হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৭.২ °C
 
২৩ জানুয়ারী ২০১৭, ১০ মাঘ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শনিবার ভাগ্য নির্ধারণ বার্সিলোনা-রিয়ালের

প্রকাশিত : ১০ মে ২০১৬

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শেষ পর্যন্ত স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপা ফয়সালা হচ্ছে শেষ রাউন্ডের ম্যাচেই। রবিবার রাতে ৩৭ রাউন্ডের ম্যাচে দুই পরাশক্তি বার্সিলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ জয় পাওয়ায় আগামী ১৪ মে শনিবার ফয়সালা হবে ট্রফি যাবে কোন শিবিরে।

চ্যাম্পিয়নের এই রেস থেকে অবশ্য ছিটকে পড়েছে আরেক বড় দল এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। লেভান্তের মাঠ থেকে ২-১ গোলে হেরে এসেছে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে ওঠা দলটি। ফলে লা লিগার শিরোপা দ্বৈরথটা এখন দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে জিইয়ে থাকলো। পরশু রাতে বার্সিলোনা ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেয় এস্পানিওলকে। আর রিয়াল মাদ্রিদ ভ্যালেন্সিয়াকে ঘাম ঝরিয়ে হারিয়েছে ৩-২ গোলে। এদিনই অবশ্য শিরোপা ফয়সালা হওয়ার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছিল।

নুক্যাম্পে যখন বার্সার ফুটবলাররা উল্লাসে ব্যস্ত ছিলেন তখন সংগ্রাম করছিল দুই নগর প্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল ও এ্যাটলেটিকো। দুই গোলে এগিয়ে যাওয়া রিয়াল শেষদিকে এসে দুই গোল হজম করে বসে। ম্যাচটি ড্র হওয়ার উপক্রম হয়েছিল। ৮৩ মিনিটে ভ্যালেন্সিয়ার একটি গোল করা রডরিগো লালকার্ড দেখে মাঠ ছাড়লেও সান্টিয়াগো বার্নাব্যুর দুর্গ কাঁপিয়ে দিয়েছিল। কপাল ভাল রোনাল্ডো, রামোসরা শেষমেশ জিতে মাঠ ছেড়েছে। তাইতো শিরোপা লড়াইটা শেষ ম্যাচে গড়িয়েছে। ম্যাচটি ড্র হলেই এক খেলা হাতে রেখেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেত বার্সা। কিন্তু এ্যাটলেটিকো আর পেরে ওঠেনি। ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যাওয়া সিমিওনের দল শেষ মিনিটের গোলে স্বপ্ন বিসর্জন দিয়েছে।

বর্তমানে ৮৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে বার্সিলোনা। এক পয়েন্ট কম নিয়ে রিয়ালের অবস্থান দ্বিতীয়। তৃতীয় স্থানে থাকা এ্যাটলেটিকোর পয়েন্ট ৮৫। তিন দলেরই আর একটি করে ম্যাচ বাকি। শেষ ম্যাচে বার্সার প্রতিপক্ষ গ্রানাডা। আর রিয়াল খেলবে ডিপোর্টিভো লা করুনার বিরুদ্ধে। দুই পরাশক্তিই লড়বে প্রতিপক্ষের মাঠে। শেষ ম্যাচে বার্সা জিতলে আর কোন সুযোগ থাকবে না রিয়ালের। কাতালানরা ড্র কিংবা হারলে এবং রিয়াল জিতলেই কেবল রোনাল্ডোরা ট্রফি জয়ের উচ্ছ্বাস করবে।

ন্যুক্যাম্পে ম্যাচের অষ্টম মিনিটে লিওনেল মেসির দুর্দান্ত ফ্রিকিকে এগিয়ে যায় বার্সা। ৫২ ও ৬১ মিনিটে পরপর দুই গোল করে কাতালান পরাশক্তিদের জয় নিশ্চিত করে দেন লুইস সুয়ারেজ। এরপর ৭৪ মিনিটে রাফিনহা ও ৮৩ মিনিটে নেইমারের লক্ষ্যভেদ বিশাল জয়ের আনন্দে মাতিয়ে তোলে বার্সার সমর্থকদের। সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে গোলরক্ষক কেইলর নাভাস, ডিফেন্ডার দানি কারভাহাল, মিডফিল্ডার লুকা মডরিচ ও ফরোয়ার্ড গ্যারেথ বেল চোটের কারণে খেলতে পারেননি। তবু ২৬ মিনিটে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল। বিরতির মিনিট তিনেক আগে ব্যবধান দ্বিগুন করেন করিম বেনজামা। ৫৫ মিনিটে রডরিগো ব্যবধান কমালেও চার মিনিট পরই স্কোর ৩-১ করেন সি আর সেভেন। ভ্যালেন্সিয়া অবশ্য হাল ছাড়েনি। ৮১ মিনিটে আন্দ্রে গোমেজের লক্ষ্যভেদ জমিয়ে তোলে ম্যাচ। কিন্তু তার দুই মিনিট পর রডরিগো লালকার্ড দেখে বেরিয়ে গেলে আর পেরে ওঠেনি অতিথিরা।

শিরোপা জিততে হলে শেষ রাউন্ডে রিয়ালকে নিজেদের ম্যাচ জেতার পাশাপাশি তাকিয়ে থাকতে হবে বার্সিলোনা-গ্রানাডা ম্যাচের দিকে। স্পেনের সফলতম ক্লাবটির কোচ জিনেদিন জিদান আশা করছেন, বার্সার রিরুদ্ধে ভাল খেলবে গ্রানাডা। ম্যাচ শেষে জিদান বলেন, আমাদের পয়েন্ট পেয়ে যেতে হবে এবং আশা করছি, গ্রানাডা তাদের ম্যাচে ভাল করবে। আমাদের ম্যাচটি জিততে যা করা প্রয়োজন আমরা তাই করব। তিনি আরও বলেন, গ্রানাডা যদিও এখন অবনমন অঞ্চল থেকে নিরাপদে আছে, আমি নিশ্চিত তারা তাদের শেষ ম্যাচটি যেভাবে খেলা উচিত সেভাবেই খেলবে। বার্সা কোচ লুইস এনরিকে টেনশনে থাকলেও আশা করছেন শিরোপা উঠবে তাদের ঘরেই। তিনি বলেন, এই মুহূর্তটা অনেক চাপের। সবাই উত্তেজনায় আছে। তবে আশা করছি জয় দিয়েই আমরা শিরোপা উদযাপন করবো। অন্যদিকে গোটা মৌসুমে শিরোপা রেসে থেকে এক ম্যাচ আগে ছিটকে পড়লেও হতাশ নন এ্যাটলেটিকো কোচ দিয়াগো সিমিওনে। তিনি তার দল নিয়ে গর্বের কথা জানিয়েছেন।

প্রকাশিত : ১০ মে ২০১৬

১০/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: