হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৬.১ °C
 
২১ জানুয়ারী ২০১৭, ৮ মাঘ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

রমজানে বাজার স্থিতিশীল রাখতে প্রস্তুত হচ্ছে টিসিবি

প্রকাশিত : ১০ মে ২০১৬

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে সব প্রস্তুতি নিয়েছে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। রমজানের আগেই সারাদেশে নিজস্ব ডিলার ছাড়াও বিভাগীয় ও জেলা সদরে ১৭৪টি ট্রাক এবং নিজস্ব ১০টি খুচরা বিক্রয় কেন্দ্রের মাধ্যমে মসুর ডাল, চিনি, ছোলা, ভোজ্যতেল ও খেজুর বিক্রি করবে টিসিবি। তবে বাজারে কিছু পণ্যের দাম উর্ধমুখী হওয়ায় ক্যাবের মতে, বাজার নিয়ন্ত্রণে এখনই টিসিবিকে সক্রিয় হতে হবে। সারাবছর বাজারে সেভাবে সক্রিয় না থাকলেও রমজানকে সামনে রেখে গত নবেম্বর থেকেই প্রস্তুতি শুরু হয়েছে টিসিবির। ইতোমধ্যে পর্যাপ্ত চিনি ও মসুর ডাল মজুদ করা হয়েছে। ভোজ্যতেল ও খেজুর কেনার প্রক্রিয়াও সম্পন্ন বলে জানানো হয় প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে। সারাদেশে নিয়োজিত ডিলারদের পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ ট্রাকের মাধ্যমে ও খুচরা বিক্রয় কেন্দ্রে বাজারদরের চেয়ে কম দামে রমজানের এই পাঁচটি অপরিহার্য পণ্য বিক্রি করবে টিসিবি। তবে এখনও পণ্যের মূল্য নির্ধারণ করা হয়নি। ভোক্তা অধিকার সংগঠন ক্যাবের মতে, কৌশল পরিবর্তন করে ব্যবসায়ীরা আগেভাগেই কিছু পণ্যের দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে। তাই দেরি না করে খুব দ্রুত টিসিবিকে সক্রিয় হতে হবে। ক্যাব সভাপতি গোলাম রহমান বলেন, ‘যেহেতু ব্যবসায়ীরা সরকারের চাপে থাকে। তারা রমজানের সময় মূল্য বৃদ্ধি না করে কৌশল পরিবর্তন করে আগেই দাম বাড়ানোর প্রচেষ্টা নিয়েছে। যেসব পণ্যের চাহিদা রমজানে বৃদ্ধি পায় সেসব পণ্যের দাম এখন বৃদ্ধি পাচ্ছে।’ টিসিবির পণ্য খোলা বাজারে বিক্রি রোধে মাঠপর্যায়ে স্থানীয় প্রশাসনকে নজরদারির পরামর্শ দিয়েছেন বাজার বিশ্লেষকরা। এছাড়া শুধু রমজানের আগে নয়, বাজার নিয়ন্ত্রণে টিসিবিকে সারাবছরই বাণিজ্যিক ভিত্তিতে পরিচালনার আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্লেষকরা।

বাজেটে মাছ রফতানির ওপর উৎসে কর কমানোর দাবি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আসন্ন ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটে হিমায়িত চিংড়ি ও অন্যান্য মাছ রফতানির ওপর আরোপিত উৎসে কর কমানোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুডস এক্সপোর্টার্স এ্যাসোসিয়েশন (বিএফএফইএ)। সংগঠনটি উৎসে কর শূন্য দশমিক ৬০ শতাংশ থেকে কমিয়ে পোশাক শিল্পের ন্যায় শূন্য দশমিক ৩০ শতাংশ নির্ধারণ করার দাবি জানিয়েছে।

সম্প্রতি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর) এ দাবি সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব পাঠিয়েছে বলে জানিয়েছেন হিমায়িত চিংড়ি ও অন্যান্য মাছ রফতানিকারকদের সংগঠন বিএফএফইএ’র নির্বাহী পরিচালক আবুল বাশার। তিনি বলেন, কাঁচামাল সঙ্কটের কারণে মাত্র ১৫ শতাংশ উৎপাদন ক্ষমতায় হিমায়িত প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানাগুলো পরিচালিত হচ্ছে। ফলে রফতানিকারকরা অভ্যন্তরীণ ও রফতানি বাজারে তীব্র প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হচ্ছে। এ কারণে পণ্যের উৎপাদন খরচ বেড়ে যাচ্ছে।

প্রকাশিত : ১০ মে ২০১৬

১০/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অর্থ বাণিজ্য



ব্রেকিং নিউজ: