মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২২.৮ °C
 
২ মার্চ ২০১৭, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

হিলারি ও ট্রাম্প সমানে সমান

প্রকাশিত : ১২ মে ২০১৬
  • সর্বশেষ জনমত জরিপ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প জনপ্রিয়তার জরিপে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির অগ্রগামী প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের সমকক্ষ হতে চলেছেন। নবেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে হলে অবশ্যই জয়ী হতে হবে এমন তিনটি বড় অঙ্গরাজ্যে দুই প্রার্থী সমান সমান অবস্থানে রয়েছেন। খবর টেলিগ্রাফ অনলাইনের।

ফ্লোরিডা, ওহাইও ও পেনসিলভেনিয়ায় দু’প্রার্থীর জনপ্রিয়তার পরিসংখ্যান কার্যত একইরূপ বলে কুইনিপিয়াক ইউনিভার্সিটির এক জরিপে দেখা গেছে। এটি ট্রাম্পের প্রচারশিবিরে উৎসাহ যোগাবে। ট্রাম্প প্রায়ই উল্লেখযোগ্য মাত্রার ব্যবধানে হিলারির পিছে পরে ছিলেন বলে আগেকার জাতীয় জরিপগুলোতে দেখানো হয়।

কুইনিপিয়াক পোলের এ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর পিটার এ ব্রাউন বলেন, নির্বাচনের দিন থেকে ছয় মাস আগে প্রেসিডেন্ট পদে তিনটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্য ফ্লোরিডা, ওহাইও ও পেনসিলভিনিয়াতে হিলারি ক্লিনটন ও ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বিতা এত তীব্র রূপ নিয়েছে যে, এতে যে কেউই জয়ী হতে পারেন। এ ক্রান্তিলগ্নে ট্রাম্প পেনসিলভেনিয়াতে ২০০৮ ও ২০১২ সালের রিপাবলিকান প্রার্থীদের তুলনায় ভাল করছেন। আর দু’প্রার্থী ওয়াহিও ও ফ্লোরিডায় এ সময়ে তাদের দলীয় পূর্বসূরিরা যেখানে ছিলেন প্রায় সেখানেই রয়েছেন। রিপাবলিকান পার্টির সম্ভাব্য মনোনীত প্রার্থীর সবচেয়ে উৎসাহব্যঞ্জক আভাস মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলীয় ওহিও অঙ্গরাজ্যে দেখতে পাওয়া যায়। সেখানে ট্রাম্প রেজিস্টার্ড ভোটারদের মধ্যে শতকরা ৪৩ ভাগের সমর্থন ভোগ করেন, আর হিলারি ভোগ করেন শতকরা ৩৯ ভাগের সমর্থন। কিন্তু ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী মনোনয়নের লড়াইয়ে হিলারিরর প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যান্ডারস ট্রাম্পের চেয়ে ৪৩-৪১ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন বলে একই জরিপে দেখা যায়।

জরিপে স্যান্ডারস ফ্লোরিডা ও পেনসিলভেনিয়াতেও ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হিলারির তুলনায় ভাল করেছেন। এ প্রবণতা অনেকগুলো জাতীয় জরিপেও প্রতিফলিত হয়েছে। কিন্তু স্যান্ডারসের ডেমোক্র্যাটিক পার্টির মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনা দেখা যায় না। ওয়েস্ট ভার্জিনিয়াতে ডেমোক্র্যাটিক প্রাইমারিতে চূড়ান্তভাবে জয়ী হওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে প্রকাশিত পরিসংখ্যানে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে স্যান্ডারসের উন্নততর অবস্থান চোখে পড়ে। এ প্রাইমারিতে হিলারির পক্ষে শতকরা ৩৬ ভাগ ভোটের বিপরীতে স্যান্ডারস শতকরা ৫১ ভাগেরও বেশি ভোট পান। হিলারি ফ্লোরিডা ও পেনসিলভেনিয়া উভয় অঙ্গরাজ্যে ৪৩-৪২ পয়েন্টে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে আছেন। জরিপে লিঙ্গ, জাতি ও বয়সসীমার ভিত্তিতে ভোট দু’ প্রার্থীর মধ্যে বিভক্ত বলে দেখা যায়। হিলারি নারী, অশ্বেতাঙ্গ ও ১৮-৩৪ বছর বয়স্ক ভোটারদের মধ্যে খুবই জনপ্রিয়। ট্রাম্প পুরুষ, শ্বেতাঙ্গ ও ৬৫ বছর ও এরও চেয়ে বেশি বয়স্ক ভোটারদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ব্যবধানে এগিয়ে আছেন। স্বতন্ত্র ভোটারদের অর্ধেক হিলারিকে এবং অর্ধেক ট্রাম্পকে সমর্থন করেন। সততা ও বিশ্বাসযোগ্যতার দিক দিয়ে ট্রাম্প হিলারির চেয়ে উন্নততর মর্যাদা ভোগ করেন। হিলারি ক্লিনটন মঙ্গলবার রাতে দলীয় প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যান্ডারসের কাছে ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া ডেমোক্র্যাটিক প্রাইমারির ভোটে হেরে গেছেন। ফলে তাকে প্রেসিডেন্ট পদে দলীয় মনোনয়নের লড়াই চালিয়ে যেতে হচ্ছে। অথচ তিনি গত সপ্তাহ সম্ভাব্য রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের আক্রমণ সামলাতেই কাটিয়ে দেন। স্যান্ডারস ঐ রাতে অরেগনে হাজার হাজার সমর্থকের উদ্দেশে বলেন, আমি পরিষ্কার করে দিতে চাই, আমরা ডেমোক্র্যাটিক পার্টির মনোনয়ন জিতে নিতে এ লড়াইয়ে রয়েছি। তিনি আগামী সপ্তাহ দুই একের মধ্যে কেন্টাকি, অরেগন, নর্থ ডেকোটা ও সাউথ ডেকোটায় জয়ী হবেন বলে ভবিষ্যদ্ব্যাণী করেন। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত প্রাইমারি ভোটে এই পরাজয়ে মনোনয়ন পাওয়ার পথে হিলারির অপেক্ষা আরও প্রলম্বিত হলো। তবে এ পরাজয় সত্ত্বেও আগামী ৮ নবেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী হওয়ার পথে হিলারিই এগিয়ে রয়েছেন। নবেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের সম্ভাব্য প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে লড়তে হলে হিলারিকে ওহাইও ও পেনসিলভানিয়ার মতো রাজ্যগুলোতে জয় পেতে হবে। ডেমোক্র্যাট দল থেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেতে ২,৩৮৩ ডেলিগেট সমর্থন প্রয়োজন হবে। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ৬৮ বছর বয়সী হিলারি ২,২২৮ ডেলিগেটের সমর্থন পেয়ে মনোনীত হওয়ার দ্বারপ্রান্তে রয়েছেন। অপরদিকে স্যান্ডারসের পক্ষে আছে ১,৪৮৩ ডেলিগেটের সমর্থন। ১৭ মে এই দুই মনোনয়ন প্রত্যাশী আরেকটি প্রাইমারিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

প্রকাশিত : ১২ মে ২০১৬

১২/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: