২৬), মোবারক হোসেন (৩৪), মোঃ সাগর (২২) ও নাজমুল ইসলাম (২০)। সোমবার রাতে সাভারের পলাশবাড়ি এলাকা থেকে তাদের আটক করে র‌্যাব-১। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাতেই টঙ্গীর এরশাদনগর এলাকা থেকে হত্যাকা-ে ব্যবহৃত রামদা ও চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৪ মে রাতে টঙ্গীর এরশাদনগর এলাকায় আলাউদ্দিনের ছেলে শরীফ হোসেন ও একই এলাকার হারুন খানের ছেলে জুম্মন মিয়াকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরদিন সকালে মরদেহ দু’টি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় পুলিশ। নিহত শরীফ হোসেন স্থানীয় শেখ রাসেল শিশু-কিশোর পরিষদের ৪৯ নং ওয়ার্ড সভাপতি ছিলেন। আর নিহত জুম্মান ছিলেন শরীফের সহযোগী। জুম্মান স্থানীয় একটি টুপি কারখানায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন।

এ ঘটনায় নিহত শরীফ হোসেনের মা ইয়ানুর বেগম বাদী হয়ে কামরুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে ১২ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ১০-১২ জনকে আসামি করে টঙ্গী থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ হত্যার কারণ সম্পর্কে আসামিরা জানান, মাদকের টাকার ভাগাভাগি, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে নিহত শরীফ প্রভাব খাটিয়ে কামুকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করে আসছিল। এই হয়রানি থেকে বাঁচতে এবং নিজের আধিপত্য বিস্তার করতে ঘটনার কিছুদিন আগে কামরুল ইসলাম কামু, তার সহযোগী হিরা, নাজমুল, মোহাম্মদ আলী, রাসেল, সাগর এবং শামীমকে নিয়ে শরীফকে হত্যার পরিকল্পনা করে। এরই অংশ হিসেবে সোনিয়া নামের একটি মেয়েকে দিয়ে ফাঁদ পাতে।

এ সম্পর্কে কিলিং মিশনের সদস্য মোবারক জানান, বছর দেড়েক আগে তার মা-বাবাকে নিহত শরীফ মারধর করেছিল। এরই প্রতিশোধ নেয়ার কথা মনে করিয়ে দিয়ে কামরুল ইসলাম কামু ও মোবারক মিলে পরিকল্পনা করে সোনিয়াকে দিয়ে ফাঁদ পাতার। ঘটনার রাতে তারা শরীফের বাসায় গিয়ে মাদক সেবন করে। রাত বারোটার দিকে তারা সবাই শরীফের বাসা থেকে বের হয়ে আসে। পরে তারা মোল্লাবাড়ির নামায় গিয়ে হাজির হয়। তারা পৌঁছার আগেই কামুর সহযোগী হীরা সোনিয়াকে সেখানে নিয়ে আসে। শরীফ সেখানে পৌঁছেই সোনিয়ার সঙ্গে কথা বলতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে তাকে অতর্কিত কোপানো শুরু হয়। এ দৃশ্য দেখে শরীফের বন্ধু জুম্মন ও সোনিয়া দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। তখন তাকেও পেছন থেকে ধাওয়া করে হামলা করা হয়। ওদের উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে শরীফ ও জুম্মন ঘটনাস্থলেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

শীর্ষ সংবাদ:
৪ থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পালন করবে ডিএনসিসি’         দেশের স্বার্থে সরকার ব্যবসায়ীদের পক্ষে সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে : অর্থমন্ত্রী         জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে ব্র্যাক ব্যাংক         ফাঁসির রায় ॥ পুলিশ হেফাজতে মিন্নি         ‘বিএনপি আন্দোলন-সংগ্রামের লক্ষ্য নির্ধারণেই ব্যর্থ, আন্দোলন তো সুদূর পরাহত’         এইচএসসি-সমমানের তারিখ জানা যাবে আগামী সপ্তাহে         রিফাত হত্যা ॥ মিন্নি সহ ছয় জন আসামির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত         সৌদি অরব রুটে প্রতি সপ্তাহে চলবে ২০ ফ্লাইট ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী         করোনা ভাইরাসে আরও ৩২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৪৩৬         বাবরি মসজিদ মামলার সব আসামি বেকসুর খালাস         'বাংলাদেশে পানি জীবন-মরণের বিষয়'         ঢাকা-১৮ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবীব হাসান, সিরাজগঞ্জে জয়         শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটির বিষয়ে জানা যাবে বৃহস্পতিবার         বাংলাদেশ থেকে সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রে বিমান চলাচলে চুক্তি স্বাক্ষর         ফের পেছালো ডিআইজি মিজানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগের শুনানি         মাধ্যমিক স্কুল কমিটির সভাপতি হতে শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণে আইনি নোটিশ         এমসি কলেজে গণধর্ষণ ॥ আসামি মাসুমও ৫ দিনের রিমান্ডে         বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা         শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি এমপি আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ         আক্রান্ত ৩ কোটি ৩৫ লাখ, মৃত্যু ১০ লাখ ৫ হাজার